Home চট্টগ্রাম আমার সদস্যরা আমার গর্ব:তাদের পাশেআছি আজীবন থাকবো:ফরিদ

আমার সদস্যরা আমার গর্ব:তাদের পাশেআছি আজীবন থাকবো:ফরিদ

0 0

আমার সদস্যরা আমার গর্ব:তাদের পাশেআছি আজীবন থাকবো:ফরিদ

শনিবার দপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে গিয়েছিলাম সিটিজিট্রিবিউন পরিবারের পক্ষ থেকে তার একটি সাক্ষাৎকার নিতে শত ব্যাস্ততার থাকার পর  তিনি জানালেন আমাদের কে তার কিছু স:খ দু:খের কথা । সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন সিটিজিট্রিবিউন এর পরিচালক বার্তা সম্পাদক কামাল উদ্দিন খোকন ও নির্বাহী সম্পাদক আয়াজ আহম্মেদ সানি ।

নিন্মে তা তুলে ধরা হলো:

সিটিজিট্রিবিউন: অনেক পথ পেরিয়ে আপনি এই পেশায় এসেছেন এখনো এটার সাথে জড়িত আছেন এই বিষয়ে আমাদেরকে কিছূ বলবেন ।

ফরিদ:আসলে আমি যখন প্রাইমারী স্কুলে লখাপড়া করতাম তখন  আমার লেখার প্রতি ঝোক বেশী ছিলো তখন আমি বিভিন্ন পত্রিকায় চিঠিপত্র কলামে লেখতাম । আর তার ছাপা হলে মনে মনে আনন্দ পেতাম বন্ধুদের দেখাতাম তারা আমাকে বেশ উৎসাহ দিতেন ।  আমি যখন ৮৮/৮৯ সালে মোহসীন কলেজে পড়ি তখন আমি নয়াবাংলার আনোয়ারা সংবাদাতা ছিলাম এই কাজে আমাকে উৎসাহ যুগিয়েছে হিরু ভাই খোকন ভাই।

পরে আমি চট্টগ্রাম শহরে এসে ঢাকার পত্রিকা দৈনিক জনতার ব্যুরো প্রধান হিসাবে কাজ করতে  থাকি এর পরে কয়েক বছর ধরে বিএনএস নামে একটি নিউজ এজেন্সীতে কাজ করেছি।পরে ২০০১ সালে যখন চ্যানেল আই যাত্রা শুরু করে সেখানে আমি চট্টগ্রাম প্রতিনীধি হিসাবে কাজ করেছি যেখানে  আমি আসলে এখন আমি ব্যুরো প্রধান হিসাবে এখনো কর্মরত আছি। আমি আসলে সংগঠন পাগল একজন সাংবাদিক আমি বহ সংগঠনের সাখে জড়িত যা বলে শেষ করা যাবেনা । এর পর আমি ধীরে ধীরে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন ও চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের মেন্বার হলাম ।

সিটিজিট্রিবিউন: কোভিট চলাকালনি সময়ে আপনাদের প্রেস ক্লাবের ভুমিকা নিয়ে কিছু বলবেন।

ফরিদ: ধন্যবাদ আসলে এই কোভিট আমাদের দেশে ধরা পড়ে মার্চ মাসে একজন রোগীর মৃত্যৃর পর তখন সরকারের টনক নড়ে এই কোভিট ক্রমেই বাড়তে থাকে । সরকার পরবর্তিতে লক ডাউন দিতে বাধ্য হয় । আমরা চিন্তা করলাম আমাদের অনেক সাংবাদিক অসচ্চল বেকার এবং অনেকেই অসুস্ত আমরা তাদের জন্য কি করতে পারি ।

আমরা কমিটির কর্মকর্তারা মিলে জরুরী বৈঠক ডেকেএকটি মনিটরিং সেল গঠন করলাম যার চেয়ামা্যন ছিলেন ক্লবের সিনিয়রসহসভািপতি সালাউদ্দিন রেজা সহযোগী হিসাবে ছিলেন যুগ্ম সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম সাখে আরো অনেকে ।

আমরা বিভিন্ন দাতা সদস্যদের সহায়তায় আমাদের সদস্যদের জন্য বিভিন্ন সুরক্ষা সামগ্রী সাথে বিভিন্ন উপহার সামগ্রী যেমন চাল ডাল তেল যা প্রতিদিন সংসারে লাগে তা প্রদান অব্যাহত রাখলাম যার মুল নায়ক ছিলেন আমাদের প্রেসক্লাবের বার বারে নির্বাচিত সভাপতি আলহাজ্ব আলী  আব্বাস । এবার্ও রোজার আগে আমরা সে ধারা অব্যাহত রেখে সবাইকে উপহার সামগ্রী প্রদান করেছি ।

আমরা আশা করছি আগামী ঈদের আগে আমাদের সদস্যদের জন্য আরো কিছু দেবার । আমরা কতটুকু করতে পেরেছি জানিনা এটা মুল্যায়ন করবে আমাদের সাধারন সদস্যরা ।তবে আমাদের বড় সাফল্য হলো কোভিট কালীন সময়ে আমরা ব্র্যাকের সহায়তায় আমাদের ক্লাবে করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছি যা এখনো চলমান আছে।

সিটিজিট্রিবিউন: আপনি ক্লবের নির্বাচনে বারে নির্বাচিত হন এর কারন কি ।

ফরিদ: আসলে এটা আমি নিজেও জানিনা সদস্যরা কেনো আমাকে এতো ভালো বাসে । আমি প্রথমে সদস্য পদে নির্বাচন করি বিপুল ভোটে জয়লাভ করি এর পর যুগ্মসম্পাদক পদে দুদুবার বিপুল ভোটে জয়লাভ করি । পরে সাধারন সম্পাদক পদে্ও দুবার সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে জয়লাভ করি । এখনো আসি সাধারন সম্পাদকের পদে দায়িত্ব পালন করে আসছি।

সিটিজিট্রিবিউন:সদস্যদের সেবা করতে গিয়ে আপনি নিজেই কোভিট আক্রান্ত হয়েছিলেন এই বিষয়ে কিছু বলবেন ?

সিটিজিট্রিবিউন::আসলে আমি বুজতে পারিনি আমি কোভিট পজিটিভ পরে যখন পরীক্ষা করালাম তখন কোভিট ধরা পড়লো  আমি সাথে সাথে আই সোলিয়সনে চলে গেলাম আমার সাথে আরো ডাক্তার ছিলো যারা কোভিট পজিটিভ ছিলো ।পরে বিভিন্ন ডাক্তারের পরামর্শক্রমে আমি কোভিট মুক্তহলাম। তবে এখন যারা কোভিট পজিটিভ হচ্চেন তাদের ভয়ের কোন কারন নেই । ভয় হচ্চে কোভিটের জম । আর এর জন্য প্রতিদিন তিন চার বার গরম পানিরং এলাচি হলুধ গুড়ািআদা দিয়ে গারগিল করলে কোভিট চলে যেতে বাধ্য হবে ।

সিটিজিট্রিবিউন: এবার আপনার পারিবারিক জীবন সম্পার্কে বলুন ।

ফরিদ:আসলে বলতে গেলে আমার সুখি পরিবার আমার দুই ছেলে এক মেয়ে ।মুলত আমার সংসার দেখা শুনা বেশি আমার স্ত্রী জেসমীন আক্তার ডলি।আমি সাংবাদিক পিছনে ছুটি ও সংসার চালায় ও না থাকলে আমি অসহায়।

অনেক কষ্ট করে আমাদের সময় দেয়ার জন্য আপনাকে  ধন্যবাদ ।

পরিশেষে তিনি সিটিজিট্রিবিউন কে ,সিটিজিট্রিবিউন পরিবার কে ও সিটিজিট্রিবিউন এর টিম কে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান,

NO COMMENTS

Leave a Reply