Home রাজশাহী

লিয়াকত রাজশাহী ব্যুরোঃ রাজশাহীর দাসপুকুরে আওয়ামী লীগ অফিস ভাঙ্গচুরের অবিযোগে রাজপাড়া থানায় একটি মামলা হয়েছে। রাসিক ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহাতাব উদ্দিন বাদী হয়ে এই মামলা দায়ে করেন।

মামরায় তিনি উল্লেখ করেন ২৮ ফেব্রুয়ারী আনমানিক রাত ৯টার দিকে দাসপুকুর মহল্লার মৃত সাজদার আলী ছেলে আব্দুস সালাম, মজিবুর ও শফিকুল, আব্দুস সালামে,র শেষে শিশির ও শাওন, জামালের ছেলে রনিসহ অজ্ঞাত আরো ৪ থেকে ৫জন মিলে সম্পূর্ণ বেআইনী ভাবে দলবদ্ধ হয়ে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী দাসপুকুর আওয়ামী লীগের অফিসের প্রবেশ করে ,

হঠাৎ করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের ছবি খোলার প্রস্তুতিকালে চেম্বারে উপস্থিত লক্ষ্মীপুরের সুমন বাধা প্রদান করলে শিশির ও শাওন তারের উপর চড়াও হয় এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে রক্তাক্ত করে ফেলে। অন্যান্যরা সে সময়ে তান্ডব চালায় বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এ বিষয় জানতে চাইলে শফিকুল ইসলাম শফিক বলেন, এটা অফিস কিংবা বঙ্গবন্ধু এবং বর্তমানে মেয়রের ছবি ভাঙ্গা নয়। আসৎল ঘটনা হলো মাহাতাব জোর করে তাদের ক্রয়কৃত জমি দখলে নেয়ার জন্যই এই মিথ্যা নাটক সাজিয়েছেন। আমরা তার অফিসে যাইনি এবং কোন প্রকার ভাঙ্গচুর ও কারো ছবি ছিঁড়ে ফেলিনি। তিনি এই ধরনের মিথ্যাচারের তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ জানান।

0 0

লিয়াকত রাজশাহী ব্যুরোঃ

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের বোয়ালিয়া আয়োজনে শাহ শখদুম কলেজ মাঠে বিট পুলিশিং সমাবেশ এর আয়োজন করা হয়। উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ আবু কালাম সিদ্দিক মহোদয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন) মোঃ সুজায়েত ইসলাম, অতিরিক্তি পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) মোঃ মজিদ আলী বিপিএম মহোদয় সহ অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশানর (বোয়ালিয়া বিভাগ) মোঃ তৌহিদুল আরিফ, সহকারী পুলিশ কমিশনার (বোয়ালিয়া মডেল থানা) ফারজিনা নাসরিন, শাহ মখদুম কলেজ এর অধ্যক্ষ মোঃ রেজাউল ইসলাম, অফিসার ইনচার্জ, বোয়ালিয়া মডেল থানা নিবারন চন্দ্র বর্মন, পিপিএম, ২২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আব্দুল হামিদ সরকার টেকন, ২৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ মাহাতাব উদ্দিন চৌধুরী সহ স্থানীয় রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ। উক্ত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উপ-পুলিশ কমিশনার (বোয়ালিয়া বিভাগ) মোঃ সাজিদ হোসেন।

প্রথমেই পুলিশ কমিশনার মহোদয় উপস্থিত সকলকে শুভেচ্ছা ও সালাম জানিয়ে তাঁর বক্তব্য শুরু করেন। পুলিশ কমিশনার তাঁর বক্তব্যে বলেন যে, তিনি গত ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০ রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশে পুলিশ কমিশনার হিসেবে যোগদান করার পরে রাজশাহী মহানগরবাসীকে দেয়া প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী রাজশাহী মহানগরীতে প্রায় ২৭৫ টি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে এবং আগামী ২৬ মার্চ ২০২১ স্বাধীনতা দিবসে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে রাজশাহী মহানগরীকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেয়ার প্রত্যায় ব্যক্ত করেন।

আরএমপি কমিশনার তাঁর বক্তব্যে আরো বলেন যে, রাজশাহী মহানগরী প্রায় ১৭ লাখ মানুষ দরজা খোলা রেখে ঘুমাতে পারবে এখানে কোন চোর থাকবে না, মাদক থাকবে না, কোন সন্ত্রাস থাকবে না, কোন জঙ্গী থাকবে ন। রাজশাহী মহানগর হবে নিরাপত্তার নগরী, শান্তির নগরী ও গ্রীনসিটি।

তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন রাজশাহী মহানগরীর ৫০০ ছেলে-মেয়ের ডিজিটাল ডাটাবেজ করা হয়েছে এবং সাইবার ক্রাইম ইউনিট গঠন করা হয়েছে। যার সুফল ইতিমধ্যে নগরবাসী পেতে শুরু করেছে।

বিট পুলিশিং এর মাধ্যমে প্রতিটি মানুষের দোরগোড়ায় পুলিশি সেবা পৌছে দেয়া হবে বলেও তিনি তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন।

পুলিশ কমিশনার মহোদয় আরো বলেন যে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালে উন্নত দেশের যে স্বপন দেখেছেন তা বাস্তবায়নে বাংলাদেশ পুলিশ প্রশাসন এবং আইজিপি দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। আগামী ২৬ মার্চ ২০২১ রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশে hands-free পুলিশিং চালু হবে বলেও জানান। উক্ত অনুষ্ঠানে ২৫ জন মাদকাসক্ত ও মাদক ব্যবসায়ী পুলিশ কমিশনার এর নিকট আত্ম সমর্পন করেন। আত্ম সমর্পন করা মাদকাসক্ত ও মাদক ব্যবসায়ীদের মাদক সেবন ও মাদক ব্যবসা ছেড়ে স্বাভাবিক জিবনে ফিরে আসার জন্য পুলিশ কমিশনার তাদের অভিনন্দন জানান।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ হবে জনগণের আস্থার স্থল এই আশাবাদ ব্যক্ত করে এই সুন্দর আয়োজনের জন্য আয়োজকদের সহ শাহমখদুম কলেজের অধ্যক্ষ ও কাউন্সিলরবৃন্দকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

লিয়াকত রাজশাহী ব্যুরোঃ

রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সম্মেলন-২০২১ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকাল ১০ থেকে দুপুর সাড়ে ৩টা পর্যন্ত রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনার চত্ত্বরে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র লিটন বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রয়েছে গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস। এদেশের প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে ছাত্রলীগ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। ছাত্রলীগের ইতিহাস যে পড়বে, তার বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসের কোন কিছুই অজানা থাকবে না।

মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি লিটন বলেন, ২০১৫ সালে বিএনপি-জামাত, মৌলবাদী চক্র সারাদেশের মতো রাজশাহীতে আগুন সন্ত্রাস করেছিল। সে সময় রাজশাহীতে ছাত্রলীগের নেতবৃন্দ বিএনপি-জামাতের সেই আগুন সন্ত্রাস রুখতে সাহসী ভুমিকা পালন করেছিল, আমরা ছাত্রলীগকে সাথে নিয়ে আগুন সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করেছি।

তিনি আরো বলেন, ছাত্রলীগ ফিনিক্স পাখির মতো একটি সংগঠন। ছাত্রলীগকে যতবার আঘাত করা হয়, ধংস করার ষড়যন্ত্র করা হয়, ততবার আবার নতুন করে জেগে ওঠে ছাত্রলীগ, ছাত্রলীগ নতুন করে এগিয়ে যায়। ছাত্রলীগ যত সুশৃঙ্খল হবে, পরিশীলিত হবে, চাঁদাবাজ মুক্ত হবে, ছাত্রলীগ তত সামনের দিকে অগ্রসর হবে।
মেয়র লিটন বলেন,

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন ছাত্রলীগ। ছাত্রলীগের নেতৃত্ব নির্বাচনে সতর্ক থাকতে হবে। ছাত্রলীগে মাই ম্যান তৈরি করার সুযোগ নেই। যে যোগ্য তাকেই নেতা নির্বাচিত করতে হবে। কারণ আগামীতে ছাত্রলীগ থেকেই এমপি, মন্ত্রী ও মেয়র নির্বাচিত হবে, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন জায়গায় নেতৃত্ব দিবে।

সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কোন অবৈধ ও অন্যায় কাজকে প্রশয় দেয় না। ছাত্রলীগের নাম ভাঙিয়ে কেউ যদি চাঁদাবাজি বা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত হলে তাদের ছাড় দেওয়া হবে না। আগামীতে যোগ্য নেতৃত্ব নির্বাচিত করা হবে, রাজশাহী অঞ্চলের নেতৃবৃন্দকে কেন্দ্রে মূল্যায়ন করা হবে।

মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি রকি কুমার ঘোষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মোঃ ডাবলু সরকার। শোক প্রস্তাব উপস্থাপন করেন মহানগর ছাত্রলীগের সদস্য ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রপ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিভাগের প্রভাষক মো. রেজভী আহমেদ ভূইয়া।

সম্মেলনের সঞ্চালনা করেন মহানগর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান রাজিব। সম্মেলনে আরো বক্তব্য দেন ছাত্রলীগের গণশিক্ষা সম্পাদক আব্দুল্লাহ হীল বারী, রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোঃ শফিকুজ্জামান শফিক, রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মীর তৌহিদুর রহমান কিটু, রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ হাবিব খান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়া, রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মেরাজুল ইসলাম মেরাজ,

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু, রুয়েট শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি নাইম রহমান নিবিড়, রুয়েট শাখা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী মাহফুজুর রহমান তপু। সম্মেলনে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, ছাত্রলীগের পদপ্রত্যাশীরা এবং ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সম্মেলনের শুরুতে প্রধান অতিথি ও অন্যান্য অতিথিবৃন্দ জাতীয় পতাকা ও ছাত্রলীগের পতাকা উত্তোলন করেন। এরপর মঞ্চে প্রধান অতিথি ও অন্যান্য অতিথিবৃন্দকে রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

0 0

রাজশাহী ব্যুরোঃ রাজশাহী বাগমারায় দলিও প্রভাব খাটিয়ে এবং এমপি মেয়রের আত্মীয় পরিচয়ে কৃষি জমি নষ্ট করে অবৈধভাবে পুকুর খননের অভিযোগ উঠেছে এমপি ও মেয়রের জামাই পরিচয়দানকারী নয়ন অপরদিকে দলিও প্রভাব ও প্রেসক্লাবের নাম ভাঙ্গিয়ে কৃষি জমি ও উঁচা ভিটা কেটে নিজ ভাটায় মাটি পরিবহন করছে এই জাফর মাস্টার। এ যেন পুকুর খননের হিড়িক পড়েছে সম্পূর্ণ বাগমারা উপজেলা জুড়ে।

এসব ভূমিদস্যু ও ফসলি জমি নষ্টকারীদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছে। আর এসব অসাধু মৎস্য ব্যবসায়ী ও প্রভাবশালী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে হাজারো অভিযোগ দিলেও হচ্ছে না কোনো প্রতিকার। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা উপেক্ষা করে আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে জমির প্রকৃতি পরিবর্তন ও মাটি পরিবহন করছে বিভিন্ন ভাটায়।

এ বিষয়ে জাফর মাস্টারের সাথে কথা বলা হলে তিনি বলেন, আমি সকল প্রশাসনকে ম্যানেজ করে কাজ করছি আপনি যা পারেন করেন।

কৃষিজমির প্রকৃতি পরিবর্তন করে পুকুর খননের হিড়িক পড়েছে এতে যেমন আবাদি জমির পরিমাণ কমে যাচ্ছে অপরদিকে চাষিরা পরছে হুমকির মুখে। সরেজমিনে বিভিন্ন স্থানে এর সত্যতা মিলেছে। উপজেলার সিবজাইট পশ্চিম বাগমারার প্রানকেন্দ্র হাটগাঙ্গোপাড়া,আউচপাড়া,শুভডাঙ্গা, গোবিন্দপাড়া ইউনিয়ন এলাকায় জমির প্রকৃতি পরিবর্তনের দৃশ্য দেখা গেছে। কৃষিজমির প্রকৃতি পরিবর্তন করে এখন জলাশয় করা হয়েছে। জলাশয়ের চারপাশে রয়েছে উঁচু পাড়। এ ছাড়া এসব এলাকার কৃষিজমিতে খননযন্ত্র বসিয়ে এখনো পুকুর খনন করা হচ্ছে। অথচ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ রয়েছে, জমির প্রকৃতি পরিবর্তন করা যাবে না। নীতিমালা জারির পর থেকে কৃষিজমির প্রকৃতি পরিবর্তন করে এসকল এলাকায় প্রায় ২০টি পুকুর খনন করা হয়েছে এবং আরও ৬টি পুকুর খননকাজ অবাধে চলমান রয়েছে।

এসকল এলাকার অবৈধ পুকুর খননে চলমান কাজগুলো হল, আউচপাড়া ইউনিয়নে বেলঘরিয়া সোনাদীঘি বাজার সংলগ্ন ১টি এবং একই ইউনিয়নের মঙ্গলপুর সমাসপুর গ্রামের মাঝখানে ১টি এবং ঐ ইউনিয়নের মুগাইপাড়ার পার্শ্বে বগপাড়া মোড়ের নিচে ১টি ও খুদাপুর গ্রামে আরো ১টি । গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নের সালজুর রুহিয়া মাহামতপুর গ্রামে চেয়ারম্যান শ্রী বিজন কুমার এর ভাটার পার্শ্বে ১টি, শুভডাঙ্গা ইউনিয়নে মচমইল বাজারের হাটগাঙ্গোপাড়া রাস্তা সংলগ্ন ১টি। গত বছরের ১১ জুন ভূমি মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব এ টি এম আজাহারুল ইসলামের স্বাক্ষর করা নীতিমালা-সংক্রান্ত চিঠিতে বলা হয়, কৃষিজমি যতটুকু সম্ভব রক্ষা করতে হবে, যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া জমির প্রকৃতিগত কোনো পরিবর্তন আনা যাবে না। এই চিঠির অনুলিপি গত বছরের (২২ শে জুলাই) রাজশাহীর জেলা প্রশাসকের দপ্তরে পৌঁছায়।

একই সময়ে জেলা প্রশাসকের দপ্তর থেকে ওই নীতিমালা বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়ে বাগমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) চিঠির একটি অনুলিপিও পাঠানো হয়েছে বলে উভয় দপ্তরের দায়িত্বশীল দুজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন। ইউএনও কে গত ডিসেম্বর ও চলতি মাসে দেওয়া ওই সব এলাকার শতাধিক কৃষক ও স্থানীয় বাসিন্দাদের লিখিত অভিযোগ থেকে জানা গেছে, এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তিরা কৃষিজমির প্রকৃতি পরিবর্তন করছেন। অভিযোগে তাঁরা বলেছেন, প্রথমে প্রভাবশালী ব্যক্তিরা স্থানীয় কিছু লোকজনের কাছ থেকে কৃষিজমি তিন বা ১০ বছরের জন্য ইজারা নিয়ে সেখানে পুকুর খনন শুরু করেন। পরে কৌশলে ওই পুকুরের আশপাশের অন্য জমির মালিককেও তাঁদের জমি ইজারা দিতে বাধ্য করেন। এসকল এলাকার নাম প্রকাশে অনিশ্চুক অনেক কৃষক অভিযোগ করে বলেন, তাঁদের জমি প্রথমে দেননি। ইজারা নেওয়া আশপাশের জমিতে ড্রেজার দিয়ে খনন শুরু করা হয়। একপর্যায়ে বাধ্য হয়ে তাঁদের জমিও প্রভাবশালী ব্যক্তিদের পুকুর খননের জন্য দিতে হয়।

উপজেলার শুভডাঙ্গা ইউনিয়নের সালমারা বিলে পানি নিস্কাশনের নাম করে জাহাঙ্গীর আলম নামে একজন প্রভাবশালী ভেকু মেশিন দিয়ে পুকুর খনন করছে। ঐ পুকুরের পার্শ্বেই একটি ড্রামচিমনি ভাটার মালিক শফিক পুকুর খননে সার্বিক সহযোগিতায় আছেন বলে এলাকাবাসি জানান। সেখানে প্রায় ২০টি ট্রাক্টর দিয়ে বিভিন্ন ইটভাটায় মাটি বিক্রি করে প্রভাবশালীরা ক্ষমতা দেখিয়ে রাস্তায় ধুলামাটি ফেলে জনগন,মিডিয়া,প্রশাসনকে তোয়াক্কা না করে নিজ স্বার্থে ব্যাস্ত এসকল ইটভাটার মালিকারা। ঐ রাস্তায় চলাচলে পথচারিরা বলেন, ঘন কুয়াশায় ঢাঁকা এসব ধুলামাটির মধ্য দিয়েই আমাদের নিত্যদিনের যাতায়াত। শীঘ্রই এর সুব্যবস্থার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা ও পথচারিরা।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: শরীফ আহম্মেদ জানান, মন্ত্রনালয়ের নির্দেশ অনুযায়ী অবৈধ পুকুর খননে জমির শ্রেনি পরিবর্তনের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে, কোন অবৈধভাবে পুকুর খনন করা হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লিয়াকত রাজশাহী ব্যুরোঃ রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে, রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানাধীন শালবাগান এলাকার মেসার্স বন্ধন এন্টারপ্রাইজ নামীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ডিলারের অজান্তে SHOJUKAR MARKETING & DISTRIBUTION নামক একটি ভূয়া কোম্পানী বিভিন্ন প্রকারের ভেজাল কসমেটিক তৈরি করে রাজশাহী মহানগরসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় ডিলারদের মাধ্যমে বাজার জাত করছে এবং রাজশাহী সহ অন্যান্য জেলার নামি দামী মার্কেট ও শপিংমল গুলোতে উচ্চমূল্যে বিক্রয় হচ্ছে যা ব্যবহারে ক্যান্সারসহ গুরুত্বর স্বাস্থ্যের ঝুঁকি রয়েছে।

উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে ঘটনার পরপরই পুলিশ কমিশনার মোঃ আবু কালাম সিদ্দিক এর দিক নির্দেশনায় উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি), মোঃ আরেফিন জুয়েল এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে ডিবির বিশেষ একটি সোমবার বিকেলে ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে অভিযান চালিয়ে উক্ত কোম্পানীর বিপুল পরিমান ভেজাল কসমেটিক সামগ্রীসহ উদ্ধার করেন। যার আনুমানিক বাজার মূল্য-১,৮৭,৪৭৫/- টাকা। কোম্পানীর জিএম কুষ্টিয়া জেলার খোকশা থানার কমলাপুর (দক্ষিণপাড়া) গ্রামের আঃ হান্নানের ছেলে আসামী মোঃ এহেসানুল হক সোহেল (৩৬)কে ঘটনাস্থল হতে আটক করেন। এ সংক্রান্তে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন ।

লিয়াকত রাজশাহী ব্যুরোঃ আসন্ন ২৮ ফেব্রুয়ারি পবা উপজেলার উপ-নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইয়াসিন আলীকে বিজয়ী করার লক্ষ্যে নৌকা প্রতীকের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৪ টায় দারুশা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে ২নং হুজুরীপাড়া ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি লুৎফর রহমান এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী-৩ আসনের সাংসদ আয়েন উদ্দিন।

উক্ত সভায় ২নং হুজুরীপাড়া ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হালিম এর সঞ্চালনায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পবা উপজেলা আ’লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইয়াসিন আলী।

নির্বাচনী সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পবা উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আরজিয়া বেগম ও ভাইস-চেয়ারম্যান ওয়াজেদ আলী, রাজশাহী জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোঃ জাকিরুল ইসলাম সান্টু ও সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আলফোর রহমান,

নওহাটা পৌরসভা নব-নির্বাচিত মেয়র মোঃ হাফিজুর রহমান হাফিজ, হরিপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান বজলে রেজবি আল হাসান মুঞ্জিল, হরিয়ান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মফিদুল ইসলাম বাচ্চু, হুজুরীপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা,

১নং দর্শনপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ কামরুল হাসান রাজ, পবা উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোতাহার হোসেন, প্রচার সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক নজরুল ইসলাম ও সহ-দপ্তর সম্পাদক নজরুল ইসলাম, নওহাটা পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান,

পবা উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক তফিকুল ইসলাম তোফিক, পবা উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইকবাল আহমেদ, পবা উপজেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোসাররফ হোসেন নয়ন ও পবা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফরিদুল ইসলাম রাজু সহ পবা উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

লিয়াকত রাজশাহী ব্যুরোঃ গতকাল শনিবার সরকারি চাকুরীজীবি করিম (ছদ্মনাম) কে কয়েকজন বখাটে ফিটিংবাজ নারী, পুরুষ মিলে বিকাশের মাধ্যমে ১০,০০০ (দশ হাজার) টাকা চাঁদা আদায় করেন। বাদীকে নগ্ন করে ছবি ও ভিডিও চিত্র ধারণপূর্বক ইন্টারনেটে ভাইরাল করে দেয়ার হুমকি প্রদান করে ১০,০০,০০০ (দশ লক্ষ) টাকা চাঁদা দাবী করে এবং তাকে মারধর করে সাধারণ জখম করে। বাদীর লিখিত এজাহারের প্রেক্ষিতে বোয়ালিয়া মডেল থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশের এসআই, মোঃ গোলাম মোস্তফা সঙ্গীয় অফিসার এএসআই,রানা আহম্মেদ, এএসআই মোঃ নাজমুল হক, কং ১৪৯২ রনি আহম্মেদ ও রোমিও-১৫ এর সহযোগীতায় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সকাল অনুমান ০৭.০০ টার সময় বাদীর সনাক্তমতে অভিযান পরিচালনা করে মামলার ঘটনার সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত আসামী রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার উপশহর এলাকার রহিমের মেয়ে মোসাঃ সাবিনা রজনী (২৫),

শাহমখদুম থানার বড়বনগ্রাম ফুলতলার আঃ রশিদ এর ছেলে মোঃ আব্দুল গাফফার (৩০) এবং চন্দ্রিমা থানার নামোভদ্রা গ্রামের মোঃ রিয়াজ উদ্দিনের মেয়ে মোসাঃ রিয়া আক্তার পাখি (১৯)দেরকে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারকৃত আসামীদের হেফাজত হ’তে আদায়কৃত চাঁদার নগদ ৮,০০০ (আট হাজার) টাকা, ৩৫,০০০ টাকা মূল্যের ১টি স্বর্ণের আংটি এবং স্বাক্ষরিত নন-জুডিসিয়াল স্ট্যাম্প ও বাদীর নগ্ন ছবিসহ ভিডিও চিত্র ধারণকৃত মোবাইল ফোন সেট উদ্ধার করেন। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

0 0

লিয়াকত রাজশাহী ব্যুরোঃ বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন রাজশাহী বিভাগীয় আঞ্চলিক কমিটির উদ্যোগে বিভাগীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে মহানগরীর নওদাপাড়ায় রাজশাহী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাবেক নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।সম্মেলনে এতে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী।

আরো বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক শিমুল বিশ্বাস ও জয়পুরহাট জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক।

সভাপতিত্ব করেন ফেডারেশনের রাজশাহী বিভাগীয় আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি আবদুল লতিফ মণ্ডল। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মাহাতাব হোসেন চৌধুরী।

0 0

লিয়াকত রাজশাহী ব্যুরোঃ মুজিববর্ষের অঙ্গীকার ঘরে ঘরে গ্রন্থাগার এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) কেন্দ্রীয় লাইব্রেরীর উদ্যোগে যথাযোগ্য মযার্দায় জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস ২০২১ পালিত হয়। দিবসটি উপলক্ষে আজ ( শুক্রবার) সকাল ১১ঃ০০ টায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) কেন্দ্রীয় লাইব্রেরীতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত আলোচনা সভায় রুয়েটের গবেষণা ও সম্প্রসারণ পরিচালক এবং লাইব্রেরী কমিটির সভাপতি প্রফেসর ড. মো. ফারুক হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন রুয়েটের মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. রফিকুল ইসলাম সেখ।

এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রুয়েটের ইসিই অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মো. জহুরুল ইসলাম সরকার, রেজিস্ট্রার( ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. মো. সেলিম হোসেন, ইসিই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মো. শামীম আনোয়ার, কেন্দ্রীয় কম্পিউটার সেন্টারের প্রশাসক ড. মো. আলী হোসেন, অফিসার্স এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মুফতি মাহমুদ রনি।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রুয়েটের গণিত বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মো. কামরুল হাসান, এমএসই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ শাহেদ হাসান খান তুষার, আইসিটি সেলের ইনচার্জ প্রফেসর ড. মো. আল মামুন, ছাত্রকল্যাণ উপপরিচালক মো. মামুনুর রশীদ, কম্পট্রোলার মো. নাজিমউদ্দিন, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তৌহিদ আরিফ খান চৌধুরী , চীফ মেডিকেল অফিসার ডা. মো. মকসেদ আলী সহ প্রমুখ।

সভাটি সঞ্চালনা করেন রুয়েটের লাইব্রেরিয়ান (ভারপ্রাপ্ত) মো. মাহাবুবুল আলম । অনুষ্ঠানে রুয়েটের মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. রফিকুল ইসলাম সেখ রুয়েটের লাইব্রেরিয়ান (ভারপ্রাপ্ত) মো. মাহাবুবুল আলম এর মাধ্যমে কেন্দ্রীয় লাইব্রেরীকে বঙ্গবন্ধুর ও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত বেশ কিছু বই উপহার দেন।

লিয়াকত রাজশাহী ব্যুরোঃ চলতি মাসের ২৮ তারিখ রাজশাহীর পবা উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলী, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি থেকে মনোনীত পবা থানা ছাত্রদলের সাবেক আহবায়ক, নওহাটা পৌর বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মামুনুর সরকার জেড, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি থেকে এস.এম. আশরাফুল হক ও বাংলাদেশ মুসলিম লীগ থেকে আফজাল হোসেন মনোনয়ন জমা দেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার রাজশাহী জেলা নির্বাচন অফিসে প্রার্থীতা যাচাই বাছাই করা হয়। এতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) এর মনোনীত প্রার্থীর মামলার তথ্য গোপন করার অভিযোগে প্রার্থীতা বাতিল করা হয়। রাজশাহী জেলা নির্বাচন অফিসার সাইফুল ইসলাম এই প্রার্থীতা বাতিল করেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রার্থী মামুনুর সরকার জেড বলেন, নওহাটা পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে নির্বাচন করার জন্য মনোনয়নপত্রের সঙ্গে একই রকম নথি তিনি দাখিল করেন। সেখানে যাচাই বাছাই করে পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নওহাটা পৌর নির্বাচন রিটার্নিং অফিসার শিমুল আকতার তাঁর প্রার্থীতা বৈধ ঘোষনা করেন। পরে দলের প্রতি আনুগত্য দেখিয়ে জেড তাঁর প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেন।
তিনি আরো বলেন, জেলা রিটার্নিং অফিসার যে মামলার কথা বলে তাঁর প্রার্থীতা বাতিল করেছেন তা ২০১৮ সালে নিস্পত্তি হয়ে গেছে। তবে মনোনয়ন পত্রের সঙ্গে এই তথ্য তিনি ভুলবশত সংযুক্ত করেন নি। এ নিয়ে আগামী রোববার রাজশাহী জেলা প্রশাসক বরাবরে আপিল করবেন বলে জানান জেড।