Home Tags Posts tagged with "১৩"

১৩

১৩,০০০ পিস ইয়াবা ও বিপুল পরিমান নগদ টাকাসহ ০৪ জন মাদক কারবারীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১৫

আয়াজ সানি সিটিজি ট্রিবিউন:

কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানাধীন উত্তর সােনার পাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ১৩,০০০ পিস ইয়াবা ও বিপুল পরিমান নগদ টাকাসহ ০৪ জন মাদক কারবারীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১৫

 

এরই ধারাবাহিকতায় র‍্যাব-১৫,কক্সবাজার গােপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে , কতিপয় মাদক কারবারী কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানাধীন উত্তর সােনার পাড়া ৩ নং ওয়ার্ড এর জনৈক কফিল উদ্দিন এর বাড়িতে মাদকদ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট ক্রয় – বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে ।

উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব-১৫,এর একটি চৌকস আভিযানিক দল ১১/০৬/২০২১ উপরােক্ত স্থানে পৌছালে র্যাব সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে কতিপয় মাদক কারবারী পালিয়ে যাওয়ার প্রাক্কালে আসামী ১। মােঃ রিদওয়ান ( ৪০ ) , পিতা- মৃতঃ মৌলভী ওমর , সাং- উত্তর ঘােনার পাড়া , ৩ নং ওয়ার্ড , ইউপি – জালিয়াপালং ,

 

২। মােঃ হেলাল উদ্দিন ( ২৫ ) , পিতা- আব্দুর ছালাম , সাং- ফলিয়া পাড়া , ৬ নং ওয়ার্ড , ইউপি রাজাপালং , ৩। জাফর আলম ( ২১ ) , পিতা- ফোরকান আহম্মদ , সাং – খয়রাতি পাড়া , ৬ নং ওয়ার্ড , ইউপি – রাজাপালং , সর্ব থানা উখিয়া , জেলা- কক্সবাজার , ৪। মােঃ তাইজুল ইসলাম ( ৩২ ) , পিতা- মৃতঃ শেখ আকবর আলী , সাং- বৈকালী ( ল্যাংটা ফকিরের মাজারের পাশে ) , থানা- খালিশপুর , জেলা- খুলনাদের ধৃত করে এবং তাদের সহযােগী আসামী কফিল উদ্দিন ( ২৯ ) , পিতা- মৃতঃ সৈয়দ কম্পানী ( 2 ) বরমাইয়া সৈয়দ , সাং- উত্তর সােনার পাড়া , ৩ নং ওয়ার্ড , ইউপি- জালিয়াপালং , থানা- উখিয়া , জেলা- কক্সবাজার পালিয়ে যায় ।

ঐ সময় উপস্থিত স্বাক্ষীদের সম্মুখে ধৃত আসামীদের দেখানাে মতে বসতঘরের খাটের তােশকের নিচে তল্লাশী করে লােকায়িত অবস্থা হতে সর্বমােট ১৩,০০০ ( তের হাজার ) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট , মাদক বিক্রয়ের নগদ ১ লক্ষ ৪৮ হাজার ৪০০ টাকা , ০১ টি সিএনজি এবং ০১ টি মােটরসাইকেল উদ্ধার করা হয় ।

জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামীরা স্বীকার করে যে , তারা পলাতক আসামীর সহযােগীতায় দীর্ঘদিন যাবত টেকনাফের সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদকদ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্রয় করে আসছে ।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে । পলাতক আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে ।

কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন বড় হাবিবপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে আনুমানিক ১২ কোটি ৪১ লক্ষ টাকা মূল্যের ৪,১৩,৭০০ (চার লক্ষ তের হাজার সাতশত) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম।

র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন সদর ইউপির ০৮নং ওয়ার্ড বড় হাবিবপাড়া গ্রামের জনৈক জাফর আলমের বাড়ির উঠানে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী বিশেষ কায়দায় ইয়াবা ট্যাবলেট সংরক্ষন করে ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে।

উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে অদ্য ০৪ এপ্রিল ২০২১ ইং তারিখ ০৬৩০ ঘটিকায় র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম এর একটি আভিযানিক দল বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী মোঃ মনসুর আলম (২৯), পিতা- খোরশেদ আলম, সাং- দক্ষিণ রুমালিয়াছড়া, ০৬নং ওয়ার্ড, থানা- সদর, জেলা- কক্সবাজারকে আটক করে।

পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে যে, তার হেফাজতে বসবাড়ির উঠানে থাকা মুরগীর ফার্মের সামনে মাটি খুড়ে বিশেষ কায়দায় ইয়াবা ট্যাবলেট সংরক্ষন করে রেখেছে।

পরবর্তীতে আসামীর দেখানো ও শনাক্ত মতে এবং নিজ হাতে বের করে দেওয়া মতে তার বসতবাড়ির উঠানে থাকা মুরগীর ফার্মের সামনে মাটির নিচে দুইটি প্লাস্টিকের বস্তার ভিতরে বিশেষ কায়দায় লুকানো অবস্থায় ৪,১৩,৭০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আসামীকে গ্রেফতার করা হয়।

আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায় যে, সে দীর্ঘদিন যাবত টেকনাফের সীমান্ত এলাকা মায়ানমার হতে ইয়াবা ট্যাবলেটের বড় বড় চালান বাংলাদেশে আনয়ন করে এবং পরবর্তীতে টেকনাফ,

উখিয়া, কক্সবাজারসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার মাদক ব্যবসায়ী পাইকারী ব্যবসায়দের নিকট উক্ত ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকের আনুমানিক মূল্য ১২ কোটি ৪১ লক্ষ টাকা।

গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্য সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

আয়াজ আহমাদ:

কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন বড় হাবিবপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে আনুমানিক ১২ কোটি ৪১ লক্ষ টাকা মূল্যের ৪,১৩,৭০০ (চার লক্ষ তের হাজার সাতশত) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম।

র‍্যাব-প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃঙ্খলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম; অস্ত্রধারী সস্ত্রাসী, ডাকাত, ধর্ষক, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, খুনি, বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার, মাদক উদ্ধার, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করায় সাধারণ জনগনের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

র‍্যাব-৭,চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন সদর ইউপির ০৮নং ওয়ার্ড বড় হাবিবপাড়া গ্রামের জনৈক জাফর আলমের বাড়ির উঠানে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী বিশেষ কায়দায় ইয়াবা ট্যাবলেট সংরক্ষন করে ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে।

উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে অদ্য ০৪ এপ্রিল ২০২১ ইং তারিখ ০৬৩০ ঘটিকায় র‍্যাব-৭,চট্টগ্রাম এর একটি আভিযানিক দল বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করলে র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে র‍্যাব- সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী মোঃ মনসুর আলম (২৯), পিতা- খোরশেদ আলম, সাং- দক্ষিণ রুমালিয়াছড়া, ০৬নং ওয়ার্ড, থানা- সদর, জেলা- কক্সবাজারকে আটক করে।

পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে যে, তার হেফাজতে বসবাড়ির উঠানে থাকা মুরগীর ফার্মের সামনে মাটি খুড়ে বিশেষ কায়দায় ইয়াবা ট্যাবলেট সংরক্ষন করে রেখেছে।

পরবর্তীতে আসামীর দেখানো ও শনাক্ত মতে এবং নিজ হাতে বের করে দেওয়া মতে তার বসতবাড়ির উঠানে থাকা মুরগীর ফার্মের সামনে মাটির নিচে দুইটি প্লাস্টিকের বস্তার ভিতরে বিশেষ কায়দায় লুকানো অবস্থায় ৪,১৩,৭০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আসামীকে গ্রেফতার করা হয়। আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায় যে,

সে দীর্ঘদিন যাবত টেকনাফের সীমান্ত এলাকা মায়ানমার হতে ইয়াবা ট্যাবলেটের বড় বড় চালান বাংলাদেশে আনয়ন করে এবং পরবর্তীতে টেকনাফ, উখিয়া, কক্সবাজারসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার মাদক ব্যবসায়ী পাইকারী ব্যবসায়দের নিকট উক্ত ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকের আনুমানিক মূল্য ১২ কোটি ৪১ লক্ষ টাকা।

গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্য সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।