Home আইন ও আদালত চান্দগাঁও থানার অভিযানে : ২টি ছুরি সহ ১০ জন গ্রেফতার

চান্দগাঁও থানার অভিযানে : ২টি ছুরি সহ ১০ জন গ্রেফতার

সিএমপি চান্দগাঁও থানার অভিযানে : ২টি ছুরি সহ ১০ জন গ্রেফতার
গত ১৪/০২/২০২১ ইং তারিখ জনৈক মোহাম্মদ কফিল উদ্দিন (৬০) থানায় হাজির হয়ে লিখিতভাবে জানান যে, তিনি গত ১১/০২/২০২১ ইং রাত অনুমান ০৮:১৫ ঘটিকায় পাঁচলাইশ থানাধীন ২নং গেইট মোড় হতে চান্দগাঁও থানাধীন বহদ্দারহাট বহদ্দার পুকুর পাড় তার বন্ধুর সাথে দেখা করার জন্য অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি লোকালে চালিত সিএনজি যোগে বহদ্দারহাটের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। উক্ত সময় চালকের পাশে অজ্ঞাতনামা একজন ব্যক্তি এবং পিছনের সিটের ডানপাশে অজ্ঞাতনামা একজন ব্যক্তি বসা অবস্থায় ছিল এবং অজ্ঞাতনামা আরো একজন ব্যক্তি পিছনের সিটে তাহার বামপাশে উঠে বসে। অজ্ঞাতনামা সিএনজি চালক তার চালিত সিএনজি গাড়ী চালিয়ে শুলক বহর হতে এক কিলোমিটার ও চান্দগাঁও আবাসিকগামী ফ্লাইওভারে ওঠার চেষ্টা করলে তিনি উক্ত অজ্ঞাতনামা চালককে বহদ্দারহাট নামব বলে জানায় এবং গাড়ী ফ্লাইওভারের উপর দিয়ে যেতে নিষেধ করেন। তখন পিছনের সিটে কফিল উদ্দিন এর দুইপাশে থাকা অজ্ঞাতনামা ০২ জন ব্যক্তি আকস্মিকভাবে তাকে ধারালো চাকু দিয়ে হত্যা করার ভয় দেখিয়ে চুপচাপ থাকার জন্য বলে এবং কোন প্রকার চিৎকার করলে তাদের হাতে থাকা চাকু দিয়ে খুন করার হুমকি প্রদান করে এবং তাদের সঙ্গীয় অপরাপর সহযোগীদের সহায়তায় কফিল উদ্দিন এর গতিরোধ করতঃ জোর পূর্বক অপহরণ করে চান্দগাঁও থানাধীন সিএন্ডবি বিসিক শিল্প এলাকাস্থ ইফকো গার্মেন্টস এর পরিত্যক্ত ভবনের ৫ম তলার একটি কক্ষে নিয়ে আটক করতঃ সিএনজি অটোরিক্সায় থাকা অজ্ঞাতনামা ৪ জন সহ তাদের সঙ্গীয় উক্ত ভবনে থাকা অজ্ঞাতনামা আরো ৮/৯ জন বিবাদী তাকে মারধর করে জখম করে এবং ৩০,০০,০০০/- টাকা দাবী করে।
 তিনি অজ্ঞাতনামা বিবাদীদের দাবীকৃত টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে অজ্ঞাতনামা বিবাদীগণ তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে গাছের বাটাম ও লোহার রড দ্বারা এলোপাতাড়িভাবে মারধর করে জখম করে এবং বাম চোখে গুরুতর কালো রক্ত জমাট বাঁধা জখম করতঃ একটি নকিয়া মোবাইল, নগদ ৭,৮৫০/- টাকা এবং ০১টি হাতঘড়ি, জোর পূর্বক ছিনিয়ে নেয়। একপর্যায়ে অজ্ঞাতনামা বিবাদীগণ কফিল উদ্দিনের ব্যবহৃত মোবাইল হতে তার ছেলে মঈন উদ্দিন এর মোবাইলে ফোন করে ৩০,০০,০০০/- টাকা চাঁদা দাবী করে এবং তাদের দাবীকৃত টাকা না দিলে বিভিন্ন খারাপ মেয়েদের পাশে তার ছবি উঠিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে সম্মানহানী করবে এবং খুন করবে মর্মে হুমকি প্রদান করে। তার ছেলে অজ্ঞাতানামা বিবাদীগণের দাবীকৃত টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে একেক সময় বিভিন্ন অংকের টাকা দাবী করে। সর্বশেষ অজ্ঞাতনামা বিবাদীগণ বাদীর ছেলের নিকট হতে ৩০,০০০/- টাকা দাবী করে। একপর্যায়ে কফিল উদ্দিনের ভাতিজা এরশাদ হোসেন বিকাশের মাধ্যমে ৫,০০০/- টাকা পাঠাইলে বিবাদীগণ বিকাশ হইতে ক্যাশ আউট করে। পরবর্তীতে ইং ১১/০২/২০২১ রাত অনুমান ১০:৪৫ ঘটিকায় অজ্ঞাতনামা বিবাদীরা উক্ত পরিত্যাক্ত ভবন হতে কফিল উদ্দিনকে নামিয়ে একটি অটোরিক্সা গাড়ীতে উঠিয়ে দেয়। উক্তরূপ অভিযোগের ভিত্তিতে চান্দগাঁও থানার মামলা নং-২৩, তারিখ-১৪/০২/২০২১ইং ধারা-৩৪১/৩৬৫/৩৪২/৩২৩/৩২৫/৩০৭/৩৮৫/৩৮৬/৩৮৭/৩৭৯/৫০৬/৩৪ পেনাল কোড রুজু হয়।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে উক্ত ঘটনায় জড়িত হিসেবে ১। আহসান আহম্মেদ আকিব (১৮), ২। মোঃ পারভেজ (১৮), ৩। মোঃ নয়ন (১৫), ৪। মোঃ আসিফ (১৫), ৫। জাহেদ উল্লাহ (২২), ৬। মোঃ নিশাদ (১৭), ৭। মোঃ বাদশা (১৬), ৮। কফিল উদ্দিন (১৫), ৯। মোঃ আরমান (২০), ১০। মোঃ হৃদয় (১৭) দের গ্রেফতার করেন। উল্লেখ্য যে, তদন্তপ্রাপ্ত আহসান আহম্মেদ আকিব (১৮) এবং মোঃ পারভেজ (১৮) দ্বয়কে ০২টি ধারালো ছুরি সহ আটক করা হয়। তাদের হেফাজত হতে ধারালো ছুরি উদ্ধারের বিষয়ে তাদের বিরুদ্ধে চান্দগাঁও থানার মামলা নং-২৫, তারিখ-১৪/০২/২০২১, ধারা- The Arms Act 1878 Gi 19(f) নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।
গ্রেফতারকৃতদের নাম ঠিকানাঃ
১। আহসান আহম্মেদ আকিব (১৯), পিতা- মোহাম্মদ আলী, মাতা- খালেদা বেগম, সাং- সিএন্ডবি, শাপলা ক্লাব, আফজাল মাঝির বাড়ী, শামীম এর বাড়ী, থানা-চান্দগাঁও, জেলা-চট্টগ্রাম, ২। মোঃ পারভেজ (১৯), পিতা- বকুল হোসেন, মাতা- শাহনাজ বেগম, সাং- টেপুনিয়া, বাজেন্দ্রাপুর, মোসলিম শেখ এর বাড়ী, থানা- পাবনা সদর, জেলা- পাবনা, বর্তমানে- রিয়াজ উদ্দিন উকিল বাড়ী, মনসুর কলোনী, ৩য় তলা, ৯নং রুম, থানা-চান্দগাঁও, জেলা-চট্টগ্রাম, ৩। জাহেদ উল্ল্যাহ (২২), পিতা-মোঃ আলম, মাতা-সুফিয়া বেগম, সাং-পুরাতন পল্লন পাড়া, ইসলাম হাজীর বাড়ী, ২নং ওয়ার্ড, থানা-টেকনাফ, জেলা-চট্টগ্রাম, বর্তমান-বরিশাইল্ল্যা বাজার, ময়দার মিলের সামনে, কালাম বিল্ডিং, ২য় তলা, ১০ নং রুম, থানা-চান্দগাঁও, জেলা-চট্টগ্রাম, ৪। মোঃ আরমান (২০), পিতা-মীর কাশেম, মাতা-রেহেনা বেগম, সাং-আফজাল মাঝির বাড়ী, আরমানের ঘর, থানা-চান্দগাঁও, জেলা-চট্টগ্রাম, ৫। মোঃ নয়ন (১৫), পিতা-আব্দুল মোতালেব, মাতা-কহিনুর বেগম, সাং-আফজাল মাঝির বাড়ী, শাপলা ক্লাবের ভিতরে, থানা-চান্দগাঁও, জেলা-চট্টগ্রাম, ৬। মোঃ আসিফ (১৫), পিতা-মোঃ বখতিয়ার, মাতা-ছখিনা বেগম, সাং- আফজাল মাঝির বাড়ী, শাপলা ক্লাবের ভিতরে, থানা-চান্দগাঁও, জেলা-চট্টগ্রাম, ৭। মোঃ নিশাদ (১৭), পিতা-মৃত নুর আলম, মাতা-মৃত গোলজার বেগম, সাং-বেহুরা, মজু ভান্ডার মাজারের পার্শ্বে, থানা-বোয়ালখালী, জেলা-চট্টগ্রাম, বর্তমান-শাপলা ক্লাবের ভিতরে, মাঝির বাড়ী, জিয়াউর রহমানের বাড়ী, থানা-চান্দগাঁও, জেলা-চট্টগ্রাম, ৮। মোঃ বাদশা (১৬), পিতা-মোঃ আজিজ, মাতা-মুরিশদা বেগম, সাং-শালিপুর, চৌকিদার বাড়ী, থানা-মাইজদী, জেলা-নোয়াখালী, বর্তমান-আফজাল মাঝির বাড়ী, বাহাদুর কলোনী, ৩নং রুম, থানা-চান্দগাঁও, জেলা-চট্টগ্রাম, ৯। মোঃ কফিল উদ্দিন (১৫), পিতা-মৃত মোঃ আবুল কালাম, মাতা-মাহমুদা বেগম, সাং-খুটাখালী বাজার সংলগ্ন, সাইফুল মাষ্টারের বাড়ী, থানা-চকরিয়া, জেলা-কক্সবাজার, বর্তমান-আফজাল মাঝির বাড়ী, বাঁচা মিয়ার বিল্ডিং (পুরাতন), নিচতলা, রুম নং-৮, থানা-চান্দগাঁও, জেলা-চট্টগ্রাম, ১০। মোঃ হৃদয় (১৭), পিতা-আবু ছৈয়দ, মাতা-নিলু বেগম, সাং-শাপলা ক্লাব, আফজাল মাঝির বাড়ী, থানা-চান্দগাঁও, জেলা- চট্টগ্রাম।

NO COMMENTS

Leave a Reply