Home খুলনা

0 0

ডেক্স:নড়াইলে “আমাদের চেঞ্জমেকার কিশোর-কিশোরী ক্লাব”
নারী নির্যাতন ও ইভটিজিং প্রতিরোধ, প্রজনন স্বাস্থ্য শিক্ষা,বাল্যবিবাহ নিরোধ, মাদক মুক্ত সমাজ গঠন ও কোভিড -১৯ প্রতিরোধ বিষয়ক সচেতনতা মূলক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

“আমাদের চেঞ্জমেকার কিশোর-কিশোরী ক্লাব ” নড়াইল সদন উপজেলা কমিটির সদস্যদের নিয়ে এই প্রশিক্ষণ কর্মশালা আয়োজন করে নড়াইল জেলা প্রশাসন ও মহিলা বিশয়ক অধিদপ্তর।
১৮ নভেম্বর বুধবার বিকাল চার টায় জেলা প্রশাসক সন্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক আনজুমান আরার সভাপতিত্বে র্ভাসুয়াল মিডিয়ায় প্রধান অতিথির দিক র্নিদেশনা মুলক বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় কমিশনার,খুলনা, ড. মু আনোয়ার হোসেন হাওলাদার। অনুষ্ঠানে উপস্হিত থেকে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিভিল সার্জন ডা:মো আব্দুল মোমেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো ইয়ারুল ইসলাম, জেলা শিক্ষা অফিসার এসএম সাইয়েদুর রহমান,সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সালমা সেলিম।

এ ছাড়া বক্তব্য রাখেন নিরাপদ সড়ক ও রেলপথ বাস্তবায়ন পরিষদ (নিসরাপ) চেয়ারম্যান ও ওয়েসিস ইয়ুথ সংগঠনের উপদেষ্টা সেযদ খায়রুল আলম, নড়াইল জেলা মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ইন্সেপেক্টর বিদ্যুত বিহারী নাগ,আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেনে উপ-পরিচালক মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর মো আব্দুর রশিদ।
অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন লোহাগড়া উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মৌসুমি রানী মজুমদার।

অনুষ্ঠানে নিরাপদ সড়ক ও রেলপথ বাস্তবায়ন পরিষদ নিসরাপ,লোহাগড়া থেকে ওয়েসিস ইয়ুথ সামাজিক যুব সংগঠনের সদস্য এবং জেলার বেশ কয়েকটা কিশোর-কিশোরী ক্লাবের শতাধিক সদস্য অংশগ্রহন করে।

0 0

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃঝিনাইদহের মহেশপুরে ট্রাক ও মটর সাইকেলের মুখো-মুখি সংঘর্ষে মটর সাইকেল চালক ইমন (২০) নিহত হয়েছে। এসময় মটর সাইকেল আরোহী রিপন (৩০) নামে একজন আহত হয়েছে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ভালাইপুর-খালিশপুর সড়কের বালির গর্ত নামক স্থানে ট্রাক ও মটর সাইকেলের মুখো-মুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী তাদেরকে উদ্ধার করে মহেশপুর হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইমন তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

নিহত ইমন মহেশপুর উপজেলার বামনগাছী (বেলেমাঠ) গ্রামের মতিয়ার রহমান মতির ছেলে ও আহত রিপন একই গ্রামের আবুল হসেনের ছেলে। এ ব্যাপারে মহেশপুর থানার ওসি সাইফুল ইসলাম জানান,

ভালাইপুর-খালিশপুর সড়কে ট্রাক ও মটর সাইকেলের মুখো মুখি সংঘর্ষে ১জন নিহত ও ১জন আহত হয়েছে। ঘাতক ট্রাকটি পালিয়ে গেছে। মরদেহ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

0 0

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃআদালতের নির্দেশে দেশের প্রথম তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) জনপ্রতিনিধি ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার আলোচিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাদিয়া আক্তার পিংকীকে প্রধান আসামি করে ৬ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা রেকর্ড করেছে কোটচাঁদপুর থানা। মামলাটি দায়ের করেছেন আরেক তৃতীয় লিঙ্গ স¤প্রদায়ের বর্ষা মীর।

আসামিরা সবাই তৃতীয় লিঙ্গ স¤প্রদায়ের মানুষ। প্রায় ৫মাস আগে মারা যাওয়া লাবলী ওরফে আক্তারুল (৩৫) নামের আরেক তৃতীয় লিঙ্গের একজন মারা যাওয়া ঘটনায় হত্যার অভিযোগ তোলেন ঝিনাইদহের সদর থানার চাকলা এলাকার (হিজড়া) বর্ষা মীর। গত ১১ নভেম্বর ঝিনাইদহের বিজ্ঞ জুডিসিয়াল আমলী আদালতে লাবলী ওরফে আক্তারুলকে অপহরণের পর হত্যা করা হয়েছে এই মর্মে তিনি অভিযোগ করেন।

আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে কোটচাঁদপুর থানাকে মামলাটি নথি ভূক্ত করার নির্দেশ দিলে কোটচাঁদপুর থানা ১৭ নভেম্বর সন্ধ্যায় মামলাটি নথি ভূক্ত করেন। কোটচাঁদপুর থানার মামলা নং- ৫, ধারা- ৩৬৪,৩০২,৩৪।

এর আগে আদালতে অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে গত ১৩ নভেম্বর একটি রিপোর্ট কালের কণ্ঠে প্রকাশিত হয়। কোটচাঁদপুর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাদিয়া আক্তার পিংকী-ই হচ্ছেন তৃতীয় লিঙ্গ স¤প্রদায়ের মধ্যে দেশের সর্ব প্রথম একজন নির্বাচিত জন প্রতিনিধি।

মামলার বাদী বর্ষা মীর অভিযোগ পত্রে বলেন, এলাকার ভাগাভাগিকে কেন্দ্র করে গত ৭জুন কোটচাঁদপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাদিয়া আক্তার পিংকী ও তার ৫জন সহোযাগী হিজড়া লাবলী ওরফে আক্তারুলকে কোটচাঁদপুর উপজেলার পিছনে তার ভাড়া বাসা থেকে করোনা হয়েছে প্রচার করে মুখ বেঁধে এ্যাম্বুলেন্সে তুলে নিয়ে যায়।

পরবর্তীতে হিজড়া লাবলী ওরফে আক্তারুলকে দুই হাতের রগ কেটে গলায় ফাঁস দিয়ে তারা হত্যার পর চুয়াডাঙ্গা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে ডাক্তার তাকে মৃত বলে ঘোষণা করলে মৃত লাবলী ওরফে আক্তারুলের গ্রামের বাড়ী চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনা থানার নাস্তিপুর কবর স্থানে তাকে মাটি চাপা দেয়া হয়। মামলার বাদী বর্ষা মীর আরো অভিযোগ করেন, মৃত লাবলী ওরফে আক্তারুল একজন পূরুষ ছিলেন। তার স্ত্রী ও দুটি সন্তান রয়েছে।

৬ বছর আগে সাদিয়া আক্তার পিংকী তাকে ফুসলিয়ে অপারেশনের মাধ্যমে হিজড়া বানান। সেই থেকে সে কোটচাঁদপুর বাসা ভাড়া নিয়ে হিজড়াদের সাথে চলাফেরা করে জীবন ধারণ করে আসছিলো। প্রায় ১ বছর ধরে এলাকা ভাগাভাগি নিয়ে পিংকীর সাথে লাবনী ওরফে আক্তারুলে সাথে মত বিরোধ দেখা দেয়। যে কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে।

এদিকে কোটচাঁদপুর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তৃতীয় লিঙ্গের (হিজরা) সাদিয়া আক্তার পিংকী এ প্রতিবেদককে বলেন- এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ঝিনাইদহের সদর থানার চাকলা এলাকার বর্ষা হিজড়া এলাকার বিভিন্ন হিজড়ার নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে দাবিয়ে রাখতো। যেহেতু আমি একজন তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ হলেও আমি একজন নির্বাচিত জন প্রতিনিধি।

গত উপজেলা নির্বাচনের আগে আমি কথা দিয়ে ছিলাম সাধারণ মানুষের পাশাপাশি আমি তৃতীয় লিঙ্গ স¤প্রদায়দের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে কাজ করবো। সে লক্ষে হিজড়াদের মধ্যে এ আধিপত্যের দ্ব›দ্ব নিরশনে আমি বেশ কয়েক বার উদ্যোগ নিয়েছি। বিষয়টি নিয়ে পুলিশ প্রশাসনের সাথেও আমি বলেছি। কিন্তু বর্ষা হিজড়া বসতে চায়নি বা বসেনি।

আমি সব সময় নির্যাতিতদের পাশে আছি। যে কারণে বর্ষা হিজড়া মেনে নিতে না পেরে আমাকে দূর্বল করতে সে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। তিনি দাবী করেন হার্ডের সমস্যা জনিত কারণে লাবনী ওরফে আক্তারুলের চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু তার হয়েছে। যার সার্টিফিকেট সে সময় লাশের সাথে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দিয়ে দেয়।

তিনি এই মিথ্যা মামলার প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, প্রসাশনের উচিত হবে তদন্ত করে মামলা মিথ্যা প্রমানিত হলে তারও উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়া। পিংকী বলেন আমি যতটুকু জেনেছি তা হলো, লাবনি ওরফে আক্তারুল ওই সময় চরম অসুস্থ হয়ে পড়লে কয়েক জন হিজড়া তাকে মাইক্রোতে করে আক্তারুলের নিজ জেলা চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

দর্শনা পারকৃষ্ণপুর-মদনপুর ইউনিয়নের মেম্বর আশিক ইকবাল জানান, ওই সময় করোনার ভয়ে লাশবাহী এ্যাম্বুলেন্স গ্রামে ডুকতে দিতে বাঁধা প্রদান করে গ্রামবাসী। পরে ওই এলাকার পুলিশে সহযোগীতায় এবং লাশের সাথে আসা হাসপাতালের দেয়া সার্টিফিকেট দেখিয়ে লাশবাহী গাড়ী গ্রামে ঢোকে।

লাশের সাথে আসা সার্টিফিকেটে বলা হয়েছে আক্তারুল হার্ড এ্যাটাকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। পরে তার নিকটাত্মীয়রা আক্তারুলকে গোছল দিয়ে ছিলো এবং তারাই তাকে দাফন করে ছিলো। তাদের কাছ থেকেও হত্যার এমন কোন আলামতের কথা আমরা শুনিনি।

তিনি বলেন, তারপরও সে সময় মৃত আক্তারুলের বাড়ি লকডাইন করে দেয়া হয়। আমরা ওই পরিবারের খাবারের ব্যবস্থা করেছি। হঠাৎ করে তার হত্যার মামলার কথা শুনে তিনি অবাক হয়েছেন বলে জানান।

বিষয়টি নিয়ে কোটচাঁদপুর থানার এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইমরান আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি এ প্রতিবেদকে বলেন- সবে মাত্র মামলা রেকর্ড হয়েছে।

দুই এক দিনের মধ্যে কবর থেকে লাশ তোলার জন্য আদালতে আবেদন করবো। তার পর প্রযোজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃদৈনিক নবচিত্র পত্রিকার বার্তা প্রধান জেলার সিনিয়র সাংবাদিক আসিফ কাজল ও দৈনিক যুগান্তরের কালীগঞ্জ প্রতিনিধি শাহরিয়ার রহমান সোহাগসহ তিনজনের নামে ৫০০/৫০১ ধারায় অভিযোগ দিয়েছেন আব্দুস সালাম ও আজির উদ্দীন নামে ব্যাংকের দুই কর্মচারী। এই দুই কর্মচারী স¤প্রতি টাকা চুরির দায়ে সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন।

অভিযোগপত্রে প্রধান আসামী করা হয়েছে কালীগঞ্জ অগ্রনী ব্যাংকের ব্যবস্থাপক মোঃ নাজমুস সাদাতকে। সোমবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী কালীগঞ্জ আদালতের বিজ্ঞ বিচারকের আদালতে সাময়িক বরখাস্তকৃত আব্দুস সালাম ও আজির উদ্দীন পৃথক ভাবে অভিযোগ দুইটি দায়ের করেন।

বিজ্ঞ আদালত অভিযোগটি তদন্ত করে ২০২১ সালের ২১ জানুয়ারী কালীগঞ্জ থানার ওসিকে প্রতিবেদন দাখিলের নিদের্শ দিয়েছেন। বাদী আব্দুস সালাম ও আজির উদ্দীন পৃথক অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেছেন প্রধান আসামী তার অধীনস্ত কর্মকর্তা কর্মচারীদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন। প্রতিবাদ করায় দুই মামলার বাদীর সঙ্গে প্রধান আসামী ব্যাংক ম্যানেজারের মতনৈক্য হয়।

এরপর ১ নং আসামী অপর আসামীদের সঙ্গে ষড়যন্ত্র করে ব্যাংকের কর্মচারী প্রবিধানমালা-২০০৮ বিধি উপেক্ষা করে বাদী ও তার পরিবারের ভাবমুর্তি নষ্টের জন্য অপপ্রচারের অংশ হিসেবে গত ২৭ ও ২৮ অক্টোবর “কালীগঞ্জ অগ্রনী ব্যংকের দুই কোটি টাকা আত্মসাৎ ম্যানেজারসহ দুই কর্মকর্তা বরখাস্ত” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করেন।

এতে ১০ লাখ টাকা করে দুই বাদীর নাকি ২০ লাখ টাকা সম্মানহানী ঘটেছে বলে দাবী করা হয়। এদিকে অগ্রনী ব্যাংক ঝিনাইদহ জোনাল অফিস থেকে তথ্য নিয়ে জানা গেছে, মামলা দায়েরকারী কালীগঞ্জ অগ্রনী ব্যাংকের দুই কর্মচারী আব্দুস সালাম ও আজির উদ্দীন ব্যাংক থেকে ভুয়া কৃষক সাজিয়ে লাখ লাখ টাকা লুট করেছেন। তদন্ত শুরুর আগে ও পরে তারা বিভিন্ন সময় ২৫ লাখ টাকা জমাও দিয়েছেন।

প্রথমিক ভাবে সত্যতা প্রমানিক হওয়ায় তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। ঝিনাইদহ জোনাল অফিস ও ঢাকা অফিসের তদন্ত চলমান রয়েছে। কালীগঞ্জ অগ্রনী ব্যাংকের ম্যানেজার নাজমুস সাদাত জানান, প্রতিদিন সাময়িক বরখাস্তুকৃদদের বিরুদ্ধে নতুন নতুন অসঙ্গতি ও দুর্নীতির তথ্য পাচ্ছে তদন্ত দল।

এদিকে দুই সাংবাদিকের নামে মিথ্যা ও হয়রানীমুলক অভিযোগ দাখিল করায় সারা জেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের মধ্যে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। ঝিনাইদহ, কালীগঞ্জ, শৈলকুপা, হরিণাকুন্ডু, মহেশপুর ও কোটচাঁদপুরে কর্মরত সাংবাদিক, প্রেসক্লাব ও রিপোর্টার ইউনিটের সদস্যরা এই মিথ্যা এবং হয়রানীমুলক অভিযোগ অনতিবিলম্বে প্রত্যাহারের আহবান জানিয়েছেন।

নইলে তারা কঠোর আন্দোলনের হুসিয়ারী দিয়েছেন।

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃআলোচিত ও কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী চুয়াডাঙ্গার জীবনা গ্রামের সেই মিন্টু ফের ফেনসিডিলসহ আটক, ছাড়িয়ে নিতে চলছে ব্যাপক তদবির!


ঝিনাইদহ পশ্চিমাঞ্চলের আলোচিত ও কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী সেই মিন্টু ফের মিন্টু ৫০ বোতল ফেনসিডিলসহ গোয়েন্দা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে। মিন্টু চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের জীবনা গ্রামের সানোয়ার ওরফে বড়লোক মনার মিয়ার ছেলে।

১৬ই নভেম্বর সোমবার বিকালে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হলিধানী ইউনিয়নের ভেটরিনারি কলেজের সামনে থেকে গোয়েন্দা পুলিশের এসআই সেলিম তাকে আটক করেন। তার শরীর তল্লাসী করে ৫০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে পুলিশ।

ইতিপুর্বে মিন্টু দশমাইল গরুহাটের একটি হোটেল থেকে গাঁজাসহ ঝিনাইদহ র‌্যাব-৬ এর হাতে আটক হয়। কিন্তু আইনের ফাঁকফোকর দিয়ে জামিনে মুক্তি পেয়ে আবারো সে এলাকায় ব্যাপকভাবে মাদক ব্যবসা শুরু করে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে একাধিক বার আটক ও রহস্যজনক ভাবে ছাড়া পেয়ে পূর্বের পেশায় ফিরে যাওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

এলাকাবাসির অভিযোগ, আলোচিত সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী মিন্টু দীর্ঘদিন ধরেই প্রশাসনের নাকের ডগায় মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছে। জীবনা গ্রামের নিভৃত বিলের ধারে রয়েছে তার একটি বিশাল বাগানবাড়ি। সেখানে নিয়মিত মাদকের আড্ডা চলতো। চলতো নাচ গান ও অসামাজিক কার্যকলাপ।

জীবনা বিলের ধারে রয়েছে তার অসাাজিক কার্যকলাপের প্রধান ডেরা। বাইরে থেকে নারী নিয়ে এসে সেখানে ফুর্তি মারা হতো মর্মে তার বিরুদ্ধে এলাকাবাসির ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে। তাছাড়া চুয়াডাঙ্গার জীবনা, দশমাইল, সদরের বংকিরা, গোবিন্দপুর, হাজরা ও চোরকোল গ্রামে মাদক বিক্রি করে যুবসমাজকে ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে নিয়ে গেছে এই মিন্টু।

তার অত্যাচারে এলাকাবাসি ছিল ব্যাপক অতিষ্ঠ। ঝিনাইদহ গোয়েন্দা পুলিশের এসআই সেলিম জানান, গোপন সুত্রে খবর পেয়ে আমরা হলিধানী ইউনিয়নের ভেটরিনারি কলেজের সামনে চেকপোষ্ট বসিয়ে তাকে আটক করতে সমর্থ হয়।

তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে সদর থানায় মামলা করা হবে। এদিকে মিন্টুর গ্রেফতারের খবর ব্যাপক ভাবে ছড়িয়ে পড়লে এলাকাজুড়ে আপামর জনতার মধ্যে স্বস্তি ফিরে পেয়েছে মর্মে সাংবাদিকদের নিকট জানিয়েছে এলাকাবাসি|

0 0

রেলপথ দিবসটি সাফল্য লাভ করুক সোনার বাংলাদেশে যাত্রীদের মধ্যে সচেতনতা হতে।
সুভকামনা নিসরাপ এর সহকর্মী সহযোদ্ধা সংগঠনের বন্ধুরা
বাংলাদেশ রেলওয়ে আজ সবার প্রিয় বাহন
আজ রেলওয়ে বা ট্রেন।
রেলপথ দিবসটি সাফল্য লাভ করুক এটা আমার প্রতাশ্যা।
শুভকামনা নিরাপদ সড়ক ও রেলপথ বাস্তবায়ন পরিষদ নিসরাপ এর পক্ষ থেকে সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও শুভকামনা রইল। বাংলাদেশ রেলওয়ে সমাজের জন্য সময়ের সাথে একধাপ এগিয়ে। সবার চলার পথ যেন হয় নিরাপত্তা ও আরাম দায়ক।

শুভেচ্ছান্তে,
সৈয়দ খায়রুল আলম,
প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, নিরাপদ সড়ক ও রেলপথ বাস্তবায়ন পরিষদ (নিসরাপ)।

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশের সময় শিশু ও নারীসহ ১৮ জনকে আটক করেছে বিজিবি। শনিবার সন্ধ্যায় বিজিবির পক্ষে অতিরিক্ত পরিচালক মোহাম্মদ মেহেদী হাসান খান এক ই-মেইল বার্তায় এখবর জানান।

ই-মেইল বার্তায় উল্লেখ করা হয়েছে শনিবার ভোরে মহেশপুর ৫৮ ব্যাটালিয়ন অধিনস্ত শ্যামকুড় বিওপির অধীন টাঙ্গাইল মাঠ থেকে নাটোরের পাঁচ সিংড়া গ্রামের মোঃ আতিয়ার রহমান, মোঃ নুরু মিয়া, মোঃ আকবর আলী, মোঃ হৃদয় হোসেন ও মোঃ বুলবুল হোসেনকে আটক করা হয়। তারা বিনাপাসপোর্টে বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করে।

এদিকে মহেশপুর ব্যাটালিয়ন (৫৮ বিজিবি) এর অধিনস্ত সামন্তা বিওপির সীমান্ত পিলার ৫৯/৩এস হতে আড়াই কিলোমিটার বাংলাদেশের অভ্যন্তরে আনন্দবাজার এলাকা থেকে পিরোজপুর জেলার জিয়ানগর উপজেলার পশ্চিম বালিপাড়া গ্রামের মোঃ খোকন, মোছাঃ লাকি,

মোছাঃ টুম্পা, মোছাঃ রওজা, মোছাঃ ফাতেমা, মোঃ নাঈম, বাগেরহাটের মোড়লগঞ্জ এলাকার মোঃ শফিকুল, খুলনার দিঘালিয়া উপজেলার বরমগাতি গ্রামের মোছাঃ রুপা বেগম, মোছাঃ ইতি বেগম, মোছাঃ মৌ, মোছাঃ জামিলি,

মোছা সীমা খাতুন ও তেরখাদা উপজেলার পাড়হাজি গ্রামের মোঃ মিঠু শেখকে আটক করা হয়। আটককৃত বাংলাদেশী নাগরিকদেরকে অবৈধভাবে বাংলাদেশ হতে অবৈধ পথে ভারতে প্রবেশের চেষ্টার অপরাধে বাংলাদেশ পাসপোর্ট অধ্যাদেশ ১৯৭৩ এর ১১(১)(গ) ধারায় মহেশপুর থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহঃঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরের হিজড়া ভাইস চেয়ারম্যান পিংকি খাতুনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে একজন হিজড়াকে হত্যার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঝিনাইদহ শহরের চাকলাপাড়ার মৃত আলীজান মীরের সন্তান বর্ষা মীর (তৃতীয় লিঙ্গ) বাদী হয়ে ঝিনাইদহের একটি আমলি আদালতে মামলাটি দায়ের করেছেন।

বুধবার জুডিসিয়াল আমলি ম্যাজিস্ট্রেট আদালত কোটচাঁদপুরের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তানিয়া বিনতে জাহিদ পিটিশন মামলাটি এজাহার হিসেবে গণ্য করার জন্য সংশ্লিষ্ট থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, আক্তার ওরফে লাবনী, বর্ষা মীর ও কারিশমা হিজড়ার সঙ্গে বর্তমান কোটচাঁদপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পিংকি খাতুন ওরফে সাবিনা আক্তার ওরফে লিয়াকতের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ কারণে লাবনী সুকৌশলে কোটচাঁদপুর উপজেলা শহরের জনৈক হাসেম বিশ্বাসের বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন। তাকে হত্যার হুমকি দেয়ার পরে বাসা পরিবর্তন করে একই শহরের বলুহর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন।

মামলার বাদী আরও উল্লেখ করেন, চলতি বছরের ৭ জুন একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে ওই বাসা থেকে লাবনী ওরফে আক্তারকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে লাবনী প্রকৃতপক্ষে হিজড়া স¤প্রদায়ের লোক না। তার স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে। তারা চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনার শস্তিপুর গ্রামে বসবাস করে। ঘটনার দিন গত ৭ জুন সকাল ১০টার দিকে লাবনীর দুই হাতের রগ কেটে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ গুম করতে ব্যর্থ হয়ে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়।

হত্যার ঘটনা ধামাচাপা দিতে করোনা রোগী হিসেবে গোপনে লাবনীর নিজ গ্রাম চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনার শস্তিপুরে দাফন করা হয়। অভিযোগে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, এ হত্যার ঘটনায় কোটচাঁদপুরের তৃতীয় লিঙ্গের ভাইস চেয়ারম্যান পিংকি খাতুনসহ ৬ জন জড়িত। মামলার বাদী জানান, লাবনী প্রকৃত হিজড়া ছিলেন না।

পিংকি তাকে হিজড়া বানিয়ে রাখে। এ বিষয়ে কোটচাঁদপুরের ভাইস চেয়ারম্যান পিংকি খাতুন জানান, তার বিরুদ্ধে মিথ্যা ভিত্তিহীন অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এ মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিও জানান তিনি। মামলার বাদী বর্ষা মীরের দেয়া তথ্যমতে, মিথ্যা তথ্য দিয়ে উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন পিংকি ওরফে লিয়াকত।

এ বিষয়ে জেলা নির্বাচন অফিসার রোকনুজ্জামান জানান, মহিলা ভোটার তালিকা হিসেবে পিংকি খাতুনের নাম রয়েছে। তথ্য গোপন করে এমনটি করা হলেও নির্বাচনের সময় কেউ আপত্তি তোলেনি। যে কারণে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তাকে মনোনয়ন দেয়া হয়।

হিজড়া বা তৃতীয় লিঙ্গের কেউ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার সুযোগ নেই বলে জানান তিনি। মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী মো. নজরুল ইসলাম জানান, আদালতের আদেশ কোটচাঁদপুর থানার ওসি বরাবর পাঠানো হয়েছে।

তবে কোটচাঁদপুর থানার ওসি মাহবুব আলম জানান, আদালতের আদেশ পাওয়ার পর মামলাটি রেকর্ড করা হবে।

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারতে যাওয়ার সময় নারীসহ ৫ জনকে আটক করেছে বিজিবি। সোমবার রাত ১০ টার দিকে উপজেলার গুড়দহ বাজার এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

মঙ্গলবার সকালে ৫৮ বিজিবির সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম খান স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। আটককৃতরা হলো-যশোর সদর উপজেলার শংকরপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকার মৃত আমির হোসেনের মেয়ে রিম্পা খাতুন (২৪),

বাঘারপাড়া উপজেলার সাধিপুর গ্রামের নীলপদ পোদ্দারের স্ত্রী মাধুরী পোদ্দার (৪৫), নড়াইলের কালিয়া উপজেলার চাচুড়ি গ্রামের বাবুল শেখের স্ত্রী সাবিনা খাতুন (৪০), মুখখোলা গ্রামের ইমন শেখের স্ত্রী লিতুন জিরা (১৯) বাবুল শেখের ছেলে ইমন শেখ (২৫)।

বিজিবি জানায়, মহেশপুরের শ্রীনাথপুর বিওপির দ্বায়িত্বপুর্ণ এলাকা দিয়ে কয়েকজন বাংলাদেশী অবৈধভাবে বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়ার চেষ্টা করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। এসময় ৪ নারী ও ১ পুরুষকে আটক করা হয়।

তাদের বিরুদ্ধে বিজিবির পক্ষ থেকে বিনাপাসপোর্টে বাংলাদেশ হতে ভারতে গমনের চেষ্টা করার অপরাধে মামলা দায়ের করে মঙ্গলবার দুপুরে মহেশপুর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

0 0

নিরাপদ সড়ক ও রেলপথ বাস্তবায়ন পরিষদ এর এর কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিষ্টাতা চেয়ারম্যান এর সাথে লোহাগড়া কমিটি গঠন নিয়ে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।


আজ সোমবার সন্ধ্যায লক্ষীপাশা রোজ ভ্যালী রেষ্টুরেন্টে এই আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন নিসরাপ এর প্রতিষ্টাতা চেয়ারম্যান সৈয়দ খায়রুল আলম, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মো আলমিন,সদস্য মনিরুল ইসলাম, শরিফ হুমায়ুন, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, শ্রমিক সংগঠনের সদস্য মিজানুর রহমান মিন্টু প্রমুখ।

লোহাগড়া উপজেলার বিভিন্ন সড়কে ব্রিজ কালর্ভাট করা হলেও সংযোগ সড়কের কারণে ব্যাবহারের সুযোগ পাচ্ছে না সাধারণ মানুষ। দ্রুত পদক্ষেপ নিতে সংশ্লিষ্ট দফতরের প্রতি আহবান জানানো হয়েছে এই আলোচনা সভা থেকে।এ ছাড়াও সড়ক নিরাপত্তা নিয়ে বিভিন্ন আলোচনা করা হয়।