Home Tags Posts tagged with "চসিক প্রশাসকের সাথে দৈনিক পূর্বকোণ সম্পাদকের সৌজন্য সাক্ষাত সত্যিকারের নাগরিক উপযোগী নগর প্রতিষ্ঠাই আমার লক্ষ্য -সুজন"

চসিক প্রশাসকের সাথে দৈনিক পূর্বকোণ সম্পাদকের সৌজন্য সাক্ষাত সত্যিকারের নাগরিক উপযোগী নগর প্রতিষ্ঠাই আমার লক্ষ্য -সুজন

0 0

চট্টগ্রাম- ২০ আগস্ট ২০২০ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক আলহাজ্ব মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, চট্টগ্রাম নগরীতে সংস্কৃতি ও সভ্যতার বিকাশে দৈনিক পূর্বদেশ নতুন যুগের সূচনা করেছে। নগর মানুষের ভাবনা, চিন্তা, ধর্ম, রাজনীতি, আদর্শের বাহনে পরিণত হয় এ প্রিন্ট মিডিয়া। ‘মুক্তচিন্তা ও মত প্রকাশের ¯^াধীনতা’ শব্দবন্ধটি নতুন ব্যঞ্জনা লাভ করেছে এই পত্রিকায়। বাঁশখালীর কৃতি সন্তান শিক্ষানুরাগী মাস্টার নজির আহমদ কলেজসহ বিভিন্ন শি¶াপ্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রবীণ শি¶াবিদ নজির আহমদ পত্রিকাটি প্রতিষ্ঠা করে অত্র অঞ্চলের গণমানুষের অধিকার আদায়ে সচেষ্ট হন। পরবর্তীতে তাঁর উত্তরসূরীরা এই ধারা অব্যাহত রেখেছেন।

তিনি আজ সকালে দৈনিক পূর্বদেশ পত্রিকার সম্পাদক মুজিবুর রহমান সিআইপি টাইগারপাসস্থ নগরভবনে চসিক প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজনের সাথে তাঁর দপ্তরে সৌজন্য সাক্ষাতকালে তিনি এসব কথা বলেন। প্রশাসক আরো বলেন, দৈনিক পূর্বদেশ যেভাবে বাঙালির অন্তর্গত চেতনার স্ফুরণ ঘটিয়েছিল; গণমাধ্যমের মহত্ত¡, স¶মতা ও জনসম্পৃক্ততা যেভাবে একটি জাতিসত্তার বিকাশে ইতিহাস-নির্ধারণী ভূমিকা রাখছে, তা নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ। আগামীতেও ‘পূর্বদেশ’ চট্টগ্রামের অবহেলিত বঞ্চিত মানুষের মুখপত্র হিসেবে কাজ করবে। আমি আশা করি একটি ¯^স্থিদায়ক ও মানবিক নগরী হিসেবে চট্টগ্রামকে গড়ে তুলতে পূর্বদেশ প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেবে।

প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন চসিকের উন্নয়ন কর্মকান্ডে গণমাধ্যমের সহযোগিতা কামনা করে বলেন, আমি   সময়ের জন্য দায়িত্ব পেয়েছি এই সময়ের মধ্যে আমাদের সাবেক মেয়র আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর দেখানো পথের একটি গাইডলাইন তৈরী করে দিতে চাই।
দৈনিক পূর্বদেশ পত্রিকার সম্পাদক মুজিবুর রহমান সিআইপি প্রশাসককে  জানিয়ে বলেন, চট্টগ্রামের দৈনিকগুলোতে সাহিত্য-সংস্কৃতি-ইতিহাস-ঐতিহ্যের মতো মূল্যবান বিষয়, সৃজন ও মননশীল মানুষগুলো চরমভাবে অবহেলিত। অথচ এসব ক্ষেতরে চট্টগ্রামের রয়েছে কালজয়ী অর্জন, হাজারো তারকা সমান মহীয়ান ব্যক্তিত্ব-মনীষা। এক্ষেত্রে নগর উন্নয়ন, সমসাময়িক প্রসঙ্গ,রাজনীতি,সংস্কৃতি,ধর্ম, উপনিত মেধা ও মেধাবীমুখগুলো হাইলাইটস করতে চাই আমরা।

সাধারণ মানুষের, বঞ্চিতদের কাব্যগাথাই তুলে ধরব আমরা।এজন্য প্রশাসকের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

0 0

চট্টগ্রাম, ১৮ আগস্ট- ২০২০ নগরীর সার্বিক উন্নয়ন, জলাবদ্ধতা ও পাহাড়ধস নিরসনে সিটি করপোরেশন গৃহীত সেবাধর্মী নানা কর্মসূচির বিষয়ে দৈনিক পূর্বকোণের সম্পাদক ডা. ম. রমিজউদ্দিন চৌধুরীর সাথে এক সৌজন্য স্বাক্ষাতে মিলিত হন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রশাসক আলহাজ মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন। অনুষ্ঠিত বৈঠকে প্রশাসক চট্টগ্রামের উন্নয়ন ও সম্ভাবনাময় বিশ্বমানের নগরী গড়ে তোলা, ব্যবসা-শিল্প, পর্যটন ও বিনিয়োগবান্ধব বাণিজ্যিক নগরীতে উন্নয়নসহ নানা বিষয়ে একান্তে কথা বলেন।

পারস্পরিক কুশল বিনিময়কালে প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন নগরীর উন্নয়ন মূলক বিভিন্ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে নগরবাসীর কল্যাণে তার স্বপ্নের নানামুখী দিক উল্লেখ করে বলেন, দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা মরহুম ইউসুফ চৌধুরী শুধু একজন পত্রিকার মালিক ছিলেন না তিনি ছিলেন চট্টগ্রাম উন্নয়নের একজন আলোক বর্তিকা। তিনি রাজনীতিক না হয়েও মানুষের অধিকার আদায়ে অনন্য ভূমিকা পালন করেছেন।

তিনি চট্টগ্রামের সমস্যা সবসময় জনমানুষের সামনে তুলে ধরেছেন। চট্টগ্রামে ভেটেরেনারী বিশ^বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় তাঁর অবদান অবিশ^রনীয়। বর্তমানে তাঁর উত্তরসূরীরা পূর্ববোণ পত্রিকা পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন। আমি আশা করি তাঁরাও তাঁদের পিতার মত গণমানুষের অধিকার আদায়ে অবদান রাখবেন। তিনি বলেন, আমাকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আস্থায় নিয়ে একটি নির্দ্দিষ্ট সময়ের জন্য প্রশাসকের দায়িত্ব দিয়েছেন।

আমার এ দায়িত্ব পালনে আমি গণমাধ্যমসহ নগরবাসীর সহযোগীতা প্রত্যাশা করছি। তিনি আরো বলেন, আমার কাজে ভুল হতে পারে ভুল শুধরানোর দায়িত্ব জণগনের কাছে থাকলো। আমি এটুকু বলতে পারি দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে আমি সততার সাথে দায়িত্ব পালন করবো। আমি আশাকরি নগরবাসী আমাকে উপযুক্ত পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করবেন। তিনি বলেন,সত্যিকারের নাগরিক উপযোগী এক নগর প্রতিষ্ঠা করাই তার লক্ষ্য। দেশের ও বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের লোকজন ঘুরতে আসে এ শহরে।

পর্যটন সহ ধর্মীয় আধ্যাত্মিকতায় সমৃদ্ধ এ নগর সেই মানে গড়ে না উঠলে, আশাহত হবে সকল মানুষ। তথ্যপ্রযুক্তির এ যুগে মানুষ দুনিয়ার সুবিধাসম্পন্ন নগরগুলোর জীবনচিত্র সম্পর্কে অবগত হয়ে উঠছে, কিন্তু তাদের শহর যদি সে লক্ষ্য পূরণে ব্যর্থ হয়, তাহলে তা দুর্ভাগ্যজনক। তিনি বলেন, লক্ষ্য পূরণে যথাযথ মহলের সহযোগিতা খুবই দরকার। পূর্বকোণের সম্পাদক ডা. ম. রমিজউদ্দিন চৌধুরী তাঁর কর্ম পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে সর্বত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে বলেন, কাজের মধ্যে দিয়ে মানুষ বেঁচে থাকে।

এ বেঁচে থাকাটায় প্রকৃত সার্থকতা। একজন সেবক প্রকৃত অর্থে সেবক হয়ে উঠে নাগরিক বান্ধব কাজের মাধ্যমে। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন তাঁর কাজের মধ্যে দিয়ে নিজকে স্মরণীয় রাখতে পারবেন। এসময় দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকার পরিচালনা সম্পাদক জসিম উদ্দিন চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।