শ্রীপুর এলাকায় চাঞ্চল্যকর গৃহবধু স্মৃতি হত্যার রহস্য উদঘাটন আসামী ধানমন্ডি হতে গ্রেফতার র‍্যাব-১

শ্রীপুর এলাকায় চাঞ্চল্যকর গৃহবধু স্মৃতি হত্যার রহস্য উদঘাটন আসামী ধানমন্ডি হতে গ্রেফতার র‍্যাব-১

 

আয়াজ সানি সিটিজি ট্রিবিউন ঢাকা;

 

গত ২৮ জুন ২০০২২ তারিখ আনুমানিক ০৫:০০ টার সময় গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানাধীন বারতোপা সাকিনস্থ ভিকটিম খাদিজা বেগম স্মৃতি(২২) এর ভাড়া বাসা থেকে ভিকটিমের লাশ শ্রীপুর থানা পুলিশ উদ্ধার করে।

এই ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। পরবর্তীতে এই মৃতদেহের মৃত্যু রহস্য এবং প্রকৃত ঘটনা উম্মোচনের জন্য র‍্যাব-১ ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং এটি একটি হত্যাকান্ড হতে পারে ধারণা করে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

০৪ আগস্ট ২০২২ তারিখ আনুমানিক ০৩:৩০ টায় র‍্যাব-১ উত্তরা, ঢাকার একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজধানীর ধানমন্ডি থানাধীন গ্রীনরোড,

কাঠালবাগান এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে নিহতের স্বামী মোঃ জাহিদুল ইসলাম (২৭),জেলা-গাজীপুর’কে গ্রেফতার করে। এ সময় আসামীর নিকট হতে ০১ টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামী বর্ণিত হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। এসংক্রান্তে ভিকটিমের পরিবার গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন,

গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায় যে, আসামী জাহিদুল ইসলামের সাথে ভিকটিম খাদিজা স্মৃতির (২২) প্রায় ০১ বছরের প্রেম ছিল এবং গত ঈদুল ফিতরের আগের দিন তারা পারিবারিক ভাবে বিবাহ করে। বিবাহের পর প্রথমে তাদের মধ্যে সৌহার্দ্য সম্পর্ক থাকলেও কিছুদিন পর তাদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মনোমালিন্য সৃষ্টি হয়।

আসামী জাহিদুল ইসলাম এর ভাষ্যমতে তার স্ত্রী ভিকটিম খাদিজা বেগম স্মৃতি বিভিন্ন জনের সাথে অবৈধ অনৈতিক সম্পর্কে জড়িত আছে মর্মে সন্দেহ করে। বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে বিভিন্ন সময় ঝগড়া বিবাদ হয়। গত ২৮ জুন ২০২২ তারিখ আনুমানিক ১০০০ ঘটিকায় তাদের মধ্যে ঝগড়া ও হাতাহাতি হয়।

ঝগড়ার এক পর্যায়ে ধৃত আসামী জাহিদুল ইসলাম ভিকটিম খাদিজা বেগম স্মৃতির গলা চেপে ধরে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে পালিয়ে যায় মর্মে স্বীকার করে।

গ্রেফতারকৃত আসামীকে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.