Home আইন ও আদালত এক লক্ষ্য টাকা উদ্ধার করে পুলিশের নাম ধন্য করেন পাঁচলাইশ থানার এস...

এক লক্ষ্য টাকা উদ্ধার করে পুলিশের নাম ধন্য করেন পাঁচলাইশ থানার এস আই মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন

শারমিন শান্তা :পাঁচলাইশ থানার কর্মরত এস আই ট্রিপল ৯৯৯ এ কল পাওয়ার সাথে সাথেই তার নিজ দায়িত্বে এক ব্যবসায়ীর এক লক্ষ্য টাকা উদ্ধার করে পুলিশের নাম ধন্য করেন পাঁচলাইশ থানার এস আই মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন।

এস আই জসিম এর সাথে কথা বলে জানা যায়, চট্টগ্রাম নগরীর প্রবর্তক মোরে বাসের ভিতরে থাকা মোঃ সোহাগ নামের এক ছিনতাইকারী টাকা নিয়ে পালানোর সময়, এস আই জসিম তার নিজের হাতে তাকে ধরেন ও টাকা উদ্ধার করে, সাধারণ মানুষের সেবায় নিজেকে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র স্থাপন করেন, নির্মে এজাহার উল্লেখ করা হলো।

জনাব থাবিহীত সজ্ঞান প্রদর্শন পূর্বক বিনীত নিবেদন এই যে , আমি নিম্নস্বাক্ষরকারী কবির আহাম্মদ ( ৩৫ ) , পিতা – আর আহম্মদ , মাতা – নুর নাহার , সাং – শাহারবিল , আক্তার আহাম্মদ এর বাড়ী , পােঃ চকরিয়া , থানা – চকরিয়া , জেলা – কক্সবাজার অদ্য থানায় হাজির হইয়া পাঁচলাইশ থানা পুলিশের আসামীর নাম ও ঠিকানাঃ সহায়তায় পার্শ্বেবর্ণিত গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে এই মর্মে এজাহার ১। যাঃ সােহাগ গায় । দায়ের করিতেছি যে , আমি একজন দোকানদার । অদ্য ০৩/০২/২০২১ খ্রিঃ পিতা – মােঃ ইয়াকুব আলী শাখ , খাত – সালেয়া বেগম , তারিখ ভাের অনুমান ০৪.০০ ঘটিকার সময় আমি কক্সবাজার হইতে বাসযােগে সাং – হাওরিয়াছালা , ইউপি যদ্দপাড়া , পােঃ আকুলী , চট্টগ্রামস্থ মুরাদপুর মােড়ে আসি ।

মুরাদপুর হইতে ৩ নং বাস যােগে রিয়াজ থানা – কালিয়াকৈর , ভােলা – গাজীপুর । উদ্দিন বাজারে ট্রাভেল এজেন্সীতে আমার শ্যালকের ভিসার ১,০০,০০০ / ( এক লক্ষ ) টাকা জমা দেওয়ার জন্য রওয়ান করি । উক্ত গাড়ীটি পাঁচলাইশ মডেল থানাধীন প্রবর্তক মােড় প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে রাস্তার উপর একই তারিখ সকাল অনুমান ১১.১৫ ঘটিকার সময় পৌছিলে হঠাৎ গাড়ীর ভিতরে থাকা পার্শ্বেবর্ণিত আসায়ী ত্রাস সৃষ্টি করিয়া আমার পড়নের জিন্স প্যান্টের সামনের বাম পকেটে থাকা আমার শ্যালকের জন্য ভিসার নগদ ১,০০০ / – ( এক হাজার ) টাকার নােট ১৭ ( সতে ) টি = ( ১৭ x১০০০ ) = ১৭,০০০ / – ( সতের হাজার ) টাকা এবং ৫০০ / – ( পাঁচশত ) টাকার নােট ১৬৬ ( এক ছেষট্টি ) টি = ( ১৬৬ * ৫০০ ) = ৮৩,০০০ / – ( তিরাশি হাজার ) টাকা সর্বমােট = ( ৮৩০০০ + ১৭০০০ ) = ১,০০,০০০ / – ( এক লক্ষ ) টাকা জোর পূর্বক ভয়ভীতি দেখাইয়া জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করতঃ উক্ত আসামী ছিনিয়া নিয়া পালাইনাের চেষ্টা করে । আমার শাের চিৎকারে গাড়ীতে থাকা উপস্থিত লােকজন আগাইয়া আসিয়া বর্ণিত আসামীকে হাতেনাতে ধৃত করে এবং উত্তেজিত লােকজন তাহাকে উত্তম মধ্যম দেয় ।

ঘটনার সংবাদ পাইয়া থানা পুলিশ ও প্রবর্তক মােড়ে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পৌছিয়া বর্ণিত আসামীকে গ্রেফতার করতঃ আসামীর হেফাজত হইতে আমার বার্ণিত পরিমাণ টাকা সমূহ উদ্ধার পূর্বক জব্দ তালিকা মুলে জব্দ করে । আমি জব্দ তালিকায় স্বাক্ষর করি ।

আমার সম্মুখে পুলিশ গ্রেয়তারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদ করিলে সে তাহার বর্ণিত নাম – ঠিকানা প্রকাশ করে এবং ঘটনা সংঘটন করিয়াছে মর্মে স্বীকার করে । আলােচ্য ঘটনায় পার্শলিখিত আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অত্র এজাহার দায়ের করিলাম ।

আমার পরিবার ও আত্মীয় – স্বজনের সহিত আলােচনা করিয়া থানায় আসিয়া অত্র এজাহার দায়ের করিতে বিলম্ব হইল । অতএব , মহােদয় উল্লেখিত বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করিতে মর্জি হয় ।

NO COMMENTS

Leave a Reply