Home Authors Posts by Ayaz Ahmed

Ayaz Ahmed

1182 POSTS 1 COMMENTS

আগামীকাল ৩০ অক্টোবর বিকাল ৩ টায় চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় শ্রমিক পার্টির নবগঠিত সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হইবে।
স্থান ঃ পাহাড়তলী ভেলুয়ার দিঘী খান বাড়ী চত্বর
​উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্রী তপন চক্রবর্ত্তী।

সভাপতিত্ব করবেন নগর শ্রমিক পার্টির আহবায়ক শ্রমিক নেতা মোঃ ওসমান খান। উক্ত সভায় নগর শ্রমিক পার্টির সকল সদস্যদের যথাসময়ে উপস্থিত থাকার জন্য সংবাদ পত্রের মাধ্যমে অনুরোধ জানিয়েছেন নগর শ্রমিক পার্টির সদস্য সচিব হারুন উর রশিদ হারুন।

0 0

আবেদ আলী স্টাফ রিপোর্টারঃনীলফামারীর জলঢাকায় সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের নতুন অফিস ও পরিবহনের উদ্বোধন করা হয়েছে।

উপজেলাবাসির সুবিধার্থে তাদের সকল প্রকার বৈধ মালামাল দেশ এবং বিদেশে খুব সহজেই দ্রুত সময়ে পৌছানো সেবা প্রদানে বৃহস্পতিবার বিকেলে থানা মোড় এলাকায় অফিস ঘরের উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহেদ বাহাদুর।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের উত্তরবঙ্গ ডিভিশনাল ইনচার্জ আলতাব হোসেন, দিনাজপুর এজিএম নুর করিম, নীলফামারী ব্যবস্থাপক মোর্শেদ আলী,

জলঢাকা ব্যবস্থাপক মিজানুর রহমান ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বাবলা প্রমুখ।

0 0

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার, ২৯ অক্টোবর।।

কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও -ঈদগড়-বাইশারী সড়ক।সড়কটি দিয়ে পার্বত্য নাইক্ষংছড়ি, রামু ও কক্সবাজার সদর এ তিন উপজেলার বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের লোকজনকে চলাচল করতে হয়।
সড়কের হিমছড়ি ঢালাসহ প্রায় স্থানে প্রায়ই ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাতরা রাস্তার পাশের বিভিন্ন বন জঙ্গলে লুকিয়ে থেকে রাতের আঁধারে হঠাৎ করে রাস্তায় এসে যানবাহনে ডাকাতি করে দ্রুত সটকে পড়ে। পথচারী ও যাত্রীদের সর্বস্ব লুটের পাশাপাশি আহত ও নিহতের ঘটনা ঘটেছে।
তাই সড়কে যানবাহন ডাকাতি রোধে সড়কে লাইটিং করার উদ্যোগ নেন কক্সবাজারের নারী সংসদ সদস্য সদস্য কানিজ ফাতেমা মোস্তাক। তিনি ইতোমধ্যে ৪টি সোলার প্যানেল (লাইটিং) বরাদ্দ দেন।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার আওতাধীন ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ সড়কের পাশের বন জঙ্গল পরিষ্কার করার পাশাপাশি সড়কের পাশে এসব সোলার প্যানেল স্থাপন (লাইটিং) করছে এবং জরাজীর্ণ চেকপোস্টটিত সংস্কার করছে বলে জানা গেছে।
গত ৮ অক্টোবর সকালে বাড়ি ফেরার পথে কক্সবাজারের ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কের হিমছড়ি ঢালায় ডাকাতের হাতে নিহত হন শিশু শিল্পী জনি দে রাজ (২০) ও কৃষক মো.কালু (৫০)। তাদের দুইজনের বাড়ি
রামু উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নে। ২১ দিন পরও জট খোলেনি কণ্ঠশিল্পী জনি দে রাজ ও মো. কালু হত্যা রহস্য। ডাকাতের হামলায় মৃত্যুর কথা বলা হলেও, ধরণ দেখে পরিকল্পিত হত্যাকান্ড বলে মনে করছে পুলিশ।
ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কের হিমছড়ি এলাকাটিতে চেকপোস্টে সকাল ৮টা হতে রাত ৯ টা পর্যন্ত পুলিশ পাহারা থাকে। তবে সাড়ে ৭টার দিকে, পুলিশ টহল শুরুর আগে সিএনজি পেয়ে দুর্বৃত্তরা আক্রমণ করেন। এতে জনি ও মো.কালু নিহত হন।
ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ
পরিদর্শক আবদুল হালিম জানান, দুর্গম জঙ্গলে আস্তানা গেড়ে লুকিয়ে থেকে ডাকাতরা রাতে বেলায় সড়কে যানবাহন আটকিয়ে যানবাহনে ডাকাতি করে পালিয়ে যায়।
তিনি বলেন,‘ঈদগাঁও-ঈদগড়’ সড়কে সড়কে রাতের বেলায় বিভিন্ন সময় দুবৃত্তরা যানবাহনে হামলার চেস্টা করে। আঁধারের সুযোগে বিভিন্ন যানবাহনে ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে।
সড়কের ঢালু ও ব্রিজের নিচে গড়ে ওঠা জঙ্গলের লুকিয়ে থেকে ডাকাত ও ছিনতাইকারীরা যাত্রীদের অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে নগদ টাকা, মোবাইফোন ও স্বর্ণালংকারসহ গুরুত্বপূর্ণ মালামাল লুটে নেয়।
এজন্য সড়ক পথে জনগণের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে
ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কের হিমছড়ি ঢালা অংশে লাইটিং এর উদ্যোগ নেন কক্সবাজারের নারী সংসদ সদস্য কানিজ ফাতেমা মোস্তাক। এরই ধারাবাহিকতায় ৪টি সোলার প্যানেল (লাইটিং) বরাদ্দ দিয়েছেন। ৪টি স্থানে লাইটগুলো স্থাপন করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, হিমছড়ি ঢালায় জরাজীর্ণ চেকপোস্টিও সংস্কার করা হচ্ছে। সড়ক নিরাপত্তায় রাতে ও দিনে দায়িত্ব পালন করবে পুলিশ সদস্যরা।
এতে ডাকাতি ও ছিনতাই প্রতিরোধ করা সহজ হবে। ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কে হিমছড়ি এলাকা ডাকাত মুক্ত হবে, এমনটাই আশা করেন তিনি।

0 0

আয়াজ আহমাদ :ঢাকা, বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর, ২০২০):তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশের মানুষের স্বাধিকার আদায়ের আন্দোলন ও স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্য মানুষের মনন তৈরিতে গণমাধ্যম, গণমাধ্যমের সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ও সাংবাদিকবৃন্দের ভূমিকা যতদিন বাংলাদেশ থাকবে ততদিন ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর মিন্টু রোডে সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিওকনফারেন্সে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি-ডিআরইউ’র রজতজয়ন্তী উপলক্ষে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আয়োজিত তিনদিনব্যাপী স্মারক বক্তৃতামালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং তার নেতৃত্বাধীন সরকার মনে করে, নতুন প্রজন্মের মনন গঠনেও গণমাধ্যমের সুষ্ঠু বিকাশ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং সরকারের পথ চলা, সুষ্ঠুভাবে কাজের ক্ষেত্রেও গণমাধ্যমের সমালোচনা সহায়ক ভূমিকা রাখে। সেকারণে আমরা সমালোচনাকে সমাদৃত করা এবং সমালোচকদেরকে পুরস্কৃত করার সংস্কৃতিটাও লালন করি। গণমাধ্যমের কাছে আমার নিবেদন, খারাপ কাজের সমালোচনার পাশাপাশি ভালো কাজের প্রশংসাও প্রয়োজন, তাতে ভালো কাজ উৎসাহিত হয়।’

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে গত প্রায় বার বছরে গণমাধ্যমের বিস্ময়কর প্রসার এবং চলতি করোনাকালে সাংবাদিকদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ তহবিলের মাধ্যমে সহায়তা বিশ্বে অনন্য নজির স্থাপন করেছে, উল্লেখ করেন ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, গণমাধ্যমে পুঁজি বিনিয়োগ ভালো এবং একইসাথে লক্ষ্য রাখতে হবে, গণমাধ্যম যেন পুঁজির স্বার্থে ব্যবহৃত না হয়।

মূল ধারার গণমাধ্যম পত্র-পত্রিকা, বেতার ও টেলিভিশন যাতে সুষ্ঠুভাবে বিকশিত হয় সেজন্য প্রধানমন্ত্রী আমাকে মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়ার পর থেকে তথ্য মন্ত্রণালয় নিরলস কাজ করে যাচ্ছে উল্লেখ করে ড. হাছান বলেন, যে সমস্ত পত্রিকা হঠাৎ হঠাৎ বের হয়, নিয়মিত বের হয় না সেগুলো আসলে গণমাধ্যমের সুষ্ঠু বিকাশে কতটুকু সহায়ক সেটি নিয়ে অনেকেরই প্রশ্ন আছে। এবং পত্রিকার প্রচার সংখ্যাও যাতে বাস্তবনির্ভর হয়, এ নিয়েও কাজ চলছে। এসকল ক্ষেত্রে একটি শৃঙ্খলা প্রয়োজন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে বিজ্ঞাপন চলে যাচ্ছে এবং যেটির কোনো আয়কর সরকার পাচ্ছিল না, সম্প্রতি সেখানে ভ্যাট যুক্ত করাসহ এখাতে শৃঙ্খলা আনতে তথ্য মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক, অর্থ মন্ত্রণালয়, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়, তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি বিভাগ সম্মিলিতভাবে কাজ করছে, জানান মন্ত্রী। তিনি বলেন, বহুদিন ধরে যা সম্ভব হয়নি, বাংলাদেশের পণ্যের বিজ্ঞাপন বিদেশি চ্যানেলের মাধ্যমে দেখানো আমরা এখন পুরোপুরিভাবে বন্ধ করতে সক্ষম হয়েছি। এছাড়াও যা কয়েক দশকে সম্ভবপর হয়নি, সেই বাংলাদেশ টেলিভিশন গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে সমগ্র ভারতে ফ্রি ডিশের মাধ্যমে প্রদর্শিত হচ্ছে।

তথ্যমন্ত্রী এসময় ডিআরইউকে রিপোর্টারদের স্বার্থ সংরক্ষণ ও গণমাধ্যম পেশাজীবীদের একটি বলিষ্ঠ সংগঠন হিসেবে অভিহিত করে ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে তাদের অভিনন্দন জানান এবং এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালার প্রশংসা করেন।

ডিআরইউ’র সাবেক সভাপতি শাহজাহান সরদারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এবং বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা পরিচালনা পর্ষদের নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, ফিন্যানসিয়াল হেরাল্ডের সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

‘বাংলাদেশে সাংবাদিকতার সংকট ও সম্ভাবনা : বর্তমান প্রেক্ষিত’ বিষয়ে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল উপস্থাপিত স্মারক বক্তৃতার ওপর আলোচনায় অংশ নেন সাংবাদিক ড. আব্দুল হাই সিদ্দিক, ডিআরইউ’র সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ, সহ-সভাপতি নজরুল কবীর, সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরী প্রমুখ।

0 0

চট্টগ্রাম-২৯অক্টোবর’২০২০ইং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক আলহাজ্ব মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স:) বিশ্বের ঈমানী প্রেরণার জয় বাণী নিয়ে আমাদের সামনে রবিউল আওয়াল মাসে হাজির হয়। আগামীকাল শুক্রবার মুসলিম উম্মাহ জন্য দুইটি ঈদ। একটি হচ্ছে ঈদে মিলাদুন্নবী (স:) আরেকটি জুম্মাবার হিসেবে ঈদ। এই জন্য এ বছরের ঈদে মিলাদুন্নবী (স:) অনেক তাৎপর্যপূর্ণ।

মানুষের মনে কালিমা দূর করার জন্য ঈদে মিলাদুন্নবীতে রাসুল (সা:) এর আকীদা ও নির্দেশনা মেনে চলাই হচ্ছে আমাদের একমাত্র পাথেয়। তিনি আরো বলেন, ধর্মীয় ও পার্থিব জীবনে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (স.) -এর শিক্ষা সমগ্র মানবজাতির জন্য অনুসরণীয় ও অনুকরণীয়। তিনি বলেন, মহান আল্লাহ সমগ্র বিশ্বজগতের রহমত ও শান্তির দূত হিসেবে হযরত মুহাম্মদ সাল্লালাহুআলাইহি ওয়াসাল্লামকে এ জগতে প্রেরণ করেন।

তিনি ছিলেন তাওহীদের প্রচারক, রিসালাতের ধারক ও বাহক এবং সর্বশেষ ও সর্বশ্রেষ্ঠ রাসূল। প্রশাসক এই মহামারী করোনা থেকে মুক্তি পেতে হলে রাসুলের জীবনাদর্শকে ধারণ করে আত্মশুদ্ধির মাধ্যমে মহান আল্লাহ’র নিকট প্রার্থনা করার আহবান জানান। তিনি পবিত্র ঈদ-এ মিলাদুন্নবী (স.) উপলক্ষে দারুল উলুম আলীয়া মাদ্রাসা কর্তৃক আয়োজিত আজ বৃহস্পতিবার সকালে চন্দনপুরা মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে খতমে কোরান ও মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মুফতি ছৈয়দ মোহাম্মদ অছিয়র রহমান আল কাদেরী বলেন, আল্লাহ তায়ালা বলেছেন, ‘হে নবী! আমি তোমাকে পাঠিয়েছি সাক্ষী, সুসংবাদদাতা ও সর্তককারীরূপে, আল্লাহর নির্দেশ সাপেক্ষে তার দিকে আহবানকারীরূপে এবং উজ্জ্বল প্রদীপরূপে।মহানবী (সা.)-এর জীবনার্দশ আমাদের সকলের জীবনকে আলোকিত করুক, পবত্রি ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (সা.)-এর দিবসে মহান আল্লাহর কাছে এ র্প্রাথনা জানান।

প্রিয়নবী (সা.)-এর অনুপম শিক্ষা অনুসরণের মাধ্যমেই বিশ্বের শান্তি ও কল্যাণ নিশ্চিত হতে পারে, পাপাচার, অত্যাচার, মিথ্যা, কুসংস্কার ও সংঘাত র্জজরিত পৃথিবীতে তিনি মানবতার মুক্তিদাতা ও ত্রাণকর্তা হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিলেন। পবিত্র দিনে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহ তথা বিশ্ববাসীর শান্তি ও কল্যাণ কামনায় মোনাজাত করা হয়। মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওলানা মুহাম্মদ আনোয়ার হোসাইন এর সঞ্চালনায় মাহফিলে বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ হযরত মাওলানা মাহবুবুল আলম ছিদ্দিকী, শায়খুল হাসিদ হযরত মাওলানা মকছুদ আহমদ,

জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মুফতি ছৈয়দ মোহাম্মদ অছিয়র রহমান আল কাদেরী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দারুল উলুম কামিল (অনার্স-মাষ্টার্স) মাদ্রাসার গভর্নিং বডির সহ-সভাপতি আলহাজ্ব সাহাবউদ্দিন আহমেদ, সদস্য মো. শহিদুল আলম,

শিক্ষক প্রতিনিধি হাফেজ মাওলানা হারুনুর রশিদ, বিশেষ মুহাদ্দিস শাহজাদা শাহ হজরত মাওলানা মুনিরুল মন্নান আল মাদানী সহ অন্যরা।

0 0

চট্টগ্রাম-২৯অক্টোবর’২০২০ইং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক আলহাজ্ব মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, আগামীকাল ১২ রবিউল আওয়াল মুসলিম সম্প্রদায়ের দুটি ঈদ। একটি ঈদ হলো বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ মুস্তফা (স.) এর জন্মদিন। এ বছর ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উদযাপিত হচ্ছে শুক্রবার জুম্মাবারে।

জুম্মাবারও মুসলিমদের আরেকটি ঈদ আনন্দ। তাই এবারের মিলাদুন্নবী (স.) পালনের বিশেষত্ব রয়েছে। তিনি আজ বৃহস্পতিবার সকালে আন্দরকিল্লাস্থ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের পুরনো নগর ভবনের কে বি আবদুচ ছত্তার মিলনায়তনে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উপলক্ষে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন আয়োজিত খতমে কোরান, মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।

এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মুফতি আল্লামা সৈয়দ অছিয়র রহমান, হযরত খাজা গরিবুল্লাহ শাহ (র.) মসজিদের খতিব আল্লামা হাফেজ মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান আলকাদেরী।এতে উপস্থিত ছিলেন কর্পোরেশনের সচিব আবু সাহেদ চৌধুরী, প্রধান রাজ¯^ কর্মকর্তা মুফিদুল আলম,

প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়–য়া, স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট (যুগ্ম জেলা দায়রা জজ) জাহানারা ফেরদৌস, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা আফিয়া আক্তার, প্রশাসকের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম, চসিক মাদ্রাসা পরিদর্শক মাওলানা হারুন উর রশিদ চৌধুরীসহ কর্পোরেশনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।আলোচনা অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন আরো বলেন, চট্টগ্রামের উন্নয়ন না হলে আমাদের সব অর্জন বৃথা।

তিনি চসিকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মিলাদুন্নবীর উছিলায় যাতে বৈশ্বিক মহামারী করোনা থেকে দেশের জনসাধারণ রক্ষা পান এবং মানুষের আয় রোজগারে যাতে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বরকত দান করেন সেই প্রার্থনা করতে বলেন। কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, আমাদের জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানের সাথে পবিত্র মিলাদুন্নবী (স.) এর অনুষ্ঠানও এখন যুক্ত হয়েছে।

এবারের মিলাদুন্নবী বৈশ্বিক মহামারীর কারণে বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করে উদ্যাপনের সরকারি সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমরা যারা মুসলিম তারা যেন ধর্মীয় আবেগ আড়ম্বরের সাথে মিলাদুন্নবী পালন করতে গিয়ে সরকারি সিদ্ধান্তের সাথে বিরোধ তৈরি না করি, সেই বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। করোনায়   না মেনে নিজেকে সুরক্ষিত না রাখলে জন¯^াস্থ্যে ঝুঁকি ও হুমকির মুখে পড়তে পারে। তিনি বলেন, ইসলাম আধুনিক ধর্ম। এই ধর্ম প্রযুক্তির সাথে সঙ্গতি রেখে পালন করা যায়। প্রধান নির্বাহী মুসলিমদের ধর্মীয় অনুশাসন মানার পাশাপাশি নিজ ধর্ম সম্পর্কে জ্ঞান আহরণের অনুরোধ করেন।

শেষে দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা ও বৈশ্বিক মহামারী করোনা থেকে দেশের জনসাধারণের রক্ষা এবং সাবেক প্রয়াত মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর রূহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মুনাজাত করা হয়। মুনাজাত পরিচালনা করেন জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মুফতি আল্লামা সৈয়দ অছিয়র রহমান।

0 0

আয়াজ আহমাদ :চট্টগ্রাম-২৯অক্টোবর’২০২০ইং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক আলহাজ্ব মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন ই-পাসপোর্টের জন্য আবেদনকারীদের সঠিক তথ্য উপাত্ত প্রদানের উপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, ফরম পূরণের সময় ভুল তথ্য দিলে পাসপোর্টধারীকে অনাকাক্সিক্ষত বিড়ম্বনা পোহাতে হয়, তাই ধৈর্যের সাথে সঠিক তথ্য দিয়ে ই- পাসপোর্ট এর ফরম পূরণের জন্য তিনি আবেদনকারীদের প্রতি আহবান জানান।

তিনি আজ সকালে মুনসুরাবাদে বিভাগীয় পাসপোর্ট কার্যালয়ে ই-পাসপোর্ট, এম আরপি, পাসপোর্ট আবেদন গ্রহণ ও ডেলিভারি কার্যক্রম পরিদর্শনকালে এ কথা বলেন। প্রশাসকের আগমনে বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসের পরিচালক ও অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। তিনি বিভাগীয় পাসপোর্টের কার্যালয়ের অফিস ব্যবস্থাপনা সহ সামগ্রিক কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেন। প্রবাসীদের পাসপোর্ট প্রাপ্তির ক্ষেত্রে যাতে কোন হয়রানি না হয় সে বিষয়ে অধিকতর মনোযোগী হওয়ার জন্য তিনি বিভাগীয় পাসপোর্ট পরিচালককে অনুরোধ করেন।

কারণ পাসপোর্ট গ্রহীতা দেশের নাগরিকরা বিদেশ ভ্রমনের পাশাপাশি রেমিটেন্সও প্রেরণ করেন। তিনি আরো বলেন, ই-পাসপোর্ট পদ্ধতিতে অনিয়ম ও দালাল চক্রের উৎপাতের সুযোগ নেই। তাই  স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠারও অবকাশ নেই। তারপরও অনিয়ম ও দুর্নীতি বা আইনী কোন ফাঁক-ফোকর যাতে সৃষ্টি না হয় সেদিকেও সজাগ থাকতে হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিস চট্টগ্রামের পরিচালক মোহাম্মদ আবু সাইদ, চসিক প্রশাসকের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম, সহকারী পরিচালক সাধন সাহা সহ পাসপোর্ট কার্যালয়ের কর্মকর্রা-কর্মচারীবৃন্দ।

0 0

ঢাকা, বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০:বাংলাদেশ সংবাদপত্র পরিষদের মহাসচিব ও ঢাকা থেকে প্রকাশিত প্রথম শ্রেণির পত্রিকা দৈনিক সকালবেলা’র সম্পাদক ও প্রকাশক সৈয়দ এনামুল হকের ইন্তেকালে গভীর শোক ও দু:খপ্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

বুধবার বিকেলে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৬৪ বছর বয়সে তার ইন্তেকালের সংবাদে তথ্যমন্ত্রী মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

শোকবার্তায় তথ্যমন্ত্রী বলেন, আজীবন দেশের গণমাধ্যমে অবদান রেখে চলা সৈয়দ এনামুল হক ছিলেন সততা, নিষ্ঠা ও একাগ্রতার প্রতীক।
সাংবাদিকতার সাথে বাংলাদেশ বেতারের দীর্ঘ তিন দশকের ইংরেজি সংবাদ উপস্থাপক হিসেবেও তার অবদানের কথা স্মরণ করেন ড. হাছান মাহমুদ।

সৈয়দ এনামুল হক দীর্ঘদিন যাবত কিডনিজনিত রোগে ভুগছিলেন। তিনি শিক্ষয়িত্রী স্ত্রী ও দুই মেয়েসহ অনেক আত্নীয়স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

0 0

ক্যারাভান কর্মসূচি শেষ করে প্রশাসক ২৬নং হালিশহর ওয়ার্ডের বি-ব্লকের পাশে জাইকার অর্থায়নে চলমান মহেষ খালের সীমানা প্রাচীর, সড়ক উন্নয়ন ও ব্রিজের নির্মাণ কাজ ঠিকাদার তিন বছর যাবত বন্ধ করে রেখেছে এসংবাদ শুন তা সরেজমিন পরিদর্শনে যান।

এসময় তিনি কাজ বন্ধ থাকায় স্থানীয় জনগণের অভিযোগ শুনে ঠিকাদারের সাথে কথা বলেন। ঠিকাদার আগামী বুধবারের মধ্যে কাজের দৃশ্যমান অগ্রগতি হবে বলে প্রশাসককে কথা দেন।

উল্লেখ্য মহেশ খালের এই সীমানা প্রাচীর, সড়ক উন্নয়ন, আরসিসি তিনটি ব্রিজ, ড্রেন নির্মাণে জাইকা চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনকে ৩৭ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। জাইকার প্রকৌশলীদের সূত্রে জানা যায় এর মধ্যে মোট ২২শ ৩৭ মিটারের মধ্যে ৯শ ১০ মিটার আরসিসি সীমানা প্রাচীরের ৬৭০ মিটারে মধ্যে ৪৭০ মিটার আরসিসি ড্রেন ও তিনটি গার্ডার ব্রিজের ডেক ¯ø্যাবের কাজ সম্পন্ন হয়েছে ।

এসময় কর্পোরেশনের প্রকৌশলীগণসহ জাইকার সিনিয়র প্রকৌশলী নাছির উদ্দিন ও প্রকৌশলী ফারুক হোসেন প্রশাসকের সাথে ছিলেন।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য,
তরুণ আইনজীবী, বীর চট্টলার কৃতি সন্তান ব্যারিস্টার মীর মোহাম্মদ হেলাল
উদ্দিন’র মুক্তি দাবি করেছেন জাতীয়তাবাদী যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির
চট্টগ্রাম বিভাগীয় সহ-সভাপতি ও চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সভাপতি মোশাররফ
হোসেন দীপ্তি ও জাতীয়তাবাদী যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির চট্টগ্রাম বিভাগীয়
সহ-সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ
শাহেদ।

আজ এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, ১/১১’র জরুরী অবস্থার অনৈতিক সরকার দেশকে
বিরাজনীতিকরণের অংশ হিসেবে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও তাদের পরিবারের সদস্য
এবং নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দায়ের
করে। এরই অংশ হিসেবে বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান, সাবেক মন্ত্রী মীর
মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন ও তাঁর ছেলে তরুণ আইনজীবী ব্যারিস্টার মীর
মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়। সে সময়
অন্যায়ভাবে তাঁদেরকে আটকও করা হয়। মামলা চলাকালে তাঁদের আইনজীবীগণ
আইনগতভাবে মামলা মোকাবেলা করলেও কোন বক্তব্য আমলে না নিয়ে সরকারী নীল
নকশা অনুযায়ী একতরফা রায় ঘোষণা করা হয়। পরবর্তীকালে উচ্চ আদালতে আপিল করা
হলেও ১/১১’র জরুরী অবস্থার অনৈতিক সরকারের ধারাবাহিকতায় বর্তমান সরকার
বিএনপি নেতৃবৃন্দকে রাজনীতি ও নির্বাচন থেকে দুরে রাখার সুদুরপ্রসারী
পরিকল্পনার অংশ হিসেবে অ্যাটর্নি জেনারেলের অফিসকে ব্যবহার করে
ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মীর নাসির ও মীর হেলালের আপিলের তীব্র প্রতিবন্ধকতা
সৃষ্টি করা হয়। আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে ব্যারিস্টার মীর মোহাম্মদ
হেলাল উদ্দিন গত ২৭ অক্টোবর আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এই মামলায় দীর্ঘদিন
কারাবাসও করেন। নিন্ম আদালত এই ধরনের মামলায় শাসকগোষ্ঠীর নেতা-কর্মীদের
জামিন দেয় অথচ বিএনপি’র বেলায় উল্টো জেল হাজতে প্রেরণ করে। আদালত আজ
আওয়ামী নগ্ন হস্তক্ষেপের শিকার।

নেতৃদ্বয়, অবিলম্বে মীর হেলাল’র মুক্তি দাবি করেন। ১/১১’র জরুরী অবস্থার
অনৈতিক সরকার আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা দায়ের করলেও
পরবর্তী আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় নিজেদের মামলাগুলো
প্রত্যাহার অথবা নিস্পত্তি করে ফেলে। কিন্তু বিএনপি’র নেতাকর্মীদের
বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলাগুলো সচল রেখে ফরমায়েসী রায় প্রদানের মাধ্যমে
মূলত: ১/১১ সরকারের বিরাজনীতিকরণ প্রক্রিয়া বাস্তবায়নের পথেই হাঁটছে, যা
সুষ্ঠু রাজনীতির পরিপন্থী। বাকশালী আওয়ামী লীগ সরকারের এই দ্বিমূখী ও
ষড়যন্ত্রমূলক আচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ এবং এ ধরনের অপতৎপরতা
বন্ধের আহবান জানানো হয়।