Home চট্টগ্রাম জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর বিভাগীয় কার্যালয় চট্টগ্রামের যৌথ উদ্যোগে অনিবাসী বাংলাদেশীদের সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ...

জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর বিভাগীয় কার্যালয় চট্টগ্রামের যৌথ উদ্যোগে অনিবাসী বাংলাদেশীদের সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করণসভা অনুষ্ঠিত হয়

0 0

( ০৫ নভেম্বর):জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস চট্টগ্রাম এবং জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর বিভাগীয় কার্যালয় চট্টগ্রামের যৌথ উদ্যোগে অনিবাসী বাংলাদেশীদের সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করণসভা অনুষ্ঠিত হয়।

আজ বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের সম্মেলনকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সভায় জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক শাহানারা বেগম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এসময় জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি, অফিস চট্টগ্রামের উপপরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল আলম মজুমদার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সঞ্চয় অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ জাবেদ ইসলাম, সুদীপ্তা চৌধুরী, অপর্ণা সূত্রধর, জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি দপ্তরের জনশক্তি জরিপ কর্মকর্তা আনার কলিসহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে জানিয়েছেন, প্রবাসীদের উপার্জনের টাকা জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরে বিনিয়োগ করতে পারেন। এতে প্রবাসী নিজেও লাভবান হবেন। অপরদিকে সরকারও লাভবান হবেন। তিনি বলেন, অনেক সময় প্রবাসীরা কষ্টার্জিত টাকা সঠিকভাবে বিনিয়োগ করতে পারেন না। সঠিক বিনিয়োগের মাধ্যমে নিজের এবং সরকারের লাভবান হওয়া সম্ভব।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি, অফিস চট্টগ্রামের উপপরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল আলম মজুমদার জানিয়েছেন, বর্তমানে ১ কোটি ৩০ লক্ষ প্রবাসী রয়েছেন। প্রবাসীরা গত অর্থবছরে ১৮ কোটি বিলিয়ন ইউএস ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এবছর ২০ কোটি বিলিয়ন ইউএস ডলার রেমিট্যান্সের টার্গেট রয়েছে। প্রবাসীরা বাংলাদেশের বেকাত্বের সমস্যা দূর করার পাশাপাশি অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতেও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছেন।

উপপরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল আলম মজুমদার জানিয়েছেন, বৈধপথে বিদেশ গমনের বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক পন্থা না জানার কারনেই অনেকে যাত্রপথে বিপদগ্রস্থ হয় এবং অভিবাসনের প্রক্রিয়াটি থাকে ত্রুটিপূর্ণ। এতে কর্মীর পাশাপাশি দেশও বঞ্চিত হয় মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন থেকে। সে লক্ষ্যে সরকার প্রবাসীদের বিদেশ গমনের পূর্বে তিন দিনের অরিয়েন্টেশন কর্মশালার আয়োজন করে থাকে। এ কর্মশালায় প্রবাসীদের সঞ্চয়ের বিষয়ে জোরালো আহ্বান জানানোর আহ্বান জানানো হয়।

প্রবাসীদের সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করা প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের একটি কাজ উল্লেখ করে উপপরিচালক আরো জানিয়েছেন, চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমান বন্দরের প্রবাসী কল্যাণ ডেক্স রয়েছে। দায়িত্বরত কর্মকর্তাগণ প্রবাসীদের পাঠানো অর্থের একটি অংশ সরকারের জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরে বিনিয়োগের পরামর্শ দিবেন বলে মন্তব্য করেন।

মোহাম্মদ জহিরুল আলম মজুমদার আরো জানিয়েছেন, প্রবাসী কর্মীবান্ধব সরকার অভিবাসনে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা নিশ্চিতকল্পে ১৬ টি অভিবাসনপ্রবণ দেশের সার্ভিজ চার্জ কমিয়ে বিদেশ গমোনেচ্ছুদের সাধ্যের মধ্যে রেখেছেন।

NO COMMENTS

Leave a Reply