Home খেলাধুলা

0 0

অনেক দিন ধরেই চলছে জল্পনা-কল্পনা। গুঞ্জনের পালে এবার লাগল আরেকটু হাওয়া। বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করতে চাচ্ছেন না লিওনেল মেসি। কাতালানদের নাকি স্রেফ প্রত্যাখ্যান করে দিয়েছেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। আজ এক প্রতিবেদনে এমনটাই দাবি করল স্প্যানিশ রেডিও কাদেনা সেরে।

বার্সেলোনার সঙ্গে মেসির বর্তমান চুক্তির মেয়াদ আছে আগামী মৌসুম পর্যন্ত। স্প্যানিশ জায়ান্টরা স্বপ্ন দেখছেন ন্যু ক্যাম্প থেকেই বুট জোড়া তুলে রাখবেন অধিনায়ক। যদিও তাদের ভাবনার সঙ্গে নাকি একমত নন মেসি। এনিয়ে সম্প্রতি মেসি ও তার বাবার সঙ্গে কথা হয়েছে বার্সা পরিচলাকদের। যেখানে তাদের হতাশ করেছেন মেসি।

স্প্যানিশ মিডিয়াটির দাবি, চুক্তি শেষেই বার্সা ছাড়তে প্রস্তুত মেসি। এর নেপথ্য কারণ ক্লাবকর্তাদের সঙ্গে তার মন কষাকষি। সাম্প্রতিক বছরে বার্সা এমনকিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছে যেখানে নাখোশ হয়েছেন মেসি। নেইমারকে ছেড়ে দেওয়া, অ্যান্তনিও গ্রিজম্যানকে আনা, খেলোয়াড়দের নিবেদন নিয়ে ক্রীড়া পরিচালক এরিক আবিদালের অভিযোগ নিয়েই মূলত চটে আছেন মেসি।

করোনাভাইরাস বিরতি পরবর্তী মাঠে ফিরেছে বার্সেলোনা। কিন্তু কাতালানদের প্রত্যাবর্তন ঠিক সুখের হয়নি। নিজেদের হারিয়ে খুঁজতে থাকা বার্সা লা লিগার শ্রেষ্ঠত্ব হারানোর শঙ্কায় পড়েছে। সবশেষ চার ম্যাচের তিনটিতে ড্র করে এই বেহাল দশা হয়েছে বার্সার। দলের এমন নাজুক পারফরম্যান্সের প্রভাব পড়েছে মেসির ওপর।

বেশ কয়েকদিন ধরে অচেনা মেসিকে দেখা যাচ্ছে। প্রায়শই নাকি তার মেজাজ খিটখিটে হয়ে আছে। মাঠে সতীর্থদের সঙ্গে শারীরিক ভাষায় মিলছে নেতিবাচক ছাপ। অনুশীলনে দুজন খেলোয়াড়ের সঙ্গে আবার জড়িয়েছেন বিবাদে। এমনকি বার্সার সহকারী কোচের সঙ্গেও ঝামেলা তৈরি হয়েছে মেসির। সবমিলিয়ে পুরনো গুঞ্জন যেন নতুন করে পাখা মেলল।

0 60

গত বছর আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচের মীমাংসা হয়নি ১০০ ওভারে। মহানাটকীয় ফাইনাল গড়ায় সুপার ওভারে। সেখানেও ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের অবিশ্বাস্য সমতা। শেষ পর্যন্ত বেশি বাউন্ডারি হাঁকানোর উদ্ভট নিয়মে চ্যাম্পিয়ন হয় স্বাগতিক ইংল্যান্ড। রানার্সআপ হয় সফরকারী নিউজিল্যান্ড।

এনিয়ে বিতর্কের ঝড় বয়ে গেছে। সুপার ওভার, ওভার থ্রো নিয়ম পাল্টানোর দাবিও ওঠে। আইসিসি ও এমসিসি তা আমলে নিয়ে কিছু সংশোধনী এনেছে। তবে সবকিছু পাল্টালেও লর্ডসের ফাইনালের ফলটা আর পাল্টানো সম্ভব নয়। থ্রিলার ম্যাচের এক বছর কেটে গেছে। কিন্তু সেই ফলটা এখনো মেনে নিতে পারছেন না কিউই ব্যাটসম্যান রস টেলর।

তার মতে ম্যাচ টাই হলে দুই দলকে ট্রফি ভাগাভাগি করে দেওয়া উচিত। বিশ্বকাপ তো বটেই, ওয়ানডে ক্রিকেটের সুপার ওভারেরই কোনো দরকার দেখছেন না অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। শুক্রবার একটি ক্রিকেট ওয়েবসাইটকে এক সাক্ষাৎকারে টেলর বলেছেন, ‘ওয়ানডে ম্যাচ অনেক সময় নিয়ে চলে। ম্যাচে টাই হলে অন্তত আমার কোনো সমস্যা নেই।’

সাক্ষাৎকারে টেলরের একটা কথায় অনেকের বিস্ময়কেই আকাশ স্পর্শ করিয়েছে। লর্ডসের ফাইনালে যে সুপার ওভার আছে সেটা তিনি জানতেনই না। তিনি বলেছেন, ‘ফাইনালে আম্পায়ারদের আমি বলেছিলাম ভালো একটা ম্যাচ হয়েছে। তখন জানতামই না যে, ম্যাচে সুপার ওভার আছে। টাই মানে টাই। দুই দল ১০০ ওভার খেলার পরও যদি রান সমান থাকে তাহলে, টাই হওয়াটা খুব একটা খারাপ নয়।’

অবশ্য একদিনের ক্রিকেটে সুপার ওভার উঠিয়ে দেওয়ার পক্ষে মত দিলেও টি-টোয়েন্টি সংস্করণে ভিন্নমত টেলরের। তিনি বলেছেন, ‘‘টি-টোয়েন্টি সংস্করণে খেলা চালিয়ে যাওয়া উচিত। অনেকটা ফুটবল কিংবা অন্য খেলার মতো ম্যাচের নিষ্পত্তি করা উচিত। কিন্তু ওয়ানডে ক্রিকেটে সুপার ওভারের প্রয়োজনীয়তা দেখছি না। আমার মতে যৌথ চ্যাম্পিয়ন করা যায়।’

নিউজিল্যান্ডের সুপার ওভার ভাগ্য ভালো নয়। এ পর্যন্ত সীমিত ওভারের আটটি ম্যাচের সাতটিতেই হেরেছে কিউইরা। ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে সুপার ওভার বাদ দিলে নিউজিল্যান্ডকে অন্তত দুর্ভাগ্যের মুখে হয়তো পড়তে হবে না! এখন দেখার বিষয়, টেলরের দাবি আইসিসি আমলে নেয় কিনা।

বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় সেলিব্রেটিদের একজন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ খান আফ্রিদি করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। করোনার উপসর্গগুলো শরীর থেকে সম্পূর্ণ বিদায় নিয়েছে। গতকাল লাইভে এসে তিনি নিজেই এই তথ্য দেন। তবে দ্বিতীয় দফায় এখনো তার নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি।

শহীদ আফ্রিদি বলেন, প্রথম দুই দিন ছিল ভীষণ কঠিন একটা সময়। শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল খুব, এর মধ্যে একা বন্দি থেকে নিজেকে অসহায় মনে হচ্ছিল। এরপর নিজেকে বোঝানোর চেষ্টা করলাম, মন শক্ত করলাম। ইনশাআল্লাহ, আমি এখন সুস্থ।

বিশ্বের সব করোনা আক্রান্ত রোগীর প্রতি ইতিবাচক বার্তা দিয়েছেন শহীদ আফ্রিদি। তিনি বলেন, বিষয়টাকে খুব বেশি আমলে নেওয়ার প্রয়োজন নেই। নিয়মগুলো সঠিকভাবে পালন করার পাশাপাশি মনোবল অটুট রাখুন। কোনো কোভিড রোগী যদি নিজে থেকে হেরে না যায় তাহলে এই ভাইরাস তাকে হারানোর ক্ষমতা রাখে না।মাত্র ৫ দিনেই করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার বিষয়টাও ব্যাখ্যা করলেন পাকিস্তানের সাবেক এই অধিনায়ক। তিনি বলেন, ঘাবড়ে যাওয়ার কারণেই হয়তো আমরা বিষয়টাকে বড় করে দেখি। নিজেকে পরিবারের অন্যদের থেকে সম্পূর্ণ পৃথক করে কিছু নিয়ম পালন করতে হবে। আমি দিনে কয়েকবার করে কালোজিরা খেয়েছি। সঙ্গে লং, গরম পানি, চা তো ছিলই। এছাড়া পুষ্টিকর খাবার খাওয়া বাড়িয়ে দিয়েছি।

0 61

রিয়াল মাদ্রিদের অনেক দিনের স্বপ্ন কিলিয়ান এমবাপ্পেকে দলে টানার। বরাবরই তাদের হতাশ হতে হয়েছে। এই তো কদিন আগেও প্যারিস সেন্ট জার্মেইর (পিএসজি) ক্রীড়া পরিচালক লিওনার্দো ঘোষণা দিয়েছেন, নেইমার ও এমবাপ্পে বিক্রির জন্য নয়। কারণ দুজনের সঙ্গেই ক্লাবের চুক্তির মেয়াদ আছে আরো দুই বছরের।

রিয়াল মাদ্রিদ অবশ্য আশা ছাড়ছে না এমবাপ্পের জন্য। ফরাসি সেনসেশনকে দলে টানার লড়াইয়ে রিয়ালের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠছেন তাদেরই কিংবদিন্ত ফুটবলার রোনালদো নাজারিও। ব্রাজিলের সাবেক এই স্ট্রাইকার স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল ভায়াদোলিদের মালিকানার অধিকাংশ শেয়ার কিনে নিয়েছেন। এখন তিনি স্বপ্ন দেখছেন এমবাপ্পেকে কেনার।

রোনালদোর সাধ আছে, কিন্তু সাধ্য নেই। এটাও জানিয়ে রাখলেন তিনি। বৃহস্পতিবার পৃষ্ঠপোষক স্যান্টেন্ডার ব্যাংকের সঙ্গে চুক্তি পর্ব অনুষ্ঠানে ব্রাজিল কিংবদন্তি বলেছেন, ‘আমি এমবাপ্পেকে কিনতাম (যদি ভায়াদলিদের কাছে রিয়াল মাদ্রিদের মতো অর্থ থাকতো)। একমাত্র ও-ই আমার খেলোয়াড়ি সময়টার কথা মনে করিয়ে দেয়।’

শুধু এমবাপ্পে নয়, বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বিস্ময়বালক আর্লিং হাল্যান্ডের পারফরম্যান্সেও মুগ্ধ রোনালদো। তিনি বলেছেন, ‘হাল্যান্ড দুর্দান্ত একজন খেলোয়াড়। ও এখনো অনেক তরুণ এবং দারুণ একটা বছর কাটাচ্ছে। অনেক গোলও করেছে। দেখা যাক ও কোথায় শেষ করে।’

0 59

করোনাভাইরাস বিরতি পরবর্তী দারুণ সময় কাটছে বার্সেলোনার। স্প্যানিশ লা লিগায় দুই ম্যাচ খেলে দুটিতেই জয় তুলে নিয়েছে কাতালান ক্লাবটি। আজ শুক্রবার লিগের ৩০তম রাউন্ডে সেভিয়ার মুখোমুখি হবে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু মাঠে নামার আগেই জোড়া ধাক্কা খেতে হলো তাদের। ইনজুরিতে পড়েছেন সার্জি রবার্তো ও ফ্রেঙ্কি ডি জং।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে দুই ফুটবলারের ইনজুরির খবরটি নিশ্চিত করেছে বার্সা। তারা জানিয়েছে, পাঁজরে চোট পেয়েছেন রবার্তো। ডাচ মিডফিল্ডার ডি জং ডান পায়ের ইনজুরিতে পড়েছেন। দুজনেই চোটের ঝুঁকিতে ছিলেন। তাই দুজনকে অনুশীলন করাননি বার্সা কোচ কিকে সেতিয়েন।

বার্সার সবশেষ দুটি ম্যাচেই খেলেছেন রবার্তো ও ডি জং। সেভিয়া ম্যাচেও দুজনকে প্রয়োজন ছিল কাতালানদের। কারণ এই ম্যাচে অগ্নিপরীক্ষা দিতে হবে বার্সাকে। এর কারণ পয়েন্ট তালিকার তিনে আছে ফর্মে থাকা সেভিয়া। দুইয়ে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান কমাতে মরিয়া হয়েই মাঠে নামবে সেভিয়া। এই ম্যাচটা আবার তাদের ঘরের মাঠে।

রবার্তো-ডি জংয়ের ইনজুরি কতটা গুরুতর সেটা জানায়নি বার্সা। আপাতত রবার্তোর পরিবর্তে একাদশে ঢুকে যেতে পারেন নেলসন সেমেদো এবং ডি জংয়ের বিকল্প আছেন কয়েকজনই। আর্তুরো ভিদাল, সার্জি বুসকেটস, ইভান রাকিটিচ কিংবা আর্থার মেলো- এদের একজনকে ডাচ তারকার জায়গায় দেখা যেতে পারে।

বার্সা কোচ কিকে সেতিয়েন অবশ্য হতাশ হচ্ছেন না। জোড়া ধাক্কার পরও নির্ভার থাকলেন তিনি, ‘ফ্রেঙ্কি (ডি জং) দারুণ একজন ফুটবলার। এই বাচ্চা ছেলেটা আমাদের অনেককিছু দিয়েছে। কিন্তু ওর পরিবর্তিত হিসেবে আমাদের কয়েকজন ফুটবলারই আছে। আশা করছি ও শিগগিরই মাঠে ফিরে আসবে।’

বার্সার ইনজুরির তালিকায় আরো কয়েকজন আছেন। উসমান ডেম্বেলে, স্যামুয়েল উমতিতি দীর্ঘদিন ধরেই মাঠের বাইরে আছেন। এর মধ্যে গুঞ্জন বেরিয়েছে আগস্টে মাঠে ফিরবেন ডেম্বেলে। যদিও বার্সা কোচ জানিয়ে দিয়েছেন, এই মৌসুমে আর ফেরা হচ্ছে না ফরাসি ফরওয়ার্ডের।

প্রসঙ্গত, লা লিগায় ২৯ ম্যাচ খেলে ৬৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে বার্সেলোনা। এক ম্যাচ কম খেলা রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে তাদের ব্যবধান পাঁচ পয়েন্টের। ৫১ পয়েন্ট নিয়ে যথারীতি তিনে আছে সেভিয়া।

0 65

আইসিসির বর্তমান সভাপতি শশাঙ্ক মনোহরের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আর কিছুদিন পরই। এরপর কে হবেন পরবর্তী সভাপতি? এ নিয়ে প্রার্থীদের থেকে সমালোচকদের সংখ্যাই বেশি। যে যার মতো বেছে নিচ্ছেন বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থার ভবিষ্যত সভাপতিকে। এ তালিকায় এগিয়ে ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। অনেকেই বলছেন, এ পদের জন্য গাঙ্গুলীই যোগ্য। দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ক্রিকেটার গ্রায়েম স্মিথের সমর্থনটাও গেছে কলকাতা যুবরাজের ঘরে। সাবেক ব্যাটসম্যান চাইছেন, এই ভারতীয়ই হোক মনোহরের স্থলাভিষিক্ত।

গুঞ্জন উঠেছিল পিসিবির চেয়ারম্যান এহসান মানিকে নিয়েও। কিন্তু এবার সে গুঞ্জন উড়িয়ে দিলেন পাকিস্তান ক্রিকেটের কর্তা। জানালেন পাকিস্তান ক্রিকেটের সাথেই থাকতে চান তিনি, ‘আমি নির্বাচন করছি না। এটাই সত্যি।সংবাদমাধ্যমে আগেও বলেছিলাম। এই খবরটি এসেছে ভারত থেকে। আমাকে বেশ কয়েক জায়গা থেকে বলা হয়েছে নির্বাচনের ব্যাপারে, আমি আগ্রহ দেখাইনি। আইসিসিতে আমার আগ্রহ শুধু পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গেই সম্পৃক্ত। আমাকে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ফোন দিয়েছিলেন। আর আমি পাকিস্তান ক্রিকেটের কথা চিন্তা করেই কাজ করছি।’

এহসান মানি নির্বাচনে না লড়লে আর কোনো বাধা থাকার কথা না গাঙ্গুলীর জন্য। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হয়ে যাবেন আইসসিসি প্রেসিডেন্ট। তবে এ নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেননি সাবেক ক্রিকেটার। আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি বিসিসিআই থেকেও। তবে সংবাধমাধ্যমে এমন খবর ঠিকই চাউর হয়েছে। সবকিছু মিলিয়ে ধরেই নেয়া যাচ্ছে সাবেক এ ব্যাটসম্যানই হচ্ছেন আইসিসির পরবর্তী সভাপতি।

আপাতত দুঃসময় যাচ্ছে ক্রিকেটে। তিন মাসেরও বেশি সময় আগে মাঠে গড়িয়েছিল ক্রিকেট। মহামারির কারণে তা বন্ধ হয়ে আছে। সিদ্ধান্ত আসছে না টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়েও। এ নিয়ে সাহস দেখাচ্ছে না আয়োজকরা। কারণ টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর জন্য জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ নিশ্চিত করা খুবই কঠিন তাদের জন্য। তাই ধরেই নেয়া যাচ্ছে কী আছে আসন্ন বিশ্বকাপের ভাগ্যে। এ জন্য ঝুলে আছে আইপিএল। এ নিয়ে আইসিসির সাথে ভেতরে ভেতরে মনোমালিন্য চলছে বিসিসিআইয়ের। এমন বাজে পরিস্থিতিতে গাঙ্গুলী বিশ্ব ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থার সভাপতি হলে কী করতে পারেন- তাই এখন দেখার বিষয়।

test 1