Home চট্টগ্রাম আসন্ন ২৭ জানুয়ারী বুধবার চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ৭ নং পশ্চিম ষােলশহর...

আসন্ন ২৭ জানুয়ারী বুধবার চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ৭ নং পশ্চিম ষােলশহর ওয়ার্ড হতে জনগণের মনােনীত কাউন্সিলর জনাব মােঃ মােবারক আলী

0 0

আয়াজ আহমাদ :আর দেরি নই,পৌষের শীতকে বিদায় জানিয়ে, মাঘের শীতের হিমেল হাওয়ায় বদলের মধ্যে দিয়ে হতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন,আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থীদের মধ্যে জমে উঠেছে নির্বাচনী আমেজ।

পুরাতন প্রার্থীদের পাশাপাশি এবারো নির্বাচনে দেখা মিলবে অনেক নতুন প্রার্থী ও, এই সকল পূরাতন প্রার্থীদের নানামূখী চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিচ্ছেন নতুন প্রার্থীরা ও। সার্বিক উন্নয়ন করেছে তাদের ভবিষ্যত পরিকল্পনা।

ভোট যুদ্ধ,চসিক নির্বাচনের প্রচারণায় সরগরম বন্দরনগরী চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুক্রবার শুরু হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও নগরীতে ফিরেছে নির্বাচনী আমেজ।

ভোটগ্রহণ হবে ২৭ জানুয়ারি। এতে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থী যথাক্রমে ৭ ও ২২৫ জন (সাধারণ ও সংরক্ষিত)। চসিক নির্বাচনে ৪১টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার ১৯ লাখ ৫১ হাজার। ভোটকেন্দ্র ৭৩৫টি। 

আসন্ন ২৭ জানুয়ারী বুধবার চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ৭ নং পশ্চিম ষােলশহর ওয়ার্ড হতে জনগণের মনােনীত কাউন্সিলর তরুণ সমাজ সেবক , শিক্ষানুরাগী , সৎ ও যােগ্য ব্যক্তিত্ব পদপ্রার্থী জনাব মােঃ মােবারক আলী , টিফিন ক্যারিয়ার মার্কায় ভােট দিয়ে ।

এলাকার উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখার সুযােগ দিন ।  আপনাদের ভােটে নির্বাচিত কাউন্সিলর হিসেবে উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে আবারও আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন – ২০২১।

কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করছে । ৭ নং পশ্চিম ষােলশহর ওয়ার্ডে প্রায় ৪ লক্ষ মানুষের বসবাস , ভোটার সংখ্যা ৯০ হাজারের অধিক । আপনাদের প্রত্যাশা পূরণে নির্বাচিত কাউন্সিলর হিসেবে বিগত ৪ বছর ৮ মাস সময়ে ৪০,০১৬ টি জাতীয়তা সনদ , ৩৪,৩৭৩ টি জন্মনিবন্ধন সনদ ,

৬৭০ টি মৃত্যু সনদ , ২৭৬৮ টি ওয়ারিশ সনদ ও ৮,৫০২ টি বিভিন্ন প্রকার সনদ প্রদান করি । প্রতিদিন গড়ে ১০ থেকে ১৫ টি পাসপাের্ট আবেদন সহ বিভিন্ন প্রকার ডকুমেন্ট সত্যায়ন করে।

কোন রকম ভােগান্তি ছাড়াই এই কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে । ৪৫ হাজার পরিবারকে দেওয়া হয়েছে আর্বজনা রাখার বিন । ৩৫ টি ভ্যান এবং ৭ টি টমটম গাড়ী ৯৪ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী ডাের টু ডাের আর্বজনা অপসারণের কাজে নিয়ােজিত আছে । ৭৩০ সড়ক বাতি থেকে ১৩৮০ তে উত্তীর্ণ করা হয়েছে ।

ওয়ার্ড কার্যালয়কে নান্দনিক ভাবে সাজিয়ে করা হয়েছে গণমুখী , স্থাপন করা হয়েছেন নগর ডিজিটাল সেন্টার , দূর্যোগ মােকাবিলায় আধুনিক উদ্ধার সরঞ্জামাদী সহ ৫০ সদস্যের প্রশিক্ষিত আরবান ভলিন্টিয়ার টিম গঠন করা হয়েছে ।

অগ্নিকান্ডে ও বিভিন্ন দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলােকে সিটি কর্পোরেশন ও ব্যক্তিগত খাত থেকে দেওয়া হয়েছে ব্যাপক ত্রাণ সহায়তা । শিক্ষা ক্ষেত্রে অবদানের জন্য জাতীয় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা পদক -২০১৭ তে বিভাগীয় শ্রেষ্ঠ বিদ্যুাসাহী সমাজ কর্মী হিসেবে স্বীকৃতি প্রাপ্ত হয়েছিলেন  ।

প্রান্তিক জনগােষ্ঠীর জীবন মান উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ৪৬ লক্ষ টাকার অবকাঠামাে উন্নয়ন ছাড়াও অফেরতযােগ্য ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী অনুদান ,

শিক্ষা অনুদান , দক্ষতা অর্জনে প্রশিক্ষণ অনুদান প্রাপ্ত হয়েছে ১০৭৩ টি পরিবার , যার পরিমান ৭ কোটি ১৫ লক্ষ ৯ হাজার টাকা অত্র ওয়ার্ডে বয়স্কভাতা ও প্রতিবন্ধী ভাতা প্রাপ্ত হচ্ছে ১০০৯ জন , সহ শিক্ষা উপবৃত্তি ৪০ জন ।

স্বাস্থ্য সেবা খাতে ৪৫০ টি পরিবারকে ব্র্যাক স্বাস্থ্য সেবা কার্ড ও ১,০০০ পরিবারকে দেওয়া হয়েছে মেয়র হেলথ কার্ড , যার মাধ্যমে পরিবারের সকল সদস্য পাচ্ছে বিনামূল্যে নরমাল ও সিজার ডেলিভারী , দূর্ঘটনায় ৫০০০ / = টাকা অর্থ সহায়তা , বিনামূল্যে ঔষধ ও মেডিকেল টেস্ট সহায়তা ।

প্রতিটি আবাসিক সহ পাড়া মহল্লার অলি গলি সহ সকল স্থানে লেগেছে উন্নয়নের ছোঁয়া , প্রায় ১৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ১১৭ টি সড়ক উন্নয়ন করা হয়েছে । বাকী রয়েছে ১০ শতাংশ সড়ক ও অলি গলির উন্নয়ন । সুপেয় পানির জন্য চট্টগ্রাম ওয়াসাকে দিয়ে ওয়ার্ড এলাকায় প্রতিটি অলি গলিতে সরবরাহ লাইন স্থাপন করা হয়েছে ।

শীঘ্রই সংযােগ প্রদানের মাধ্যমে সুপেয় পানির সমস্যা থেকে মুক্তি পাবে ওয়ার্ড এলাকাবাসী , একই লাইন অগ্নিকান্ডের সময় পানির ব্যবস্থা রাখার জন্য ওয়াসার মাধ্যমে ফায়ার হাইডেন্ড স্থাপনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে ।

জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রথম ২ বছর ব্যাপক ভাবে মাটি উত্তোলন ও নালা সংস্কারের কাজ করলেও পরবর্তীতে জলাবদ্ধতা মেগা প্রকল্পের আওতায় সেনাবাহিনীর সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে জলাবদ্ধতা নিরসনে করণীয় নির্ধারণ করে খাল ও নালা উন্নয়নের কাজ চলমান আছে ।

এই কাজ সমাপ্ত হলে জলাবদ্ধতা মুক্ত ওয়ার্ড হিসেবে গণ্য হবে । ইতিমধ্যে আরাে ৮৫ কোটি টাকার উন্নয়নের কাজ টেন্ডারের প্রক্রিয়ায় রয়েছে , আপনাদের প্রত্যাশা পূরণে কাজ করতে আপনাদের মূল্যবান ভােট প্রত্যাশা করি ।

আমার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা -চলমান উন্নয়ন কাজ এগিয়ে নেওয়া । সেনাবাহিনীর মাধ্যমে জলাবদ্ধতা নিরসন কাজটি তদারকির মাধ্যমে আদায় করা ।

ওয়াসার স্থাপিত লাইন সচল করে , সুপেয় পানি প্রাপ্তি নিশ্চিত করা । সুয়ারেজ লাইন স্থাপনের ক্ষেত্রে অত্র ওয়ার্ডকে অগ্রাধিকার প্রদানে প্রয়ােজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ ।

যাতে মলমূত্রনালায় না ফেলে সুয়ারেজ লাইনের মাধ্যমে স্বাস্থ্যকর ওয়ার্ড প্রতিষ্ঠা সম্ভব হয় । সকল সড়ক হতে বিদ্যুৎ এর পােল অপসারণ করে মাটির নিচে বৈদ্যুতিক তার নিয়ে যাওয়া ।

ওয়ার্ড এলাকার সকল নালা নর্দমায় স্লব দিয়ে ঢেকে দেওয়া এবং সেগুলােকে ফুটপাত অথবা রাস্তার অংশ হিসেবে ব্যবহার করা । এতে নালায় মশক সৃষ্টিরােধ ও আর্বজনার মাধ্যমে নালা ভর্তি হওয়া রােধ সম্ভব হবে ।

ওয়ার্ডকে জিরাে গার্ভেজ বা শূণ্য বর্জ্যের ওয়ার্ড হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা ।ওয়ার্ডের সকল অলি – গলি সহ শতভাগ রাস্তা , পাকা রাস্তার আওতায় নিয়ে আসা এবং নিয়মিত সংস্কার কার্যক্রম পরিচালনা ।

  • মাদক * শিক্ষা , সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া উন্নয়ন অগ্রগতী অব্যহত রাখা , ক্ষেত্র অনুযায়ী মেধাবীদের স্ব – স্ব ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠায় সহযােগিতা করা । ও দারিদ্র জনগােষ্ঠীকে উচ্ছেদ এর বিরুদ্ধে আইনি সহযােগিতা অব্যহত রাখা ।

*শতভাগ প্রতিবন্ধি ও বয়স্কদের ভাতা প্রাপ্তি নিশ্চিত করা।

  • সরকারি ভাবে হাই স্কুল ও কলেজ প্রতিষ্ঠা করা ।

  • এলাকা ভিত্তিক শিশু পার্ক এবং তরুণদের কে বইমুখি করার জন্য লাইব্রেরী প্রতিষ্ঠা করা , বেকার যুবক – যুবতীদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা ।

  • বিবিরহাট কাঁচা বাজারকে কিচেন মার্কেট হিসেবে আধুনিকায়ন করা ।

  • সিটি কর্পোরেশনের উদ্দেগ্যে স্বল্পমূল্যের কমিউনিটি সেন্টার স্থাপন করা ।

পরিকল্পিত উন্নয়নের লক্ষে কাউন্সিলর পদে জনাব মােঃ মােবারক আলী টিফিন ক্যারিয়ার মার্কায় আপনার মূল্যবান ভােট দিয়ে জয়যুক্ত করে আপনাদের সেবা করার সুযােগ দিন ।

NO COMMENTS

Leave a Reply