Home Tags Posts tagged with "আটক ১"

আটক ১

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ-
মায়ের কোল থেকে চুরি হওয়া মেয়ে নবজাতক শিশুটি চুরির ১৬ ঘণ্টা পর উদ্ধার করেছে ঝিনাইদহ র‍্যাব-। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কালীগঞ্জ শহরের নিশ্চিন্তপুর এলাকার জনৈক রফি উদ্দিনের বাড়ি থেকে নবজাতককে উদ্ধার করে মায়ের কোলে তুলে দেওয়া হয়।

নবজাতক চুরির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পিয়া খাতুন (৩০) নামে এক নারীকে আটক করা হয়েছে। পিয়া কালীগঞ্জ শহরের ঢাকালেপাড়া এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী বলে জানিয়েছেন।

পুলিশ ও র‍্যাব-সুত্রে জানা গেছে, সোমবার সন্ধ্যার দিকে কালীগঞ্জ শহরের সেবা ক্লিনিক থেকে সদ্য ভূমিষ্ঠ নবজাতক মেয়ে শিশুটি চুরি হয়। এ খবর সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত হলে তোলপাড় শুরু হয়।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই ঝিনাইদহ -৬ সদস্যরা শিশুটি উদ্ধারে অভিযান শুরু করে। এদিকে শিশু সন্তনটি খুজে পাওয়ায় মায়ের আনন্দ যেন আর ধরছে না। নিজে অসুস্থ থাকলেও সন্তানকে জড়িয়ে ধরে অনবরত চুমু খাচ্ছেন সাবানা খাতুন।

ঝিনাইদহ র‍্যাব-সুত্রে জানা গেছে, ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌরসভার বলিদাপাড়া গ্রামের মনিরুজ্জামান বাবুর স্ত্রী শাবানা খাতুনের প্রসব ওেবদনা শুরু হলে স্থানীয় সেবা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।

সোমবার দুপুরে আড়াইটার দিকে অস্ত্রোপচারে ফুটফুটে এক মেয়ের জন্ম দেন শাবানা। মনিরুজ্জামান বাবু বলেন, সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে সবাই ,

ইফতার করতে গেলে বোরকা পরা এক নারী এসে শিশুটিকে চুরি করে নিয়ে যান। এ সময় মা শাবানা অচেতন ছিলেন।

আয়াজ আহমাদ:মোবারক হোসেন, লক্ষ্মীছড়ি: খাগড়াছড়ি জেলার লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় যৌথ বাহিনীর অভিযানে বিপুল পরিমাণ গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছ। ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে এক ব্যক্তিকে। ১৯ জানুয়ারি সেনাবাহিনী ও র‍্যাব-একটি বিশেষ টীম এ অভিযান পরিচালনা করেন।

পুলিশ জানায়, লক্ষ্মীছড়ি সেনা জোনের আওতাধীন ইন্দ্রসিংপাড়া সেনা ক্যাম্পের নিকটবর্তী ডানের বানরকাটা এলাকায় র‍্যাব-এবং সেনাবাহিনীর যৌথ অভিযানে প্রক্রিয়াজাতকৃত ৮০ টি গাঁজার বস্তা এবং ৫০০ কেজি ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা গাঁজাসহ প্রায় ১হাজার ৭০০ কেজি গাঁজা পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।

এসময় উক্ত স্থান হতে শান্তু চাকমা(৪৫) নামে একজন গাঁজা ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে যৌথবাহিনী। এদিকে অভিযান শেষে ফেরার পথে আরো প্রায় ৩০ শতক জমির চাষকৃত গাঁজার ক্ষেত ধ্বংস করে। আটক আসামীকে বিকেলে থানায় হস্তান্তর করলে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা রুজু করা হয়। মামলা নং ০১, তাং ১৯.০১.২০২১খ্রী.।

লক্ষ্মীছড়ি থানার অফিসার্স ইনচার্জ হুমায়ূন কবির জানান, গাঁজা উদ্ধারে আলামতের নমুনাসহ আটক আসামীকে বুধবার সকালে খাগড়াছড়ি আদালতে প্রেরণ করা হবে। এই মামলায় আরো ২জনকে আসামী করা হয়েছে যারা পলাতক রয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

ধারণা করা হয় যে, দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় এসকল অবৈধ গাঁজা চাষাবাদ স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীদের অর্থের অন্যতম উৎস হিসেবে ব্যবহৃত হয়। যৌথ বাহিনীর সদস্যরা জব্দকৃত গাঁজা ঘটনাস্থলে পুড়িয়ে ধ্বংস করে। এ সকল দুর্গম এলাকায় গাঁজার চাষ বন্ধ করতে যৌথবাহিনীর চলমান অভিযান আরো জোড়দার করা হচ্ছে। পাহাড়ে স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে এসকল বিশেষ অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়েছে এলাকার সচেতন জনগন।