Home আন্তর্জাতিক

ঘণ্টা পর ফিলিস্তিনি শিশুর কণ্ঠে শোনা গেলআল্লাহু আকবর

 

সিটিজিট্রিবিউন : রোববার ইসরাইল থেকে উড়ে আসা রকেটের আঘাতে বারবার সশব্দে কাঁপছে গাজার এলাকাটি। রিয়াদ এশকুন্তানা আর তার স্ত্রী নিজেদের সন্তানদের একটা ঘরে রেখে এলেন। তাদের মনে হয়েছিল সেই ঘরটিই সবচেয়ে নিরাপদ, রকেটের আওতার সবচেয়ে বাইরে।

অন্য ভাইবোনদের সঙ্গে সুজিও ছিল সেখানে। কিন্তু এত করেও সন্তানদের নিরাপত্তা দিতে পারেননি রিয়াদ এশকুন্তানা। রকেটের আঘাতে প্রথমে দুটি দেওয়াল, তারপর ছাদও ধসে পড়ে। ও ঘর থেকে স্পষ্ট শোনা যায় ছেলে জাইনের চিৎকার, ‘আব্বা! আব্বা!’ সুজিও ডাকে।

কিন্তু মাঝে দেওয়াল ভেঙে পড়ে ধ্বংসস্তূপের আড়ালে থাকা সন্তানদের উদ্ধার করতে যেতে পারেননি রিয়াদ। ভবনটি ধসে পড়ার পর প্রতিবেশীরা এসে ইট-সুরকির নিচ থেকে চেনা মানুষগুলোকে উদ্ধারের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন।

রিয়াদ খুব চেষ্টা করেও নিজের বেঁচে থাকার খবরটা তাদের জানাতে পারেননি। প্রায় ত্রিশ মিনিট পর প্রতিবেশীদের উদ্যোগেই পুলিশ আসে, উদ্ধারকর্মীরা আসে। ততক্ষণে কিছুটা শক্তি ফিরে পেয়েছেন রিয়াদ। ফলে তার কাতর আর্তনাদ শুনতে পান উদ্ধারকর্মীরা। বেঁচে যান রিয়াদ৷

উদ্ধার করে শিফা হাসপাতালে নেওয়া হয় রিয়াদকে। সেখানে তখন স্বজনদের ভিড়। এক শিশুকে আনতে দেখে নারীরা সেদিকে ছুটে যান, ‘ইয়াহিয়া নাকি? ইয়াহিয়া!’ চার বছরের ইয়াহিয়া তখন আর বেঁচে নেই।

শুনে দুজন নারী সেখানেই অজ্ঞান৷ তারপর জাইনের খবর, মেয়ে ডানার খবর, স্ত্রীর খবরও জেনে রিয়াদের মনে হলো আর কেউ বেঁচে নেই। মনে হলো, সবাইকে হারিয়ে একা একা বেঁচে থাকার কী দরকার!

বাড়ির সবাইকে চিনতেন বলে প্রতিবেশীরা জানতেন এখনও সুজি আছে ইট-সুরকির নিচে। তাই ভবন ধসে পড়ার সাত ঘণ্টা পরও চলছিল তাকে উদ্ধারের চেষ্টা।

উদ্ধারকর্মীরা ধংসস্তূপের ফাঁকফোকরে মুখ রেখে ‘আল্লাহু আকবর’ বলছেন। এখানে ওখানে খুঁজে খুঁজে হঠাৎ এক জায়গা থেকে শোনা গেল শিশুর দুর্বল কণ্ঠের মৃদু চিৎকার, ‘আল্লাহু আকবর!’

উদ্ধার করে সুজিকেও নেওয়া হয় শিফা হাসপাতালে। রিয়াদের পাশের বেডেই রাখা হয় তাকে। ছয় বছরের মেয়েটিকে দেখে রিয়াদ আবার ফিরে পেয়েছেন জীবনের মানে। একটু হলে সুজিকেও হারাতে হতো-এই ভেবে বুক কাঁপে তার।

সুজির হাত ধরে বলেন, ‘আমার মেয়ে, আমাকে তুমি ক্ষমা করো! তুমি তখন ডেকে তোমার কাছে যেতে বলেছিলে। অনেক চেষ্টা করেও আমি তোমার কাছে যেতে পারিনি।’

ভবন ধসে পড়লেও, ধসে পড়া ভবনের নিচে সাত ঘণ্টা থাকলেও এক্স-রে রিপোর্ট বলছে, সুজি ভালো আছে। মাথাসহ এখানে-ওখানে একটু কেটে যাওয়া ছাড়া তেমন কিছুই হয়নি ছয় বছরের ফুটফুটে মেয়েটির।

সূত্র: ডয়চে ভেলে

 

 

 

গাজায় পুনর্নির্মাণ ও চিকিৎসা সহায়তা হিসেবে ৫০ কোটি মার্কিন ডলার দেবে মিশর

সিটিজিট্রিবিউন : গাজায় পুনর্নির্মাণ চিকিৎসা সহায়তা হিসেবে ৫০ কোটি মার্কিন ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, মিশরের রাষ্ট্রপতি আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি। বিষয়টি দেশটির রাষ্ট্রপতির কার্যালয় থেকে জানানো হয়।

কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরার বরাতে জানা যায়, রাষ্ট্রপতি এক আবদেল ফাত্তাহ বিবৃতিতে বলেছেন, সাম্প্রতিক ঘটনার ফলস্বরূপ গাজা উপত্যকায় পুনর্নির্মাণের জন্য মিশর ৫০ কোটি মার্কিন ডলার সরবরাহ করবে। এছাড়াও বিশেষজ্ঞ মিশরীয় নির্মাণ সংস্থাগুলি পুনর্নির্মাণকে বাস্তবায়িত করবে।

তিনি আরো বলেন, আমি দুই দেশকে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানাচ্ছি। আশাকরি যত দ্রুত সম্ভব তারা এই সংকটময় অবস্থা থেকে বেড়িয়ে আসবে। এদিকে মঙ্গলবার ইসরায়েলে বৃষ্টির মতো রকেট হামলা চালিয়েছে হামাস। এই হামলায় এখন পর্যন্ত দুজন নিহত ও ৭জন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি পুলিশ। হামাসের রকেট হামলায় ইসরাইলের বিভিন্ন শহরে সাইরেন বাজানোর শব্দ শোনা গেছে।

ইসরায়েল-ফিলিস্তিনি সংঘাতের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২১২ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, নিহতদের মধ্যে অন্তত ৬১ শিশু ও ৩৬ নারী রয়েছেন। এছাড়া গত এক সপ্তাহের চলমান হামলায় মোট আহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে অন্তত দেড় হাজার জনে।খবরবিবিসিরপ্রতিবেদন:কেইউকে।

 

 

লিবিয়ায় নৌকাডুবিতে অর্ধশতাধিক মৃত্যুর শঙ্কা, ৩৩ বাংলাদেশি উদ্ধার 

 

সিটিজিট্রিবিউন : অবৈধ উপায়ে ইউরোপ যাওয়ার পথে লিবিয়া উপকূলে নৌকা ডুবির ঘটনায় মঙ্গলবার ৩৩ বাংলাদেশিকে উদ্ধার করেছে তিউনেশিয়া নৌবাহিনী। এ ছাড়া ডুবে যাওয়া নৌকাটিতে থাকা আরও ৫০ জন নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানানো হয়।

বার্তা সংস্থা এপি’র বরাতে জানা যায়, উত্তর আফ্রিকার দেশ তিউনিসিয়ার উপকূলে ‘নৌকাডুবি’তে অন্তত ৫০ অভিবাসনপ্রত্যাশী নিখোঁজ হয়েছেন। জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে ৩৩ জনকে। এদের সবাই বাংলাদেশি বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থা (আইওএম)। নিখোঁজ ব্যক্তিরা কোন দেশের তা জানা যায়নি। আইওএম’র ভূমধ্যসাগরীয় দফতরের মুখপাত্র ফ্লাভিও ডি গিয়াকোমো টুইটারে বলেছেন, জীবিত উদ্ধার হওয়া ৩৩ জনের সকলে বাংলাদেশের নাগরিক। রোববার লিবিয়ার জাওয়ারা উপকূল থেকে তারা যাত্রা করেছিলেন।

তিউনিসিয়া সরকারের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, উদ্ধারকৃতরা জানিয়েছেন নৌকাটিতে অন্তত ৯০ জন যাত্রী ছিলেন।খবরবিবিসির:#প্রতিবেদন:কেইউকে।

ইসরায়েলফিলিস্তিনের মধ্যে যুদ্ধবিরতির আহ্বান বাইডেনের

 

সিটিজিট্রিবিউন:  গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বাহিনী আট দিন ধরে হামলা চালানোর পর যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেছেন, সহিংসতা বন্ধের বিষয়ে মিসরসহ অন্যান্য দেশের সঙ্গে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র।

এদিকে ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের সাম্প্রতিক সহিংসতা দ্বিতীয় সপ্তাহে গড়িয়েছে। এখন পর্যন্ত গাজায় ২১২ জন নিহত হয়েছে। তাদের মধ্যে ৬১ জন শিশু। অন্যদিকে ইসরায়েলে মারা গেছে ১০ জন। তাদের মধ্যেও দুই শিশু রয়েছে।

যদিও ইসরায়েলের দাবি, গাজায় যারা মারা গেছে, তারা জঙ্গি এবং কোনো বেসামরিক নাগরিক মারা গিয়ে থাকলে, সেটা অনাকাঙ্ক্ষিত।

সূত্র: বিবিসি#প্রতিবেদন:কেইউকে।

 

দখলদার ইসরাইলের একটি যুদ্ধজাহাজে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ যোদ্ধারা

 

সিটিজিট্রিবিউন : দখলদার ইসরাইলের একটি যুদ্ধজাহাজে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ যোদ্ধারা।

সোমবার এক বিবৃতিতে হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জুদ্দীন আল কাসসাম বিগ্রেড এ হামলার দাবি করেছে বলে ইরানের প্রেস টিভি জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়, সোমবার বিকালে কাসসাম ব্রিগেডের সেনারা সাগরে ইসরাইলি যুদ্ধজাহাজ লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে। এছাড়া, কাসসাম ব্রিগেড আজ ইহুদি উপশহর ‘হার্টসলিয়া’-তে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে।  তবে এ হামলায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, সোমবার ভোরে ইসরাইলি সামরিক বাহিনী গাজা উপত্যকায় নতুন করে সিরিজ বিমান হামলা চালানোর পর এই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে।  এর আগে হামাসের যোদ্ধারা ইসরাইলের আশকেলান উপকূলে তেল ও গ্যাস উত্তোলন কেন্দ্রে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে।

এদিকে ইসরাইলি বাহিনীর বিমান হামলায় ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন ইসলামী জিহাদের সিনিয়র কমান্ডার হাসাম আবু হারবিদ নিহত হয়েছেন।

সোমবার বিকালে গাজা উপত্যকার উত্তরাঞ্চলীয় এলাকায় হামলায় নিহত হন তিনি।  টানা আট দিন ধরে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় বিমান ও কামান হামলা চালাচ্ছে দখলদার ইসরাইলি বাহিনী।

জেরুজালেম পোস্টের খবরে বলা হয়, যৌথ অভিযানে নিহত আবু হারবিদ ২০১৯ থেকে ইসলামী জিহাদের উত্তর গাজা উপত্যকা বিভাগের অধিনায়ক ছিলেন।  তিনি গত ১৫ বছর ধরে এই সংগঠনটির প্রভাবশালী একজন কর্মী ছিলেন।

রোববার মধ্যরাতের পর ইসরাইলের বিমান বাহিনীর ৫০টি যুদ্ধবিমান পুরো ২০ মিনিট ধরে গাজার মূল শহর ও তার তার আশপাশের এলাকায় গোলাবর্ষণ করেছে।

ইসরাইলের সেনা কর্মকর্তারা বিবিসিকে বলেন, বিমানবাহিনী ইসরাইলের জন্য ‘বিপজ্জনক’ ৩৫টি লক্ষ্যবস্তু ও হামাস যোদ্ধাদের ব্যবহৃত বেশ কয়েকটি সুড়ঙ্গপথ, যেগুলোর সম্মিলিত দৈর্ঘ্য ১৫ কিলোমিটার ধ্বংস করতে সমর্থ হয়েছে।

গাজার সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন ইসরাইলি সেনাবাহিনীর বিমান হামলায় সেখানকার কয়েকটি বিদ্যুৎকেন্দ্রসহ প্রচুর বাড়িঘর, আবাসিক ও বাণিজ্যিক ভবন ধ্বংস হয়ে গেছে। বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় গাজার বেশিরভাগ এলাকা রয়েছে বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছে।

বিদ্যুৎ না থাকায় গাজার হাসপাতালগুলোতে ভর্তি থাকা করোনা রোগীরা সবচেয়ে বিপন্ন অবস্থায় আছেন।খবরবিবিসির প্রতিবেদন:কেইউকে:

 

 

 

 

 

আগুন নিয়ে খেলবেননা: হামাসের প্রধান ইসমাইল হানিয়া

 

সিটিজিট্রিবিউন : ফিলিস্তিনের গাজা উপকূলে আবারও বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। আজ রবিবার (১৬ মে) হামলা চালানোর পর ইসরায়েলের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন হামাসের প্রধান ইসমাইল হানিয়া।

তিনি ইসরায়েল প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে হুশিয়ার করে বলেন, ইসরায়েলিরা ভেবেছিল তারা আল–আকসা মসজিদ ধ্বংস করে দিতে পারবে। ভেবেছিল, তারা আমাদের জনগণকে গৃহহীন করতে পারবে। আমি নেতানিয়াহুকে বলছি— আগুন নিয়ে খেলবেন না।’এর আগে, রোববার সকালে গাজার হামাসপ্রধান ইয়াহইয়া আল সিনওয়ারের বাড়ি লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। স্থানীয় সময় রোববার (১৬ মে) ইসরায়েলি বিমান থেকে বাড়িটি লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ করা হয়।

রবিবারের হামলার ফলে গাজায় এখন পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭৫ জন। নিহত ফিলিস্তিনিদের মধ্যে ৪৯ শিশু রয়েছে। অন্যদিকে গাজা থেকে ছোড়া হামাসের রকেট হামলায় দুই শিশুসহ ১০ ইসরায়েলি নিহত হয়েছেন।

 

এদিকে, ইসরায়েল ফিলিস্তিনের মধ্যকার চলমান সহিংসতার অবসান ঘটাতে আজ উভয় পক্ষের সঙ্গে বৈঠক করার কথা রয়েছে জাতিসংঘের সুরক্ষা কাউন্সিলের প্রতিনিধিদের।

ইসরায়েলি মানবাধিকার সংস্থা বি’সলেম অভিযোগ করেছে যে, গাজা উপকূলে ইসরায়েল যুদ্ধাপরাধ করছে। একইসঙ্গে তারা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এর বিরুদ্ধে দ্রুত সময়ের মধ্যে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।খবর রয়টার্স্।

 

 

 

আগুন নিয়ে খেলবেননা: হামাসের প্রধান ইসমাইল হানিয়া

 

সিটিজিট্রিবিউন : ফিলিস্তিনের গাজা উপকূলে আবারও বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। আজ রবিবার (১৬ মে) হামলা চালানোর পর ইসরায়েলের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন হামাসের প্রধান ইসমাইল হানিয়া।

তিনি ইসরায়েল প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে হুশিয়ার করে বলেন, ইসরায়েলিরা ভেবেছিল তারা আল–আকসা মসজিদ ধ্বংস করে দিতে পারবে। ভেবেছিল, তারা আমাদের জনগণকে গৃহহীন করতে পারবে। আমি নেতানিয়াহুকে বলছি— আগুন নিয়ে খেলবেন না।’এর আগে, রোববার সকালে গাজার হামাসপ্রধান ইয়াহইয়া আল সিনওয়ারের বাড়ি লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। স্থানীয় সময় রোববার (১৬ মে) ইসরায়েলি বিমান থেকে বাড়িটি লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ করা হয়।

রবিবারের এ হামলার ফলে গাজায় এখন পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭৫ জন। নিহত ফিলিস্তিনিদের মধ্যে ৪৯ শিশু রয়েছে। অন্যদিকে গাজা থেকে ছোড়া হামাসের রকেট হামলায় দুই শিশুসহ ১০ ইসরায়েলি নিহত হয়েছেন।

 

এদিকে, ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যকার চলমান সহিংসতার অবসান ঘটাতে আজ উভয় পক্ষের সঙ্গে বৈঠক করার কথা রয়েছে জাতিসংঘের সুরক্ষা কাউন্সিলের প্রতিনিধিদের।

ইসরায়েলি মানবাধিকার সংস্থা বি’সলেম অভিযোগ করেছে যে, গাজা উপকূলে ইসরায়েল যুদ্ধাপরাধ করছে। একইসঙ্গে তারা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এর বিরুদ্ধে দ্রুত সময়ের মধ্যে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।খবর রয়টার্স্।

 

ইসরায়েলফিলিস্তিন ইস্যু নিয়ে ন্যায়বিচারের পক্ষে না আমেরিকা: চীন

 

 

সিটিজিট্রিবিউন : চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইয়ে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন ইস্যু নিয়ে নিজেদের অবস্থান সম্পর্কে আলোচনাকালে বলেন, ফিলিস্তিনের গাজায় চলমান ইসরায়েলি নৃশংসতার বিরুদ্ধে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। আর এজন্য দায়ী যুক্তরাষ্ট্র।

চীনের বার্তা সংস্থা সিনহুয়াকে তিনি বলেন, জাতিসংঘ সুরক্ষা কাউন্সিলের প্রস্তাবগুলি আন্তরিকভাবে প্রয়োগ করা হয়নি এবং বিশেষত ফিলিস্তিনের একটি স্বাধীন রাষ্ট্র গঠনের অধিকার ক্রমাগত লঙ্ঘন করা হয়েছে।

তার ভাষ্যমতে, যুক্তরাষ্ট্র বরাবরই আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচারের বিপরীতে অবস্থান নিয়েছে। আর সেজন্য নিরাপত্তা পরিষদ ইসরায়েল এবং হামাসের মধ্যে কোনো শান্তি চুক্তিতে বার বার ব্যর্থ হয়। ওয়াং ইয়ে বলেন, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের উচিত যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তাদের মধ্যে শান্তি আলোচনার ব্যবস্থা করা।

এদিকে ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনিদের মধ্যে সহিংসতাকে “অগ্রহণযোগ্য” বলেছেন পোপ ফ্রান্সিস। ফিলিস্তিনে ইসরায়েলি হামলা নিয়ে প্রথমবারের মতো মুখ খুললেন পোপ ফ্রান্সিস। সেন্ট পিটার্স স্কয়ারে সাপ্তাহিক ভাষণে বিশেষত শিশুদের মৃত্যুর বিষয়টি উল্লেখ করে বলেন, “তারা ভবিষ্যৎ গড়তে চায় না, বরং এটি ধ্বংস করতে চায়”।

ফিলিস্তিনের গাজা উপকূলে আবারও বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। আজ রবিবার (১৬ মে) চালানো এ হামলায় ১৩ শিশুসহ অন্তত ৩৩ জন ফিলিস্তিনি নাগরিক নিহত হয়েছেন। মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়া হয়েছে দুটি আবাসিক ভবন।গত ৭ দিন ধরে গাজা উপত্যকায় ১৮১ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। এর মধ্যে অন্তত ৫২ জন শিশু। আহত হয়েছে হাজারের বেশি মানুষ। পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বাহিনী অন্তত ১৩ জনকে হত্যা করেছে। আর গাজা থেকে ছোড়া রকেট হামলায় ২ শিশুসহ মারা গেছে অন্তত ১০ ইসরায়েলি। গ্লোবাল টাইমস।

 

 

 

 

ইসরাইলি বাহিনীর বিমান হামলা অব্যাহত রয়েছে

সিটিজিট্রিবিউন : ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় দখলদার ইসরাইলি বাহিনীর বিমান হামলা অব্যাহত রয়েছে।  গত ৬ দিনের মতো আজও হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরাইল।

গাজার নিরীহ মানুষের ওপর হামলায় ইসরাইল বিষাক্ত গ্যাস ব্যবহার করেছে বলে নিশ্চিত করেছে সেখানকার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

আরবি ভাষার স্কাই নিউজ চ্যানেল শনিবার গাজার হাসপাতাল সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ইসরাইলি হামলায় বিষাক্ত গ্যাস ব্যবহার করা হচ্ছে, এরইমধ্যে বিষাক্ত গ্যাসের কারণে অনেক ফিলিস্তিনির মৃত্যু হয়েছে।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল কাদারা বলেছেন, ইসরাইলি হামলায় শহীদ কয়েকজনের মৃতদেহ পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, গাজায় হামলায় বিষাক্ত গ্যাস ব্যবহারের কারণে শহীদের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

তিনি আরও জানিয়েছেন, ইহুদিবাদী ইসরাইল গাজায় ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম ঢুকতে দিচ্ছে না।

রোববার ইসরাইলি বাহিনীর হামলায় ফিলিস্তিনে কমপক্ষে দু’টি আবাসিক ভবন ধসে পড়েছে। এ হামলায় ২৬ জন নিরপরাধ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন প্রায় ৫০ জন।

বিমান হামলা ছাড়াও ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের গাজাপ্রধান ইয়াহইয়া আল সিনওয়ারের বাড়িতে হামলা চালিয়েছে ইসরাইলি সেনারা।

এ নিয়ে গত এক সপ্তাহে গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি বিমান ও স্থল হামলায় কমপক্ষে ১৭০ জনের বেশি ফিলিস্তিনির মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ৪১ জনই শিশু।  আহত হয়েছেন এক হাজারের বেশি মানুষ। খবরবিবিসির

#প্রতিবেদনকেইউকে।

 

মোঃআলাউদ্দীন

ঢাকা, রোববার ১৬ মে ২০২১:
পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের দিনসহ ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর অব্যাহত হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে টুইটারে ‘ইসরায়েল কি সকল আন্তর্জাতিক আইনের উর্ধ্বে?’ প্রশ্ন রখেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

শনিবার ড. হাছান তার টুইটে বলেন, ‘রমজান মাসে এমনকি পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের দিনে এবং এর পরেও ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলের নৃশংসতা অতীতের সকল বর্বরতাকে ছাড়িয়ে গেছে। এরপরও বড় দেশগুলোর কর্ণধার বিশ্বনেতাদের নিরবতা মর্মপীড়াদায়ক। ইসরায়েল কি সকল আন্তর্জাতিক আইনের উর্ধ্বে?’

এর আগে ঈদ-উল-ফিতরের দিনেও জাতীয় মসজিদ বায়তুল মুকাররমে ঈদের জামাত শেষে তথ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে ফিলিস্তিনে মুসলমানদের ওপর ইসরায়েলি হামলার নিন্দা জানান এবং ফিলিস্তিনে শান্তির জন্য মহান স্রষ্টার কাছে প্রার্থনার কথা উল্লেখ করেন।

গত ১০ মে সোমবার থেকে শুরু হওয়া ইসরায়েলী হামলায় গাজায় এ পর্যন্ত ৪২ জন শিশুসহ ১৫৩ জন ফিলিস্তিনি নিহত ও অসংখ্য ঘরবাড়ি ধ্বংসের সংবাদ দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

বাংলাদেশ রাষ্ট্রীয়ভাবে ইসরায়েলি আগ্রাসনমুক্ত স্বাধীন সার্বভৌম ফিলিস্তিন প্রতিষ্ঠাকে সমর্থন করে আসছে।