প্রথম আলাপে মাদক খাইয়ে মিলিত হন! নতুন অভিযোগে আবার আলোচনায় অ্যাম্বার-জনির মামলা

প্রথম আলাপে মাদক খাইয়ে মিলিত হন! নতুন

অভিযোগে আবার আলোচনায় অ্যাম্বার-জনির মামলা

সিটিজিট্রিবিউন: জনি ডেপ আর অ্যাম্বার হার্ডের দাম্পত্যের অবসান ঘটেছে আগেই। তাঁদের সম্পর্কের ভয়াবহতা এখন গোটা পৃথিবী জানে। মামলায় জনির কাছে হেরে গিয়েছেন অ্যাম্বার। আদালত মতামত জানিয়ে দিলেও এ বার প্রকাশ্যে আসছে অন্য তথ্য। আদালতে জনির বিপক্ষে পেশ করা অধিকাংশ নথিই যে খুলে দেখা হয়নি, তা-ও জানা গিয়েছে সম্প্রতি।

এত দিন পর জানা গেল, অ্যাম্বার একা নন, জনির বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন নায়কের প্রাক্তন প্রেমিকা এলেন বারকিনও। এলেনের অভিযোগ ছিল, প্রথম যে বার জনির সঙ্গে মিলিত হয়েছিলেন, অজান্তেই তাঁকে মাদক সেবন করিয়েছিলেন জনি। কী ভাবে এই খবর জানাজানি হল? দু’মাস আগেই গার্হস্থ্য হিংসার মামলায় অ্যাম্বার হার্ডের হার হয়েছে। জিতে গিয়েছেন জনি ডেপ। ১১৭ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ দিয়েছেন অ্যাম্বার। সেই ফলাফল মনঃপূত না হওয়ায় অ্যাম্বারের অনুরাগীরা নিজেদের খরচে মামলার নথিপত্র আবার খুলে দেখার আবেদন জানিয়েছিলেন। আর তাতেই গোটা ঘটনার মোড় ঘুরে যায়। দেখা যায় প্রাক্তন স্ত্রীর বিরুদ্ধে ভুয়ো তথ্য জমা দিয়েছিলেন ‘পাইরেটস্ অব দ্য ক্যারিবিয়ান’ অভিনেতা।

ছ’হাজার পাতার মামলার নথি খুলে দেখার সময় অভিনেত্রী তথা জনির প্রাক্তন বান্ধবী এলেনের বয়ানও প্রকাশ্যে এসেছে। এলেন অভিযোগ জানিয়ে যাতে লিখেছেন, ‘অধিকাংশ হেনস্থাকারীর’ মতো ‘অবিশ্বাস্য রকম আকর্ষণীয়’ জনি। তাঁর কথায়, ‘‘প্রথম আলাপে মাদক খাইয়ে (কোয়ালুড) জনি জিজ্ঞেস করেছিল, আমি সঙ্গম চাই কি না।’ ২০১৮ সালে অভিনেত্রী অ্যাম্বার হার্ড গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ আনেন জনি ডেপের বিরুদ্ধে। এর পরেই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেন জনি। আদালতের জুরি সদস্যরা জানান, অ্যাম্বার গার্হস্থ্য হিংসার যে অভিযোগ জনির বিরুদ্ধে এনেছিলেন তা মিথ্যা এবং অবমাননাকর। পাশাপাশি জনির বিরুদ্ধে গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ আনার পিছনে অ্যাম্বারের অসৎ উদ্দেশ্য ছিল বলেও জানিয়েছিল আদালত। কিন্তু এখন পরিস্থিতি আবার অন্য দিকে মোড় নিচ্ছে। অ্যাম্বার কি তা হলে আবার আইনি পদক্ষেপ করবেন? প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে অনুরাগীদের মধ্যে।প্রতিবেদন:কেইউকে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.