Home জাতীয় লক ডাউনে যা চালু থাকবে

লক ডাউনে যা চালু থাকবে

0 0

লক ডাউনে যা চালু থাকবে

:কামাল উদ্দিন খোকন:

লকডাউন কতো জনের কতো কথা ।নানা মুনির নানা মত। করোনার সংক্রমন বেড়ে যা্ওয়ার পর কঠোর চিন্তায় ছিলেন সরকার এরই মাঝে স্বাধনিতার সুবর্ন জয়ন্তীতে বিদেশ িমেহমানদের  আগমন ্ও বিদায় নিয়ে নিরাপত্তা ্ও তাদের বিদায় জানানো এর মাঝে রয়েছে করোনা সংক্র,ন বৃদ্বির ডেউ।

সব মিলিয়ে অনেক কঠিন সময় পার করেছে সরকার । অবশেষে সুবর্ন জয়ন্তীর অনুস্টান শেষ হ্ওয়ার পর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী  করোনা মোকাবেলায় কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার সিদ্বান্ত নেন দেশের  মানুষকে বাচাতে ।  এর পর গত 5এপ্রিল থেকে 11 এ্রপ্রিল পর্যন্ত লক সারা দেশে  সাত দিনের জন্য লক ডাউন ঘোষনা করে । এর পরেই নানা আন্দোলন ব্যাবসায়ী পরিবহন শ্রমিকরা । আন্দোলনের মুখে সরকার প্রথমে শহর এলাকায়  গনপরিবহন চালু করে । এর পর শুরু হয় ব্যাবসায়ীদের আন্দোলন ।এর পরে সরকার দোকান পাট খোলা রাখার সিদ্বান্তে আসতে বাধ্য হন ।

তারপর দেখা গেলো সংক্রমন আর মৃত্যুর হার বেড়েই চলেছে এই কারনে  সরকার  বিভিন্ন  মন্ত্রনালয়ের সাথে পরামর্শ করে যখন দেখা যাচ্চে সাধারন মানুষকে দমানো যাচ্চেনা। তাই এই মানুষদের দমানোর জন্য সরকার আবারো আগামী 14 তারিখ থেকে পুনরায় সাত দিনের কঠোর লক ডাউনের ঘোষনা করতে বাধ্য হচ্চে । আর এই কারনে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন মানুষের জীবন বাচাতে সরকার কঠিন সিদ্বান্ত নিতে বাধ্র থাকবে । আর সেটােই বাস্তবায়ন করতে যাচ্চে প্রশাসন । জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ১৪ এপ্রিল থেকে ৭ দিনের কঠোর লকডাউন। এই সময়ে জরুরি সেবা ছাড়া সব অফিস ও গার্মেন্টস বন্ধ থাকবে।

তিনি বলেন, লকডাউনে কোনো ধরনের যানবাহন চলবে না।

লকডাউন বিষয়ে রোববার প্রজ্ঞাপন জারি জারি হতে পারে  হতে পারে বলে  জানিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়।

লকডাউনে যা খোলা থাকবে

তবে ওষুধের দোকান, নিত্যপণ্যের দোকান জরুরি সেবার মধ্যেই পড়ে। তাই এগুলো সর্বাত্মক লকডাউনেও খোলা রাখা হবে। তবে নিত্যপণ্যের দোকান খোলা রাখার জন্য নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেওয়া হতে পারে। আর সরকারের অন্যান্য জরুরি সেবা হলো বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানি, ফায়ার সার্ভিস, টেলিফোন, স্বাস্থ্য, ত্রাণ বিতরণ, স্থলবন্দর, ইন্টারনেট, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আনা–নেওয়া ও এর সঙ্গে জড়িত অফিসগুলো। #

NO COMMENTS

Leave a Reply