Home আইন ও আদালত ০৩ কোটি ৮৫ লক্ষ টাকা মূল্যের ০৩ কেজি ৮৫০ গ্রাম আফিম উদ্ধারসহ...

০৩ কোটি ৮৫ লক্ষ টাকা মূল্যের ০৩ কেজি ৮৫০ গ্রাম আফিম উদ্ধারসহ ০১ জন আটক

আয়াজ আহমাদ;

বান্দরবান পার্বত্য জেলার থানচি থানাধীন থানচি সদর ইউপির জিরো পয়েন্ট এলাকায় বান্দরবান সেনা রিজিয়ন ও র‍্যাব-৭,চট্টগ্রাম এর যৌথ অভিযানে আনুমানিক ০৩ কোটি ৮৫ লক্ষ টাকা মূল্যের ০৩ কেজি ৮৫০ গ্রাম আফিম উদ্ধারসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে।

র‍্যাব-৭ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃঙ্খলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।র‍্যাব-৭,চট্টগ্রাম; অস্ত্রধারী সস্ত্রাসী, ডাকাত, ধর্ষক, চাঁদাবাজ,

সন্ত্রাসী, খুনি, বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার, মাদক উদ্ধার, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করায় সাধারণ জনগনের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

র‍্যাব-৭ চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী বান্দরবান পার্বত্য জেলার থানচি থানাধীন ০৩নং থানচি সদর ইউপিস্থ জিরো পয়েন্ট তিন রাস্তার মোড় এলাকায় নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য কথিত আফিম ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে।

উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে গত ১৭ এপ্রিল ২০২১ ইং তারিখ ১৪১০ ঘটিকায় বান্দরবান সেনা রিজিয়ন ও র‍্যাব-৭ চট্টগ্রাম এর যৌথ অভিযান পরিচালনা করলে যৌথ বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে যৌথ বাহিনীর সদস্যরা আসামি মউসিং ত্রিপুরা (৩৭),

পিতা- অংথহা ত্রিপুরা, সাং- কমলা বাগান উন্নয়ন বোর্ড পুনর্বাসন, থানা-রুমা, বর্তমান ঠিকানা- মাংলুং হেডম্যান পাড়া, ০২নং ওয়ার্ড, ০২নং তিন্দু ইউপি, থানা- থানচি, জেলা- বান্দরবানকে আটক করে। পরবর্তীতে উপস্থিত স্বাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে তার দেখানো ও শনাক্ত মতে তার হাতে থাকা একটি প্লাষ্টিকের বস্তার ভিতর সুকৌশলে লুকানো অবস্থায় ০৩ কেজি ৮৫০ গ্রাম আফিম উদ্ধার করা হয়।

আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায় যে, সে দীর্ঘদিন যাবত দূর্গম পাহাড়ি অঞ্চলে নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য কথিত আফিম উৎপাদন সহ প্রক্রিয়াজাত করে পাইকারী মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকের আনুমানিক মূল্য ০৩ কোটি ৮৫ লক্ষ টাকা।

গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্য সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে বান্দরবান পার্বত্য জেলার থানচি থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

NO COMMENTS

Leave a Reply