কৃত্রিম যানজট – দূর্গাপুরের পৌর মেয়রের সহকারীকে অপহরণের চেষ্টা, বাকলিয়ায় গ্রেপ্তার ৫

কৃত্রিম যানজট – দূর্গাপুরের পৌর মেয়রের সহকারীকে অপহরণের চেষ্টা, বাকলিয়ায় গ্রেপ্তার ৫

 

সিটিজি ট্রিবিউন, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 

কক্সবাজার থেকে ফেরার পথে নেত্রকোনা দূর্গাপুরের পৌর মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস) সাগর খাঁনকে (২০) কৃত্রিম যানজট সৃষ্টি করে চট্রগ্রাম থেকে ‘অপহরণের’ চেষ্টা করলে যাত্রীদের বাধায় ভেস্তে যায়; পরে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে বাকলিয়া থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) তাদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রামের বাকলিয়া থানার সেকেন্ড অফিসার। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন— মো. আলী আকবর (২৪), শহিদুল ইসলাম শাহীন (২৫), মো. রবিন (২৫), মো. আরাফাত (২২) এবং মো. মিনহাজ (২১)। 

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এর আগে গত ৩০ জুলাই নেত্রকোণার দুর্গাপুর পৌরসভার মেয়র মো. আলাউদ্দিনের পরিবারের সঙ্গে ব্যক্তিগত সহকারী সাগর খাঁন তাঁর আত্মীয় স্বজন ও এলাকার লোকজন নিয়ে কক্সবাজার বেড়াতে যান। কিন্তু গতকাল বুধবার ভ্রমণ শেষে কক্সবাজার থেকে ফেরার পথে বাকলিয়া থানার তুলাতলী এলাকায় কৃত্রিম যানজট সৃষ্টি করে তাদের বাসটি থামায় অপহরণকারীরা। 

আরো জানা যায়, বাসযাত্রী মেয়রের সহকারী সাগর খাঁনকে খোঁজ করতে থাকেন তাঁরা। এ সময় মেয়রের সহকারী সাগর পরিচয় দেয়ার সাথে সাথে তাঁর পরনের গেঞ্জি ধরে তাকে বাস থেকে টেনে-হিঁচড়ে মারধর করা হয়। এক পর্যায়ে গাড়ি থেকে জোরপূর্বক নামিয়ে অপহরণ করে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু সাগর খাঁনের চিৎকারে গাড়িতে থাকা যাত্রীরা আসামিদের বাঁধা দেন এবং আকবরকে আটকে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আকবরের তথ্যমতে শাহীন, মিনহাজ, আরাফাত ও রবিনকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রহিম বলেন, ‘ঘটনার পর আমাদের জানালে একটি টিম ঘটনাস্থলে যায়। পরে তাদের অভিযোগ শুনে বাসের অন্যান্য যাত্রীর সঙ্গে কথা বলেন। পাশাপাশি ঘটনাস্থলের আশপাশের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করেন। পরে এ ঘটনায় সাগর খাঁন ৪ আগস্ট বাদি হয়ে বাকলিয়া থানায় মামলা করেন। মামলা দায়েরের পর বাকলিয়া থানা পুলিশ চট্টগ্রাম মহানগরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে। ঘটনার সময় ১০ থেকে ১২ জন ছিল। জড়িত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদেরও গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.