Home চট্টগ্রাম ইউএসটিসি সেবামুলক প্রতিষ্ঠান শ্রদ্ধাবোধের জয়গায় আইনের বাইরে যেতে পারবো’না-কাজী হাসান বিন শামস

ইউএসটিসি সেবামুলক প্রতিষ্ঠান শ্রদ্ধাবোধের জয়গায় আইনের বাইরে যেতে পারবো’না-কাজী হাসান বিন শামস

0 0

ইউএসটিসি সেবামুলক প্রতিষ্ঠান শ্রদ্ধাবোধের জয়গায় আইনের বাইরে যেতে পারবো’না-কাজী হাসান বিন শামস

মোঃআলাউদ্দীন সিটিজি ট্রিবিউন চট্টগ্রাম ;

চট্টগ্রামে স্বনাম ধন্য হাসপাতাল ইউএসটিসির ভবন ভাঙ্গা নিয়ে বিতর্ক চলে আসছে অনেকদিন ধরে যা এখন কোর্ট পর্যন্ত গড়িয়েছে। এই ব্যাপারে সিটিজি ট্রিবিউন ইউএসটিসির উপ-উপাচার্য্য জাহাঙ্গীর আলমের একটি সাক্ষাৎকার সরাসরি লাইভে নেওয়া হয়েছিলো,

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সিডিএর বক্তব্য নেওয়ার জন্য হাজির হয়েছিলাম সিটিজি ট্রিবিউনের পক্ষে প্রধান প্রকোশলী কাজী হাসান বিন শামসের অফিসে তিনি জানালেন তার কথা নিন্মে তা তুলে ধরাহলো ।

সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন সিটিজি ট্রিবিউনের বার্তা- সম্পাদক ও পরিচালক কামাল উদ্দিন খোকন এবং নির্বাহী সম্পাদক আয়াজ আহম্মেদ (সানী)

সিটিজিট্রিবিউন : ইউএসটিসি কর্তৃপক্ষ বলছে তারা রেলের কাছ ধেকে ২০০২ সালে জায়গা লীজ নিয়ে এবং আপনাদের সিডিএর অনুমোদন নিয়ে তারা সেখানে ভবন নির্মান করেছে সেখানে তারা বাড়তি কোন জায়গা দখল করেনি । আপনার তাদের ভবনটি অবৈধভাবে ভাঙ্গছেন ।

হাসান বিন শামস :দেখুন ইউএসটিসি একটি সেবামুলক প্রতিষ্টান এটার প্রতি আমাদের যতেস্ট শ্রদ্বাবোধ আছে তার মতে আমরা কখনো আইনের বাইরে যেতে পারবো না ।তাদেরকে আমরা অনুমোদন দিয়েছি ঠিক আছে, তারা একদাগের জায়গা লীজ নিয়ে অন্য দাগের জায়গা দখল করে ভবন করেছে । যেটা এক সময় বধ্যভুমি ছিলো এবং তা ছিলো খাস জায়গা।

সিটিজিট্রিবিউন: দীর্ঘ ১৮বছর ধরে আপনারা কিছু করলেন না, খবরও রাখেননি। আজ এতো বছর পরে এসে আবার কেন ভাঙ্গা হচ্ছে।

হাসান বিন শামস: আমাদের জাতীয় অধ্যাপক প্রয়াত নুরুল ইসলাম একজন শ্রদ্বাভাজন ব্যাক্তি এবং জাতির পিতার ব্যাক্তিগত চিকিৎসক ছিলেন তিনি একটি সেবামুলক প্রতিষ্টান করছেন সে জন্য আমরা মাথা ঘামায় নি । পরে যখন জলবদ্বতার প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে গেলাম তখন থলের বিড়াল বেরিয়ে আসলো।

আমরা জানি,এটা রেলের থেকে লীজ নেয়া হয়েছে,তাই আমরা প্রথমে রেলওয়েকে চিঠি লিখি তারা আমাদের প্রতি উত্তরে জানায়,তারা যে জায়গায় ভবন করেছে সে দাগের জায়গা তারা ইউএসটিসিকে লীজ দেয় নাই ।

পরে এই বিষয়ে আমরা ইউএসটিসিকে চিঠি দেই। তারা আমাদের কাছে সময় নেয়, পরে জানায় তারা তা নিজের উদ্যেগে ভাঙ্গা ফেলবে কিন্তু তারা তা করেনি যার কারনে আমরা ভাঙ্গাতে গেলাম ।

ইউটিউব লিংক

সিটিজিট্রিবিউন: এই বিষয়ে তারা হাইকোর্টে আবেদন করে স্টে অর্ডারও এনেছে ।

হাসান বিন শামস:হ্যা ঠিক তারই ধারাবাহিকতায় আদালতের একটি আদেশের কপি আমাদের হাতে দিয়েছে। আমরাও আপীল করেছি । আপীল খারিজ হলে যে কোন সময়ে ভাঙ্গে ফেলা হবে।

NO COMMENTS

Leave a Reply