Home আইন ও আদালত পৃথক দুটি অভিযানে ০১ কোটি ৪৩ লক্ষ ৩০ হাজার টাকার ২৮,৬৬০ পিস...

পৃথক দুটি অভিযানে ০১ কোটি ৪৩ লক্ষ ৩০ হাজার টাকার ২৮,৬৬০ পিস ইয়াবা উদ্ধারসহ ০২ জন আটক. র‍্যাব-৭

পৃথক দুটি অভিযানে ০১ কোটি ৪৩ লক্ষ ৩০ হাজার টাকার ২৮,৬৬০ পিস ইয়াবা উদ্ধারসহ ০২ জন আটক. র‍্যাব-৭

আয়াজ সানি সিটিজি ট্রিবিউন চট্টগ্রাম:

চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া থানাধীন পটিয়া বাইপাস এলাকায় পৃথক দুটি অভিযান পরিচালনা করে আনুমানিক ০১ কোটি ৪৩ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা মূল্যের ২৮,৬৬০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ী’কে আটক করেছে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম; মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি ট্রাক জব্দ।

র‍্যাব-৭,চট্টগ্রাম অদ্য ২০ জুলাই ২০২১ চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া থানাধীন পটিয়া বাইপাস এলাকায় পৃথক দুটি অভিযান পরিচালনা করে আনুমানিক ০১ কোটি ৪৩ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা মূল্যের ২৮,৬৬০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ী’কে আটক করেছে র‍্যাব-৭,চট্টগ্রাম; মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি ট্রাক জব্দ। নিম্নে বিস্তারিত উল্লেখ করা হলোঃ

র‍্যাব-৭,চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী একটি ট্রাক যোগে বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্য নিয়ে কক্সবাজার হতে চট্টগ্রাম শহরের দিকে আসছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে অদ্য ২০ জুলাই ২০২১ ০২:২০ টায় র‍্যাব-৭,এর একটি চৌকস আভিযানিক দল চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া থানাধীন পটিয়া বাইপাস ইন্দ্রপুল মোড়স্থ কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি শুরু করে।

এসময় র‍্যাবের চেকপোস্টের দিকে আসা একটি ট্রাকের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে র‍্যাব- সদস্যরা ট্রাকটিকে থামানোর সংকেত দিলে ট্রাকটি র‍্যাবের চেকপোস্টের সামনে থামিয়ে চালক গাড়ি থেকে নেমে দৌড়ে পালানোর চেষ্টাকালে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে চালক আসামী মোঃ পারভেজ (২২), পিতা- মোঃ আনোয়ার হোসেন, সাং- আটদিয়া, থানা-মুকসেদপুর, জেলা-গোপালগঞ্জ, বর্তমানে- বউবাজার, ১২নং ওয়ার্ড, থানা-পাহাড়তলী, সিএমপি, চট্টগ্রাম’কে আটক করে।

পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেখানোমতে নিজ হেফাজতে থাকা চালকের সিটের পিছনে বিশেষ কায়দার রক্ষিত অবস্থায় ২০,৬০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আসামি’কে গ্রেফতার করা হয় এবং উক্ত ট্রাকটি (ফেনী-ট-০৫-০০৮২) জব্দ করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়,

সে দীর্ঘ দিন যাবৎ কক্সবাজার জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে পরবর্তীতে বিভিন্ন কৌশলে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীদের নিকট বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ০১ কোটি ০৩ লক্ষ টাকা এবং জব্দকৃত কাভার্ড ভ্যানের আনুমানিক মূল্য ০১ কোটি টাকা।

অপর একটি গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাব-৭,চট্টগ্রাম জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী একটি যাত্রীবাহী বাসযোগে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য নিয়ে কক্সবাজার হতে চট্টগ্রামের দিকে আসছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে অদ্য ২০ জুলাই ২০২১ ইং তারিখ ০১১৫ ঘটিকায় র‍্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া থানাধীন পটিয়া বাইপাস ইন্দ্রপুল মোড়স্থ কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল¬াশি শুরু করে।

এ সময় র‍্যাবের চেকপোস্টের দিকে আসা কক্সবাজর হতে ঢাকাগামী ‘‘সোহাগ এলিট পরিবহন” এর একটি বাসকে তল্লাশীর জন্য থামানোর সংকেত দিলে বাসের চালক বাসটিকে র‍্যাবের চেকপোস্টের সামনে থামায়।

বাসটি র‍্যাবের চেকপোস্টের সামনে থামানোর সাথে সাথে র‍্যাব-সদস্যরা গাড়ি তল্লাশীর উদ্দেশ্যে উক্ত যাত্রিবাহী বাসে উঠে সিটে বসে থাকা সকল যাত্রীদের গতিবিধি অবলোকন করে এবং উক্ত বাসের একজন যাত্রীর গতিবিধি ও কথাবার্তায় সন্দেহভাব প্রকাশ পাওয়ায় র‌্যাব সদস্যরা আসামি মোঃ হাসিবুজ্জামান (৪২), পিতা-মৃত আব্দুল হাকিম, সাং-বেলীশ্বর, থানা-ধামরাই, জেলা-ঢাকা’কে আটক করে।

পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তার দেখানো ও শনাক্ত মতে নিজ নিজ হেফাজতে থাকা ট্রাভেল ব্যাগের ভিতর সু-কৌশলে লুকানো অবস্থায় ৮,০৬০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আসামীকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়, সে দীর্ঘদিন যাবত কক্সবাজর সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে পরবর্তীতে বিভিন্ন কৌশলে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মাদক ব্যবসায়ী কাছে বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ৪০ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা।

গ্রেফতারকৃত আসামি এবং উদ্ধারকৃত মালামাল সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া হস্তান্তর করা হয়েছে।

NO COMMENTS

Leave a Reply