Home চট্টগ্রাম কালেক্টরেটে কর্মরত সহকারীদের লাগাতার কর্মবিরতি স্থবির প্রশাসনিক কার্যক্রম

কালেক্টরেটে কর্মরত সহকারীদের লাগাতার কর্মবিরতি স্থবির প্রশাসনিক কার্যক্রম

0 0

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পরও অদ্যাবধি কালেক্টরেটে কর্মরত সহকারীদের সচিবালয়ের ন্যায় পদ-পদবী ও পদোন্নতি প্রদান না করায় বিভাগীয়, জেলা ও উপজেলা প্রশাসন এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসে কর্মরত লাগাতার কর্মবিরতির কারণে প্রশাসনিক কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে।

বিগত ৫দিন কর্মবিরতির কারনে, চট্টগ্রামের এডিএম কোর্ট, রাজস্ব কোর্ট রেকর্ডরুমসহ জেলার সব শাখার কাজকর্ম বন্ধ ছিল। ফলে জেলা প্রশাসনে সেবা পেতে আসা লোকজনের ব্যাপক ক্ষতি হয়।
এই বিষয়ে আন্দোলনকারীদের পক্ষে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, একদেশে দুই নীতি চলেনা ,

বঙ্গবন্ধুর বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই কিন্তু জন প্রশাসন মন্ত্রণালয় সচিবালয়, বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও ২২ টি দপ্তর পরিদপ্তরে পদবী ও বেতন গ্রেড উন্নতি শুধুমাত্র ইউএনও, ডিসি ও বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে কর্মরত সহকারীগনের কোন ধরনে সুযোগ সুবিধা প্রদান করেননি তারা চাকরিতে জীবন শেষেও কোনো পদোন্নতি না পেয়ে একই পদ থেকেই অবসরে যাচ্ছেন। এটা শেখ মুজিবের বাংলায় কখনও কাম্য নয়। তারা শ্রীঘই দাবী মেনে নিয়ে সহকারীদের কাজে ফিরে নেওয়ার উদাত্ত আহবান জানান।

এবং মাঠ প্রশাসনে কর্মরত বিভাগীয কমিশনার অফিস, জেলা ও উপজেলা প্রশাসনে কর্মরত সহকারীদের মনোবল সতেজ রেখে কাজের গতিশীলতা অব্যাহত রাখতে তাদের পদোন্নতিসহ পদবী পরিবর্তন করার জন্য জোর দাবী জানান। তারা সহকারীদের উত্থাপিত দাবী দাওয়াসমূহ জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে মুজিব বর্ষে বাস্তবায়নের জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে উদাত্ত আহবান জানান

সহকারীরা কালেক্টরেট সহকারী সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষিত কর্মসূচী অনুযায়ী ১৫ নভেম্বর হতে ৩০ ডিসেম্বর পর্য্যন্ত ১৫ দিন ব্যাপী পূর্ণ দিবস কর্মবিরতি কর্মসুচী পালন করছেন। এ উপলক্ষে এক সভা চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন চত্বরে বাকাসস চট্টগ্রাম জেলার সিনিয়র সহসভপতি জনাব স্বপন কুমার দাশ এর সভপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন; বিভাগীয় কমিটির সহ সভাপতি স্বদেশ শর্মা, আন্দোলন বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক উদয়ন কুমার বড়ুয়া চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক এসএম আরিফ হোসেন ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন ও নুরুল মুহাম্মদ কাদের।

বাকাসস চট্টগ্রাম জেলার মধ্যে বক্তব্য রাখেন, প্রদীপ কুমার চৌধুরী, মো: আবদুল মন্নান, আলী আজম খান, সোয়েব মোহাম্মদ দুলু, সাদিয়া নুর, শফিউল আলম, ফজলে আকবর চৌধুরী, সায়েদুল ইসলাম,রিয়াজ উদ্দীন আহম্মদ, পুতুল দত্ত, নাসরিন আক্তর, অপর্না দাশ, সৈয়দ মোহাম্মদ এরশাদ আলম। ।

NO COMMENTS

Leave a Reply