Home চট্টগ্রাম উত্তর জেলা জাপার সমাবেশে-রেজাউল ভূঁইয়া পল্লীবন্ধুর উন্নয়নের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে...

উত্তর জেলা জাপার সমাবেশে-রেজাউল ভূঁইয়া পল্লীবন্ধুর উন্নয়নের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিয়ে তৃণমূলে সংগঠন শক্তিশালী করতে হবে জাতীয় পার্টির

উত্তর জেলা জাপার সমাবেশে-রেজাউল ভূঁইয়া পল্লীবন্ধুর উন্নয়নের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিয়ে তৃণমূলে সংগঠন শক্তিশালী করতে হবে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় অতিরিক্ত মহাসচিব এডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া বলেছেন জাতীয় পার্টির ৯ বছরের শাসনামল ছিলো স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলার ইতিহাসে উন্নয়নের সোনালী সময়।

এই সময় পল্লীবন্ধু এরশাদ ২১টি মহকুমা ভেঙ্গে ৬৪টি জেলা ৪৬০টি উপজেলা সৃষ্টি করেছিলেন।চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পল্লীবন্ধুর সৃষ্টি, কাফকো সরকারখানা, কর্ণফুলী ২য় সেতুসহ শত শত ব্রীজ, হাজার হাজার কিলোমিটার পাকা রাস্তা করে দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থায় আধুনিকতার ছুঁয়া দিয়েছিলেন পল্লীবন্ধু।

গুচ্ছ গ্রাম, পথকলি ট্রাস্ট, জল যার জলা তার নীতি, ঔষধনীতি, শিল্পনীতি, নারী নির্যাতন প্রতিরোধ আইন, বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ আইন, শ্রমিকদের ২ ঈদে ২টি বোনাস, গ্রাচুয়েটি প্রদান, ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত নারী শিক্ষা অবৈতনিক করেছিলেন। বিভাগীয় পর্যায়ে হাইকোর্টের সার্কিট ব্রাঞ্চ স্থাপন করে আইনের শাসন জনতার দোর গোড়ায় পৌছে দিয়েছিলেন পল্লীবন্ধু।

তিনি বলেন দেশের মানুষ আর আওয়ামী লীগ-বিএনপিকে নয় আগামীতে জাতীয় পার্টিকে দেশ পরিচালনায় দেখতে চায়। আমাদের রয়েছে গৌরবোজ্জ্বল সোনালী ইতিহাস, আছে একগুচ্ছ উন্নয়ন অগ্রগতির কর্মসূচী, দরকার এখন তৃণমূলে শক্তিশালী সংগঠন। তিনি পল্লীবন্ধুর উন্নয়নের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে নেতাকর্মীদের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।

তিনি আজ ২৩ নভেম্বর সকাল ১১ টায় চট্টগ্রাম উত্তর জেলা জাতীয় পার্টির এক প্রতিনিধি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। নগরীর পুলিশ প্লাজা অডিটরিয়ামে জেলা জাপার সাবেক আহবায়ক শায়েস্তা খান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব শফিক উল আলম চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাপা প্রেসিডিয়াম সদস্য আলমগীর শিকদার লোটন,

নাজমা আক্তার এমপি, এমরান হোসেন মিয়া, ভাইস চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শামশুল আলম মাস্টার, আলহাজ্ব দিদারুল কবির দিদার, লুৎফুর রেজা খোকন, মৌলভী মোহাম্মদ ইলিয়াস, যুগ্ম মহাসচিব হাজী বেলাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক অলি উল্লাহ চৌধুরী মাসুদ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্রী তপন চক্রবর্ত্তী, যুব সংহতির কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা জাপা নেতা মেজবাহ উদ্দিন আকবর চেয়ারম্যান,

লায়ন মহিন উদ্দীন চৌধুরী, সীতাকুণ্ড উপজেলার সভাপতি রেজাউল করিম বাহার, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম, হাটহাজারীর, সাধারণ সম্পাদক লোকমান সিকদার, রাঙ্গুনিয়া উপজেলার আহ্বায়ক সাজ্জাদ হোসেন, সদস্য সচিব মেহেদী রাশেদ,

ফটিকছড়ি উপজেলা আহবায়ক এম এ আবুল হাশেম, সদস্য সচিব শেখ শফিউল আজম, মীরসরাই উপজেলা সদস্য সচিব আলমগীর হোসেন, জেলা যুব সংহতির সদস্য সচিব কাজল চৌধুরী, জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির আহবায়ক শফিকুল আলম চৌধুরী লিটন, সদস্য সচিব শাহীন পলাশ, জেলা ছাত্র সমাজের আহ্বায়ক মাসুদুর রশিদ প্রমুখ।

NO COMMENTS

Leave a Reply