Home আইন ও আদালত ডাবলমুরিং মডেল থানার অভিযানে ফেইসবুকের মাধ্যমে প্রতারনার অভিযোগে গ্রেফতার-০৩, মোবাইল ও টাকা...

ডাবলমুরিং মডেল থানার অভিযানে ফেইসবুকের মাধ্যমে প্রতারনার অভিযোগে গ্রেফতার-০৩, মোবাইল ও টাকা উদ্ধার।

ফেইসবুক ব্যবহার করে প্রতারনা চক্রের ০৩(তিন) সদস্যকে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে গ্রেফতার করে সিএমপির ডাবলমুরিং মডেল থানা পুলিশ। এসময় প্রতারক চক্রের সদস্যদের নিকট হতে প্রতারনার মাধ্যমে নেওয়া নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।
লাভলী আক্তার লিপি ঢাকায় থাকেন এবং তিনি ঢাকায় ফটো সেশন মডেলিংয়ের কাজ করে। ফেসবুক আইডির মাধ্যমে বিগত ২০১৮ ইং সালে বিবাদী আনোয়ার ইসলাম সানি(২৭) এর সহিত পরিচয় হয়। উক্ত পরিচয়ের সুবাধে বিবাদী আনোয়ার ইসলাম সানি(২৭) ভিকটিম লাভলী আক্তার লিপি’কে চট্টগ্রামে বিভিন্ন ব্রন্ডের ফটো সেশনের কাজ আছে বলে। এই কাজের জন্য ভিকটিম সহ আরো ০১ জন মডেল লাগবে বলে জানায় এবং ভালো মুনাফা হবে মর্মে জানায়।
এতে ভিকটিম সরল বিশ্বাসে গত ৩০/০১/২০২১ইং তারিখ সকালে ঢাকা হতে চট্টগ্রামে এসে গত ৩০/০১/২০২১ ইং রাত অনুমান ০৯.৩০ ঘটিকায় বিবাদী আনোয়ার ইসলাম সানি(২৭) এর কথা মত ডবলমুরিং মডেল থানাধীন আখতারুজ্জামান সেন্টারের সামনে দেখা করেন। পরবর্তীতে বিবাদী আনোয়ার ইসলাম সানি সংগীয় অপরাপর বিবাদীদের সহায়তায় প্রতারণার মাধ্যমে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে ভিকটিম এর নিকট থাকা ভ্যানিটি ব্যাগ ও মোবাইল নিয়ে চলে যায়।
উক্ত অভিযোগের প্রেক্ষিতে ডবলমুরিং মডেল থানার একটি দল নগরীর বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে ০১নং বিবাদীকে গ্রেফতার করেন এবং তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক বাসা হতে ভিকটিমের ভ্যনিটি ব্যাগ নগদ টাকা সহ উদ্ধার করা হয়। ০১ নং বিবাদীকে নিয়া থানা এলাকার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে ০২ ও ০৩নং বিবাদীকেও গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে ০১, ০২ ও ০৩নং বিবাদীদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক বিক্রয় ডটকম এর মাধ্যমে বিক্রয়কৃত মোবাইল ফোন, চকবাজার থানাধীন গুলজার টাওয়ারের সামনে হতে রবিউল হোসেন হৃদয় এর হেফাজত হইতে উদ্ধার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতঃ ১। আনোয়ার ইসলাম সানি(২৭), পিতা- নুরুল ইসলাম, মাতা- ফরিদা বেগম, সাং- ৩নং ফকিরহাট, মধ্যম গোসাইলডাঙ্গা, এমপি সাহেবের বাড়ী সংলগ্ন ফজল হক ড্রাইভারের বাড়ী, থানা- বন্দর, জেলা- চট্টগ্রাম, ২। মোঃ আরাফাত (২৬), পিতা- মোঃ জসিম, মাতা- ফরিদা ইয়াছমিন, সাং- ০৩ নং ফকিরহাট, মধ্যম গোসাইলডাঙ্গা, আক্তার সাহেবের বাড়ীর পাশে, হানিফ সওদাগরের বাড়ী, থানা- বন্দর, জেলা- চট্টগ্রাম, ৩। আহমেদ উল্লাহ (২৩), পিতা- মোঃ আলমগীর, মাতা- রোকেয়া বেগম, সাং- ০৩ নং ফকিরহাট, মধ্যম গোসাইলডাঙ্গা, আক্তার সাহেবের বাড়ীর পাশে, হানিফ সওদাগরের বাড়ী, থানা- বন্দর, জেলা- চট্টগ্রাম এবং তদন্তে প্রাপ্ত আসামী ৪।  রবিউল হোসেন হৃদয় (২২), পিতা- আনোয়ার মিয়া, মাতা- আয়শা আক্তার, সাং-কেবি মোকবুল হোসেন লেইন, কামাল সওদাগরের বাড়ী, থানা- চকবাজার, জেলা-চট্টগ্রাম।
উদ্ধারকৃত মালামালঃ
১। ভিকটিমের ব্যবহৃত ভ্যানিটি ব্যাগ।
২। ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন।
৩। ভ্যানিটি ব্যাগে থাকা নগদ ৬৫০০/-টাকা।

NO COMMENTS

Leave a Reply