Home আইন ও আদালত সিএমপির বাকলিয়া থানার অভিযানে চাঞ্চল্যকর রোহিত হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী সহ গ্রেফতার দুই।

সিএমপির বাকলিয়া থানার অভিযানে চাঞ্চল্যকর রোহিত হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী সহ গ্রেফতার দুই।

 ভিকটিম মোঃ আশিকুর রহমান রোহিত (২০) গত ইং ০৮/০১/২০২১ বিকাল ০৪.৩০ ঘটিকার সময় বাজার আনার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করলে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী সাহাবুদ্দিন সাবু (২৬) ও সাইফুল ইসলাম বাবু (২০) তার সাথে কৌশলে মোটর সাইকেলে উঠে। মোঃ আশিকুর রহমান রোহিত মোটর সাইকেল চালিয়ে বাকলিয়া থানাধীন দেওয়ান বাজার ভরা পুকুর পাড় সংলগ্ন কেডিএস গলির ভিতরে ইসলামী ব্যাংকের অফিসারদের মালিকানাধীন নির্মানাধীন বিল্ডিংয়ের সামনে পৌঁছলে দেখতে পায়,
মোঃ মহিউদ্দিন (২৯) সেখানে দাঁড়িয়ে আছে। তখন রোহিত এর সাথে মোটর সাইকেলে থাকা সাহাবুদ্দিন সাবু (২৬) ও সাইফুল ইসলাম বাবু (২০) রোহিতকে সেখানে মোটর সাইকেল থামাতে বলে। মোটর সাইকেল থামানোর পর তারা দুইজন মোটর সাইকেল থেকে নেমে সাহাবুদ্দিন সাবু (২৬) ও সাইফুল ইসলাম বাবু (২০) তাদের কোমর থেকে ধারালো ছোরা বের করে রোহিত এর কোমড়ে, পেটে ও পিঠে উপর্যুপুরি আঘাত করে।
ঐ সময় মহিউদ্দিন রোহিতকে ধরে রাখে। উপর্যপুরি ছোরার আঘাতে রোহিত নিস্তেজ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তারা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। ঘটনার সংবাদ পেয়ে এলাকায় টহলরত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে আশপাশের লোকজনের সহায়তায় ভিকটিম আশিকুর রহমান রোহিত (২০)কে উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার ভিকটিম এর অবস্থা আশংকজনক হওয়ায় তাকে হাসপাতালের ৪র্থ তলায় ২৪নং ওয়ার্ডের আইসিইউ বিভাগের ১০নং বেডে ভর্তি করেন। উপর্যুপুরি ছুরিকাঘাতের ফলে ভিকটিম আশিকুর রহমান রোহিত (২০) গত ১৫/০১/২০২১ তারিখ চমেক হাসপাতালের আইসিইউ’তে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরন করেন।
ঘটনার পরপর জড়িত  ১। সাহাবুদ্দিন সাবু (২৬), ২। সাইফুল ইসলাম বাবু (২০) ও ৩। মোঃ মহিউদ্দিন (২৯)গণ গ্রেফতার এড়ানোর জন্য অজ্ঞাতস্থানে পালিয়ে যায়। তাদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সার্বিক নির্দেশনায়  মোঃ মহিউদ্দিন (২৯)কে গত ১৭/০১/২০২১খ্রিঃ তারিখ দুপুর অনুমান ০২.০০ ঘটিকার সময় কদমতলী মাদার টেক নিউ মদিনা আবাসিক এলাকা, মুগদা থেকে এবং সাইফুল ইসলাম বাবু (২০)কে মিরপুর, ঢাকা থেকে একটানা অভিযান পরিচালনা করে গত ১৭/০১/২০২১খ্রিঃ দিবাগত রাত অনুমান ০২.০০ ঘটিকার সময় গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় বাকলিয়া থানা পুলিশের চৌকস দল।
সাইফুল ইসলাম বাবু (২০) ও  মোঃ মহিউদ্দিন (২৯)দেরকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, চকবাজার থানাধীন ডিসি রোড চাঁন মিয়া মুন্সি লেইন এলাকা ভিত্তিক ইট-বালি ব্যবসা, ক্লাব ভিত্তিক নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পূর্ব পরিকল্পনার অংশ হিসেবে তারা মোঃ আশিকুর রহমান রোহিত (২০)কে হত্যা করে।  ঘটনার পরপরই মোঃ মহিউদ্দিন (২৯) মুখের দাঁড়ি ফেলে এবং সাইফুল ইসলাম বাবু (২০) বেশভূষা পরিবর্তন করে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে ভারতে পালানোর উদ্দেশ্যে প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য ঢাকায় অবস্থান করছিল। মামলার ঘটনায় জড়িত অন্যান্য পলাতকদের অবস্থান নির্ণয় ও গ্রেফতারের লক্ষ্যে জিজ্ঞাসাবাদের নিমিত্তে ১০(দশ) দিনের পুলিশ রিমান্ডের আবেদন সহ আসামীদেরকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
গ্রেফতারকৃত আসামী নাম ও ঠিকানাঃ
১। সাইফুল ইসলাম বাবু (২০), পিতা- খায়রুল ইসলাম, মাতা-আমেনা বেগম, সাং-ঘাইমারা, রুস্তম আলীর বাড়ী, ঘাইমারা, থানা-লালমোহন, জেলা-ভোলা, বর্তমানে- আবু তাহেরের কলোনী, ৫নং রুম, কে.ডি.এস গলি, দেওয়ান বাজার,
থানা-বাকলিয়া, জেলা-চট্টগ্রাম, ২। মোঃ মহিউদ্দিন(২৯), পিতা- আলী করিম, সাং-আলী করিম ভবন, চাঁন মিয়া মুন্সি লেইন, ডিসি রোড, থানা-চকবাজার, জেলা-চট্টগ্রাম।

NO COMMENTS

Leave a Reply