Home চট্টগ্রাম চসিকের ১৯টি স্থায়ী কমিটির দায়িত্ব পেলেন যারা

চসিকের ১৯টি স্থায়ী কমিটির দায়িত্ব পেলেন যারা

0 0

চসিকের ১৯টি স্থায়ী কমিটির দায়িত্ব পেলেন যারা

সিটিজিট্রিবিউন; চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ষষ্ঠ নির্বাচিত পরিষদের তৃতীয় সাধারণ সভায় ১৯টি স্থায়ী কমিটি গঠিত হয়েছে। রোববার  চসিকের মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এসব কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এতে অর্থ ও সংস্থাপন কমিটিতে কাউন্সিলর মো. ইসমাইল, শিক্ষায় নিছার উদ্দীন আহমেদ মঞ্জু, স্বাস্থ্যে জহর লাল হাজারী, বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় মো. মোবারক আলী, নগর পরিকল্পনায় মো. ওয়াসিম উদ্দীন চৌধুরী, নগর অবকাঠামো নির্মাণে গাজী মো. শফিউল আজিম, পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণে আবুল হাসনাত মো. বেলাল, ক্রীড়ায় আতাউল্লাহ চৌধুরী, পরিবেশে শৈবাল দাশ সুমন, আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক কমিটিতে নাজমুল হক ডিউক, যোগাযোগে আব্দুল বারেক, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনে মো. ইলিয়াস, হিসাব ও নিরীক্ষায় কাজী নুরুল আমিন, সমাজ কল্যাণ ও কমিউনিটি সেন্টারে আবদুস সালাম মাসুম, বাজারমূল্যে মো. আব্দুল মান্নান, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় জহুরুল আলম জসিম, দরিদ্র হ্রাসকরণে মো. সলিমউল্লাহ, পানি ও বিদ্যুৎ কমিটিতে মো. মোর্শেদ আলম, নারী ও শিশুবিষয়ক কমিটিতে জেসমিন পারভীন জেসি দায়িত্ব পেয়েছেন।

মেয়র বলেন, বন্দরভিত্তিক চট্টগ্রাম সমৃদ্ধ না হলে বাংলাদেশ এগোবে না। এ বাস্তবতাকে সামনে রেখে চট্টগ্রামকে একটি বিশ্ব মানের নগরে রূপান্তর করতে চাই। এ ক্ষেত্রে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের যে সম্পদ আছে তা ব্যবহার এবং খালি জায়গাগুলোতে আয়বর্ধক প্রকল্প গ্রহণ করে কারো মুখাপেক্ষী না হয়ে একটি স্বাবলম্বী প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। সেই লক্ষ্য নিয়ে চসিকের নির্বাচিত ষষ্ঠ পরিষদের ১৯টি স্থায়ী কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ প্রক্রিয়াই সংশ্লিষ্টদের মতামত নেওয়া হয়েছে। সুতরাং দায়িত্বপ্রাপ্তদের নিয়ে একটি পরিবার হিসেবে পরিষদের মেয়াদের মধ্যে আধুনিক নগর সাজাতে চাই।

সাধারণ সভা পরিচালনা করেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক। বক্তব্য দেন ভারপ্রাপ্ত সচিব ও প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, মেয়রের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমেদ, অতিরিক্ত প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোশেদুল আলম চৌধুরী প্রমুখ। ।প্রতিবেদন:কেইউকে

 

NO COMMENTS

Leave a Reply