Home চট্টগ্রাম বালি আর্কেড এর ক্রেতা বিক্রাতাদের এক উৎসবের আমেজ

বালি আর্কেড এর ক্রেতা বিক্রাতাদের এক উৎসবের আমেজ

বিশ্বমানের সুপারমল বালি আর্কেড দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। গতকাল রবিবার বিকেল তিন টার সময় সরজমিনে দেখা মেলে বালি আর্কেড এর ক্রেতা বিক্রাতাদের এক উৎসবের আমেজ। সুপারমল বালি আর্কেডের প্রবেশে খাকি পোশাকধারীরা সকল ক্রেতাদের মাক্স পড়াসহ হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে প্রবেশ করতে দিচ্ছে।

মলের ভিতরেও একইভাবে খাকি পোশাকধারীরা সকল ক্রেতাদের ঘুরে ঘুরে বলতে দেখা গেছে মাক্স পড়তে। প্রথমে প্রবেশ করলাম র নেশন নামে জেন্টস শোরুমে। ক্রেতারা বেশ আগ্রহ নিয়ে কেনাকাটা করতে দেখা গেছে। সকলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রয়োজনমত কেনাকাটা করছে। কথা হয় ম্যানেজারের সাথে। তিনি বেশ সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন,

করোনা না হলে চট্টগ্রামের মধ্যে বালি আর্কেড সুপারমলটিতে ক্রেতাদের জায়াগা দেওয়া কঠিন হত। এইসময় সোহান নামে ক্রেতা বলেন, বিনোদনের মধ্যে দিয়ে কেনাকাটা করছি। খ্যাতিমান শোরুম শৈল্পিকে ক্রেতাদের ভিড় আরো বেশী লক্ষ্য করা গেছে। তবে তাদের শৃঙ্খলা দেখে বেশ ভাল লাগল।

শোরুমের ভিতরে থাকা ক্রেতাদের সুশৃঙ্খলভাবে বের করে, বাইরে থাকা ক্রেতাদের প্রবেশ করাতে দেখা যায়। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই বিক্রয় কর্মিরা ক্রেতাদের প্রয়োজন সাড়ছেন। শৈল্পিক শোরুমের ম্যানেজার বিশ্বজিত বলেন, করোনা না হলে, বালি আর্কেড মলটি শুধুমাত্র চট্টগ্রামের সেরা মল নয়,দেশের সেরা মল হিসেবে চমক দেখাবে। এবার গেলাম স্বদেশ পল্লী শোরুমে।

তাদেরও একই চিত্র। এর অপারেশন ম্যানেজার মামুনুর রশিদ বলেন, আমাদের মলে, ক্রেতাদের আগ্রহ দেখা আমি অভিভূত। পরিবার পরিজন নিয়ে আসছে সকলে। অনেক ক্রেতা বলেন, মলে সারাদিন থেকে যেতে ইচ্ছে করে তাদের। করোনা ভয়াবহতা না হলে, ক্রেতার ভিড় সামাল দিতে কঠিন হয়ে যেত।

পর্যায়ক্রমে বাটা শোরুম,এপেক্স শোরুম, হল মার্ক শোরুম, শক শপ শোরুম,রশিক শো,এন্টিক,স্পার্ক গিয়ার আরো অনেক। ২য় তলায় নারি উদ্যোক্তাদের শোরুম টুকিটাকি ডট কম, লাভলিস ফেস,মালাবিসসহ বিভিন্ন মোবাইল কোম্পানি শোরুমে ক্রতা বেশ উপস্থিতি লক্ষ্য করার মত। এই সুপার মলটিতে প্রায় ২৫৯টি দোকান রয়েছে।

উল্লেখ্য গত দুই এপ্রিল শুক্রুবার সন্ধ্যা ৬ টায় স্বল্প পরিসরের মধ্যে নগরীর চকবাজারস্থ গড়ে উঠা বিশ্বমানের সুপারমল বালি আর্কেডটি উদ্বোধন অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন হয়। সর্বাধু‌নিক প্রযু‌ক্তির ছোঁয়া নি‌য়ে নি‌র্মিত বা‌লি আ‌র্কেডে আছে বিজনেস, বিনোদন, শপিং এবং ফ্যামিলি এন্টারটেইনমেন্টের পরিপূর্ণ সব আয়োজন। শেঠ প্রপার্টিজের একটি সিগনেচার প্রকল্প হিসেবে বিশ্বমানের আধু‌নিক সব সুবিধা ও নান্দনিক শৈল্পিকতায় নির্মিত হয়ে‌ছে বালি আর্কেড।

১১তলা বিশিষ্ট স্বয়ংসম্পূর্ণ বাণিজ্যিক কমপ্লেক্স হিসেবে বালি আর্কেড নির্মিত হয়েছে শহরের প্রাণ কেন্দ্র চকবাজার সিরাজদৌলা সড়কে। সিনেপ্লেক্স, ফুডকোট, কনভেনশন হলসহ সর্বমোট ২৫০টি শপ, শো-রুম এবং ডিসপ্লে সেন্টার রয়েছে বা‌লি আ‌র্কেডে।

বিশ্বমানের আর্কিটেকচারাল ডিজাইনে নির্মিত এ প্রকল্পে রয়েছে ৩০ হাজার স্কয়ার ফিটের দেশের অন্যতম বৃহৎ এমিউজমেন্ট পার্ক, তিনটি সিনেপ্লেক্স সা‌থে রয়েছে চট্টগ্রামের প্রথম এবং সর্ববৃহৎ অভিজাত শ্রেণির ফ্যামিলি এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্টিনেশন ‘ক্যাসাব্লাংকা’।

উদ্বোধন অনুষ্ঠেন সো‌লায়মান আলম শেঠ বলেন, বাংলা‌দে‌শে আ‌রো বড় বড় মা‌র্কেট আ‌ছে। কিন্তু বা‌লি আ‌র্কেড হ‌চ্ছে দে‌শের প্রথম বিশ্বমানের সুপারমল, যেখা‌নে এপ‌সের মাধ‌্যমে গা‌ড়ি পা‌কিং নিয়ন্ত্রণ, দোকা‌নে প‌ণ্যের বিস্তা‌রিত জানা এবং অর্ডার কর‌তে পার‌বেন ক্রেতারা। এছাড়াও রয়েছে আন্তর্জাতিক মানের পৃথক পৃথক কুইজিন বেইস ফুডকোট। স্বতন্ত্র লেডিস জোন, যেখানে ক্রেতা বিক্রেতা সকলেই থাকবেন নারী।

রয়েছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডশপ সম্বলিত মোবাইল ফোন, মোবাইল এক্সেসরিজ, কসমেটিক জোন, জেন্টস ব্র্যান্ডশপ, লাইফস্টাইল, পার্লারসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠান। এখানে থাক‌বে তা‌দের শো-রুম ।

পুরো শপিং মলটিই ফ্রি ওয়াইফাইয়ের আওতাভুক্ত এবং বিজ্ঞাপনসহ বিভিন্ন ভিডিও কনটেন্ট প্রদর্শনের শপিংমলের সম্মুখে স্থাপন করা হয়েছে দুটি এক হাজার ১০০ স্কয়ার ফি‌টের সুবিশাল জায়ান্ট স্ক্রিন।

SIMILAR ARTICLES

0 0

NO COMMENTS

Leave a Reply