Home Tags Posts tagged with "ফেসবুকে প্রেমের ফাঁদ"

ফেসবুকে প্রেমের ফাঁদ

ফেসবুকের মাধ্যমে বন্ধুত্ব ও প্রেম। তারপর নিয়ে যাওয়া হয় অপরাধীদের আস্তানায়। সেখানে আটকে রেখে চালানো হয় শারীরিক নির্যাতন।

পরে ভুক্তভোগীর মোবাইল থেকেই কল করে স্বজনদের কাছ থেকে আদায় করা হয় টাকা। আর ঘটনা যাতে প্রকাশ না করা হয় সেজন্য তার নগ্ন ছবি তুলে রাখে অপরাধী চক্র। মোহাম্মদপুর থানায় অভিযোগ করার পর তদন্তে নেমে এমনই এক চক্রের নারী সদস্যসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ফেসবুকের মাধ্যমে সাহারা খানম নামে এক নারীর সাথে বন্ধুত্ব হয় ভুক্তভোগী এক যুবকের। তারপর রাজধানীর ঢাকা উদ্যানের বেড়িবাধের রাস্তার ঢালে সিটি হোটেলের সামনে সাক্ষাত হয় ভুক্তভোগীর। তারপর তাকে কৌশলে ব্লক- ডি এর ১ নম্বর রোডের চারতলা ভবনের তৃতীয় তলার একটি ফ্ল্যাটে আটকে রাখে প্রতারক চক্র।

ফ্ল্যাটে আটকে রেখে শারীরিক নির্যাতন করে ভুক্তভোগীর কাছ থেকে কেড়ে নেয়া হয় মানিব্যাগ, মোবাইল, ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড। স্বজনদের ফোন দিয়ে বিকাশ, রকেট ও নগদ-এর মাধ্যমে হাতিয়ে নেয় ৮৫ হাজার টাকা। ভুক্তভোগী বলেন, ‘আমাকে হাত-পা বেঁধে অনেক মারপিট করলে আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। এরপর আমার জ্ঞান ফিরলে আমার পরিবারের কাছ থেকে বিকাশ বা নগদে মুক্তিপণ দাবি করে।’

প্রতারক চক্রের একজন বলেন, ‘আমরা তিন চারজনসহ একটা মেয়েকে সাথে নিয়ে বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে এই কাজগুলো করি। কিছু নির্দিষ্ট মানুষকে আমরা টার্গেট করতাম।’

গ্রেপ্তার প্রতারকরা রাজধানীর উত্তরা, মিরপুর, মুগদা, মোহাম্মদপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় বাসা ভাড়া করে স্বচ্ছল পরিবারের সদস্যদের জিম্মি করে দীর্ঘদিন ধরে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে উল্লেখ করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেন,

এরা ঢাকার বিভিন্ন জায়গায় বাসা নিয়ে এরকম কাজগুলো করে অনেকের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। আমাদের ধারনা এধরনের আরো চক্র থাকতে পারে। তাদেরকেও ধরতে অভিযান চালানো হবে।

এধরনের ঘটনার প্রতিকার পেতে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর শরণাপন্ন হওয়ার পরামর্শও দেয় পুলিশ।

ঘটনাস্থল ঘুরে দেখা গেছে ভিন্ন পরিচয় ব্যবহার করে ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়েছিলো প্রতারক চক্রটি। কেয়ারটেকার মোহাম্মদ ইউনুস বলেন,

‘বাসা ভাড়া নেয়ার সময় নিজেদের টাইলসের কন্ট্রাক্টর বলে পরিচয় দেয় এবং বলে সন্ধ্যার পর বিভিন্নজন তাদের থেকে বিল নিয়ে যায়