Home আইন ও আদালত র‍্যাব-৮,হাতে গোপালগঞ্জ সদর হতে বিরল প্রজাতির তক্ষক ও প্রাচীন মুদ্রাসহ চোরাচালান চক্রের...

র‍্যাব-৮,হাতে গোপালগঞ্জ সদর হতে বিরল প্রজাতির তক্ষক ও প্রাচীন মুদ্রাসহ চোরাচালান চক্রের ০৪ সদস্য গ্রেফতার

র‍্যাব-৮,হাতে গোপালগঞ্জ সদর হতে বিরল প্রজাতির তক্ষক ও প্রাচীন মুদ্রাসহ চোরাচালান চক্রের ০৪ সদস্য গ্রেফতার
আয়াজ সানি সিটিজি ট্রিবিউন
এলিট ফোর্স র‍্যাব-তার সৃষ্টির সূচনালগ্ন থেকেই সন্ত্রাস, চাঁদাবাদ, চোরাচালান, মাদক ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষন আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আপোষহীন অবস্থানে থেকে নিরলস ভাবে কাজ করে আসছে।র‍্যাবের তথা আইন-শৃংখলা বাহিনী নিয়মিত বন্য প্রানী সংরক্ষন আইন ২০১২ বাস্তবায়ন ও চোরাচালন রোধকল্পে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে যা সারাদেশব্যাপী সমাদৃত।
।র‍্যাব-৮, মাদারীপুর গোয়েন্দা নজরদারীর মাধ্যমে একটি চোরাচালান চক্রের সন্ধান পায় এবং তাদেরকে গ্রেফতারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করতে তৎপরতা শুরু করে।
র‍্যাব-৮,, সিপিসি-৩ মাদারীপুর কোম্পানীর একটি বিশেষ আভিযানিক দল ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, গোপালগঞ্জ জেলার সদর থানাধীন বেদভিটা গ্রামস্থ জনৈক শোভাবর ওরফে রেখাবর(৬২), স্বামী-কালিপদ বর এর বসত বাড়িতে কতিপয় চোরাচালান চক্রের সদস্য অবস্থান করিতেছে।
উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে কোম্পানী অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লীডার মোহাম্মদ সাদেকুল ইসলাম এবং স্কোয়াড কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জমির উদ্দীন আহমেদ এর নেতৃত্বে ১৪ জুলাই ২০২১ তারিখ ০৬.৪০ টার সময় গোপালগঞ্জ জেলার সদর থানাধীন বেদভিটা গ্রামস্থ জনৈক শোভাবর ওরফে রেখাবর(৬২), স্বামী-কালিপদ বর এর বসত বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে চোরাচালান চক্রের সদস্য
১। পান্নু শিকদার(৩৫), পিতাঃ আয়নাল শিকদার, মাতাঃ মৃতা বেলু বেগম, সাং-ভেন্নাবাড়ী(০৭নং ওয়ার্ড), থানা ও জেলা গোপালগঞ্জ, ২। শোভাবর ওরফে রেখাবর(৬২), স্বামীঃ কালিপদ বর, সাং-বেদভিটা(০৫নং ওয়ার্ড), ৩। বিদ্যারতন বিশ্বাস(৫০), পিতাঃ মৃত মোহিনী মোহন বিশ্বাস, মাতাঃ মৃতা কনকলতা বিশ্বাস, সাং-সাতপাড়(০৩নং ওয়ার্ড), ৪। বিপুল বিশ্বাস(৪২), পিতাঃ মৃত নিহার বিশ্বাস, মাতাঃ মৃতা আমদী বিশ্বাস, সাং- ভেন্নাবাড়ী(ওয়ার্ড-০৭), সর্ব থানাঃ ও জেলাঃ গোপালগঞ্জগণ’কে বন্যপ্রানী তক্ষক ও প্রাচীন মুদ্রা(কয়েন)সহ হাতে নাতে আটক করা হয়।
আটককৃত আসামীদের নিকট হতে ০১টি বিরল প্রজাতির তক্ষক, ০৩টি ধাতব প্রাচীন মুদ্রা, ০৫টি মোবাইল এবং ০৭টি সীমকার্ড উদ্ধার করা হয়।
আটককৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ ও স্থানীয় লোকজনের নিকট হতে জানা যায় যে, ধৃত আসামীরা চোরাচালান চক্রের সদস্য। তারা দীর্ঘদিন ধরে দেশের বিভিন্ন এলাকা হতে বিরল প্রজাতির সরীসৃপ প্রাণী তক্ষক, মুল্যবান ধাতব মুদ্রা সহ বিভিন্ন মুল্যবান বস্তু সংগ্রহ করিয়া অবৈধ উপায়ে লাভবানের উদ্দেশ্যে অবৈধভাবে দেশের বাহিরে পাচার করিয়া আসিতেছে।
আসামীদেরকে উদ্ধারকৃত আলামতসহ গোপালগঞ্জ জেলার সদর থানায় হস্তান্তর করা প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।
র‍্যাব-৮ এর এধরনের কার্যক্রম ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।

NO COMMENTS

Leave a Reply