Home অপরাধ বহদ্দারহাট থেকে নতুন ব্রীজ ৭নং রোডে থ্রী-হুইলার মাহেন্দ্র গাড়ীর লাইন পরিচালনার নামে...

বহদ্দারহাট থেকে নতুন ব্রীজ ৭নং রোডে থ্রী-হুইলার মাহেন্দ্র গাড়ীর লাইন পরিচালনার নামে চলছে ব্যাপক চাঁদাবাজী

নগরীর ওয়াসা মোড়, টাইগারপাস, মুরাদপুর, ২নং গেইট, বহদ্দার হাট হইতে শাহ্ আমানত সেতু পর্যন্ত ৭নং রোডে থ্রী-হুইলার মাহেন্দ্র গাড়ীর লাইন পরিচালনা, ভর্তি বাণিজ্য ও ওয়াবিলের নামে চলছে ব্যাপক অনিয়ম ও চাঁদাবাজী।

সাধারণ গাড়ীর মালিক- চালকরা চাঁদাবাজীতে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। প্রশাসনের এক শ্রেণীর দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা ও স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের ইন্ধনে চলমান এই চাঁদাবাজী এখনই থামানো না গেলে যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে। চান্দগাঁও-বহদ্দারহাট- দক্ষিণ চট্টগ্রাম অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়নের নামে প্রতি মাসে গাড়ি প্রতি ১ হাজার করে ৩শত গাড়ী থেকে ৩ লক্ষ টাকা আদায় করা হয়।

এছাড়াও নতুন গাড়ীর সমিতিতে অন্তর্ভূক্ত করতে মালিক পক্ষ থেকে ১০/১৫ হাজার টাকা করে নেওয়া হয়। প্রতিদিন প্রতিটি গাড়ি থেকে ৫০/৭০ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে ওয়াবিলের নামে। যদিও সরকার, মালিক- শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের যৌথ সিদ্ধান্তে লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্থ মালিক শ্রমিকের কথা বিবেচনা করে ওয়াবিলের নামে অবৈধ চাঁদাবাজী বন্ধের সিদ্ধান্ত কার্যকরী করা হয়েছিল।

তবুও অদৃশ্য শক্তির জোরে অত্র সংগঠনের সভাপতি জুনু চেয়ারম্যানের ছেলে জাবেদ ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেন চাঁদাবাজী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের এই অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করার সাহস কোন গাড়ীর চালক বা মালিকের নেই।

কারণ প্রতিবাদকারী গাড়িকে সংগঠন থেকে বের করে দেওয়া হয় এমনকি রোড পরিবর্তনেও বাধ্য করা হয় বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছিুক একাধিক মালিক-শ্রমিক জানান। এ বিষয়ে ক্ষতিগ্রস্থরা ডিসি ট্রাপিক সহ সংশ্লিস্ট প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

অন্যথায় ক্ষতিগ্রস্থরা বৃহত্তর আন্দোলনের ঘোষনা করা হবে বলে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন।

NO COMMENTS

Leave a Reply