Home রাজশাহী রাজশাহীতে প্রাণ আরএফএল গ্রুপের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

রাজশাহীতে প্রাণ আরএফএল গ্রুপের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

0 0

লিয়াকত রাজশাহী ব্যুরোঃ আজ মঙ্গলবার রাজশাহীর গােদাগাড়ী উপজেলার আমানতপুরে বরেন্দ্র ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের আয়োজনে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মতবিনিময় সভায় প্রাণ আরএফএল গ্রুপের পরিচালক ( বিপণন ) কামরুজ্জামান কামাল বলেন, প্রাণ গ্রুপের অন্যতম উদ্দেশ্য কৃষি পণ্যের সম্প্রসারণ ও কৃষকদের আর্থ – সামাজিক উন্নয়ন ।
গোদাগাড়ীতে বরেন্দ্র ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক স্থাপনের মূল উদ্দেশ্য রাজশাহী অঞ্চলের কৃষকদের উৎপাদিত ফসল কোন ধরনের মধ্যস্বত্বভােগী ছাড়াই তারা যেন স্বল্প পরিবহন খরচে বিক্রি করতে পারেন ।
এ জন্য দেশের শীর্ষ স্থানীয় শিল্প প্রতিষ্ঠান প্রাণ – আরএফএল গ্রুপ রাজশাহীর গোদাগাড়ীর আমানতপুরে ২০১৭ সালে ১০২ বিঘা জমির উপর বরেন্দ্র ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক গড়ে তুলেছে।

আমরা গােদাগাড়ীতে কারখানা করেছি পণ্যের কাঁচামালের প্রাপ্যতার কথা চিন্তা করে । এখানে যদি গ্যাস সংযােগসহ বিনিয়ােগের অনুকূল পরিবেশ তৈরি হয় তাহলে শুধু প্রাণ – আরএফএল নয় ; আরও অনেক কোম্পানি কারখানা স্থাপনের আগ্রহ দেখাবে । এই বিষয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযােগিতা সবচেয়ে বেশি দরকার । এর ফলে এ অঞ্চলে কর্মসংস্থানসহ আর্থ – সামাজিক অবস্থার ব্যাপক পরিবর্তন ঘটবে ।

এখানে বর্তমানে প্রাণ -গ্রুপের বরেন্দ্র ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে মেীসুমভেদে এখন আম , টমেটো , জলপাই , পেয়ারাসহ কয়েকটি পণ্য সংগ্রহ ও পাল্পিং হচ্ছে।অতি শীঘ্রই তরমুজ ,আনারস ,শসা, অ্যালোভেরার পাল্পিং শুরু হবে ।

এছাড়া প্রয়ােজনীয় সহায়তা পেলে আগামীতে হিমায়িত খাদ্য ( ফ্রোজেন ফুডস ) , নুডুলসসহ বিভিন্ন খাদ্যপণ্য উৎপাদনের পরিকল্পনা রয়েছে দেশের শীর্ষস্থানীয় এ শিল্প গ্রুপের । কারখানা পুরােদমে শুরু হলে চার থেকে পাঁচ হাজার লােকের কর্মসংস্থান হবে , যার ৯৫ শতাংশ হবে স্থানীয় ।

কামরুজ্জামান কামাল আরও বলেন, এরই মধ্যে বরেন্দ্র ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে স্বল্প পরিসরে আম , টমেটো , পেয়ারা ও জলপাই সংগ্রহের পাশাপাশি কমপােস্ট সার উৎপাদন হচ্ছে । এর সুফল পেতে শুরু করেছেন স্থানীয় কৃষক ও সাধারণ মানুষ । কেননা এই কর্মকান্ডের ফলে কৃষকরা কারখানায় পণ্য সরবরাহ শুরু করেছেন ।
প্রাণ – আরএফএল গ্রুপ কারখানা স্থাপনের ক্ষেত্রে মানসম্পন্ন পণ্য উৎপাদন ,

স্থানীয় পর্যায়ে ব্যাপক কর্মসংস্থান এবং আর্থ – সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি পরিবেশ সুরক্ষার বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে থাকে । আমরা এরই মধ্যে গ্যাস সংযোগ পাওয়ার জন্য আবেদন করেছি । যদি গ্যাস সংযােগ ও অন্যান্য প্রয়ােজনীয় বিষয়গুলোতে সরকারের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের সহায়তা পাই তবে শিগগিরি হিমায়িত খাদ্য , নুডুলস উৎপাদন হবে এবং এগুলাে বিদেশে রপ্তানি করা হবে ।

বর্তমানে কারখানায় মৌসুম ভেদে এক থেকে দেড় হাজার শ্রমিক কাজ করছে । নতুন প্রান্ট চালু করা গেলে স্থানীয়দের জন্য ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুযােগ তৈরি হবে । তিনি বলেন , ‘ প্রাণ – আরএফএল গ্রুপের পণ্য এখন বিশ্বের ১৪১ টি দেশে রপ্তানি হচ্ছে ।

বরেন্দ্র ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার সারােয়ার হােসেন বলেন , একটা সময় দাম কম হওয়ার কারণে জমিতেই কৃষকের টমেটো নষ্ট হয়ে যেত । ২০১৮ সালের পর থেকে সেই পরিস্থিতি পরিবর্তন হতে শুরু করেছে । কৃষকরা এখন প্রকৃত দামে টমেটো বিক্রি করছে এবং এরই মধ্যে এই অঞ্চলে টমেটোর উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে।
আমরা কারখানায় তরমুজ , আনারস , শসা , অ্যালােভেরার পাল্পিং করার জন্য পরীক্ষামূলক কাজ করেছি । তিনি আরও বলেন , ক্রেতারা যেন উৎকৃষ্ট মানের পণ্য পায় সেজন্য আমরা পণ্যের কাঁচামালকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকি । কারখানায় অত্যাধুনিক মেশিনে সম্পূর্ণ অ্যাসেপটিক পদ্ধতিতে পাল্পিং করা হয় । এখানে বর্জ্য দুটি অংশ বিভক্ত হয়ে খোসা থেকে জৈব সার ও আটি থেকে জ্বালানি তৈরি হওয়ায় কারখানাটি সম্পূর্ণ পরিবেশবান্ধব । কারখানার তরল বর্জ্যের জন্য বর্তমানে একটি ইটিপি রয়েছে ।

এ মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন
প্রাণ – আরএফএল গ্রুপের সিনিয়র ম্যানেজার ( জনসংযােগ ) তৌহিদুজ্জামান , ডেপুটি ম্যানেজার মাকছুদ – উল – ইসলাম জোয়াদ্দারসহ প্রাণ আরএফএল গ্রুপের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

NO COMMENTS

Leave a Reply