ইরানের ‘অবৈধ অস্ত্র পাচার’ নিয়ে মুখ খুললেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত

ইরানেরঅবৈধ অস্ত্র পাচারনিয়ে মুখ খুললেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত

সিটিজিট্রিবিউন: ইরান থেকে আসা ‘অবৈধ অস্ত্রই’ ইয়েমেনের গৃহযুদ্ধে হুথি বিদ্রোহীদের রসদ জোগাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত  লিন্ডা টমাস গ্রিনফিল্ড।  আরব নিউজ এক প্রতিবেদনে এ খবর নিশ্চিত করেছে।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে বুধবার তিনি বলেন, যখন আমরা শান্তিকে উৎসাহিত করি, তখন আমাদের অবশ্যই এমন কাজ করতে ভয় পাওয়া উচিত নয় যা শান্তির ব্যাপারে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। হুথিদের এই সহিংসতা  কেবল শান্তি বিঘ্নিতই করছে।

তিনি বলেন, শুধু গত মাসেই মার্কিন নৌবাহিনী ইরান থেকে আসা এক নৌযান থেকে ১৪শ রাইফেল ও দুই লাখ ২৬ হাজার গুলি জব্দ করেছে।

লিন্ডা আরও বলেন, ওই ইরানি জাহাজ যে রুট ধরে আসছিল ওই রুট সাধারণত হুথিরা অস্ত্র পাচারের জন্য ব্যবহার করে। ইরান থেকে হুথিদের কাছে অস্ত্র চোরাচালান জাতিসংঘের নির্দেশিত অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার স্পষ্ট লঙ্ঘনের বিষয়ই তুলে ধরে। এবং ইরান যেভাবে অস্থিতিশীল কার্মকাণ্ডের মাধ্যমে ইয়েমেনের গৃহযুদ্ধকে দীর্ঘায়িত করছে এটা তারই আরেকটি উদাহরণ।

এদিকে, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা ইয়েমেনে হুথিদের অব্যাহত হামালার নিন্দা জানিয়েছে। ২০১৪ সাল থেকে ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহী যোদ্ধা এবং সৌদিজোটের মধ্যে যুদ্ধে ইয়েমেন ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। ২০২১ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত এই যুদ্ধে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে ৩ লাখ ৭৫ হাজার মানুষ নিহত হয়েছেন। মানবিক সহায়তা প্রয়োজন ৩ কোটির বেশি মানুষের। ২০১৫ সালে জাতিসংঘ হুথি বিদ্রোহীদের ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।
।প্রতিবেদন:কেইউকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.