Home আইন ও আদালত পাহাড়তলী থানা এলাকায় সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজ গ্রেফতার ও নগদ টাকা উদ্ধার।

পাহাড়তলী থানা এলাকায় সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজ গ্রেফতার ও নগদ টাকা উদ্ধার।

গত ২০/০৩/২০২১ তারিখ সন্ধ্যা অনুমান ৬:০০ ঘটিকার সময় পাহাড়তলী থানাধীন কাজী মসজিদ সংলগ্ন ডিপোতে জনৈক গোলাম মোহাম্মদ (৬৭) এর এডিটিং করা অশ্লীল আপত্তিরক ছবির কথা বলে আসামীরা
৩,০০,০০০/- (তিন লক্ষ) টাকা গ্রহন করে এবং পরবর্তীতে আরো ৩,০০,০০০/- (তিন লক্ষ) টাকা চাঁদা দাবী করার বিষয়টি জনৈক গোলাম মোহাম্মদ পাহাড়তলী থানা, পুলিশ’কে অবহিত করিলে, পাহাড়তলী থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছিয়া ঘটনার সত্যতা পায়।
ঘটনার বিবরণে জানা যায় গত ১৫/০৩/২০২১ তারিখ এজাহারনামীয় ১নং ব্যাক্তি মোঃ রানা নিজের পরিচয় প্রদান করে জনৈক গোলাম মোহাম্মদ (৬৭) এর নিকট ৩,০০,০০০/- (তিন লক্ষ) টাকা চাঁদা দাবী করে এবং না দিলে প্রাণনাশ, ব্যবসায়িক ক্ষতি সাধনসহ অন্য কোন ক্ষতি করবে বলে হুমকি দেয়।
জনৈক গোলাম মোহাম্মদ আসামীদেরকে টাকা দিতে অস্বীকার করিলে আসামীরা জনৈক ব্যক্তির মানহানি করার উদ্দেশ্যে এডিটিং করা আপত্তিকর ও অশ্লীল ছবি তৈরি করার ভয় দেখিয়ে ইং ২০/০৩/২০২১ তারিখ সন্ধ্যা অনুমান ৬:০০ ঘটিকার সময় ৩,০০,০০০/- (তিন লক্ষ) টাকা পাহাড়তলী থানাধীন কাজী মসজিদ সংলগ্ন ডিপো হতে চাঁদা গ্রহন করে এবং পরবর্তীতে আসামীরা একই ব্যক্তির নিকট হতে আরো ৩,০০,০০০/- (তিন লক্ষ) টাকা চাঁদা দেওয়ার জন্য বিভিন্ন ধরনের হুমকি প্রদান করে আসিতেছিল।
বাদীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে পাহাড়তলী থানায় চাঁদা গ্রহন ও চাঁদা দাবীর মামলা রুজু হয়।
পাহাড়তলী থানা পুলিশ জনৈক গোলাম মোহাম্মদ (৬৭) এর অভিযোগ প্রাপ্তির পর আসামীদের গ্রেফতারের তৎপর হয়ে থানা এলাকার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে। এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ০৭/০৪/২০২১খ্রিঃ তারিখ পাহাড়তলী থানা পুলিশের একটি চৌকশ দল থানা এলাকাসহ থানার আশপাশ এলাকা হতে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ১। মোঃ শামসুল হক রানা (২৭),
২। মাহবুব আলম রনি (২৮), ৩। মোঃ মোশারফ হোসেন টুটুল (২৮), ৪। মোঃ আফসার (২৯), ৫। মোঃ সুমন হোসেন প্রঃ সাদ্দাম (৩০), ৬। মোঃ রাজু (২৯)দেরকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে তারা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। গ্রেফতারের পর এজাহারনামীয় ১ নং ব্যাক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানায় যে,
জনৈক গোলাম মোহাম্মদ (৬৭) এর নিকট থেকে কৌশলে টাকা নেয়ার জন্য তাহার বন্ধু মো: আফসার, সুমন হোসেন প্রকাশ সাদ্দাম মো: রাজু,সহ অন্যান্যদের সহায়তায় পরিকল্পনা করে এবং শামসুল হক রানা যেহেতু বাদীর পূর্ব পরিচিত সেহেতু সেই টাকা দাবী এবং গ্রহণ করে। গ্রেফতারকৃতদের দেওয়া তথ্য ও উপস্থাপনমতে চাঁদা আদায়ের ১,২২,০০০/- টাকা উদ্ধার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতদের নাম ও ঠিকানাঃ ১। মো: শামসুল হক রানা (২৭), পিতা-মো: মোবারক হোসেন, মাতা-বকুল বেগম, সাং-প্রান্তি থানা- মুরাদনগর জেলা- কুমিল্লা, বর্তমানে-নোয়া পাড়া পুকুর পাড় থানা- পাহাড়তলী, জেলা- চট্টগ্রাম।
২) মাহবুব আলম রনি (২৮), পিতা- মৃত আনোয়রুল হোসেন, মাতা-মমতাজ বেগম, সাং- পূর্ব ফিরোজশাহ কলোনী, কবরস্থান লেন, আনোয়ার সাহেবের বাড়ি, থানা- আকবরশাহ, জেলা- চট্টগাম।
৩) মোঃ মোশারফ হোসেন টুটুল (২৮), পিতা- মো: রুস্তম আলী, মাতা-মোছাঃ ফরিদা বেগম, সাং- নিউ মুনসুরাবাদ, রুস্তম আলী বাবুর্চির বাড়ি, থানা-আকবরশাহ, জেলা- চট্টগ্রাম।
৪) মোঃ আফসার (২৯),  পিতা-মোঃ হান্নান, মাতা-আবেদা বেগম, সাং-দুলালাবাদ, নজু মিয়ার বাড়ী, থানা-পাহাড়তলী, জেলা-চট্টগ্রাম বর্তমানে-নোয়াপাড়া, চেয়ারম্যান বাড়ী, নাছির এর ভাড়াটিয়া, থানা-পাহাড়তলী, জেলা-চট্টগ্রাম।
৫। মোঃ সুমন হোসেন প্রঃ সাদ্দাম (৩০), পিতা- মোঃ আমির হোসেন, মাতা- রোকেয়া বেগম , স্থায়ী : মনতাজ সওদাগরের বাড়ী গ্রাম- জোলাপাড়া (আব্দুল আলী নগর), উপজেলা/থানা- পাহাড়তলী, চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ।
৬। মোঃ রাজু (২৯), পিতা- মোঃ রফিক, মাতা- নুরজাহান বেগম , স্থায়ী : লেদু সওদাগরের বাড়ী কাজীপাড়া, গ্রাম- পাহাড়তলী, উপজেলা/থানা- পাহাড়তলী, চট্টগ্রাম।

NO COMMENTS

Leave a Reply