Home চট্টগ্রাম ধর্ষক-লুটেরা-দূর্নীতিবাজদের গ্রেফতার করুন-জাতীয় যুবজোট”কক্সবাজারে জাতীয় যুব জোটের মানব বন্ধনে বক্তারা”

ধর্ষক-লুটেরা-দূর্নীতিবাজদের গ্রেফতার করুন-জাতীয় যুবজোট”কক্সবাজারে জাতীয় যুব জোটের মানব বন্ধনে বক্তারা”

0 0

কক্সবাজার প্রতিনিধি, ১১ অক্টোবর।ধর্ষক, লুটেরা, দূর্নীতিবাজ ও জাতীয় সম্পদ লুন্ঠনকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবী জানিয়েছেন জাসদের সহযোগী সংগঠন জাতীয় যুব জোট কক্সবাজার জেলা শাখা।
রবিবার (১১ অক্টোবর), সকাল ১১টায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে শহীদ সুভাষ-ফরহাদ চত্ত্বরে জাতীয় যুব জোট কক্সবাজার জেলা সভাপতি অজিত কুমার দাশ হিমুর সভাপতিত্বে এক প্রতিবাদী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন- জাসদ কক্সবাজার জেলার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি জননেতা নইমুল হক চৌধুরী টুটুল।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- জাসদ কক্সবাজার জেলার সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আবুল কালাম আজাদ।
আরো বক্তব্য রাখেন- জাসদ কক্সবাজার জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো: হোসাইন মাসু, সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট রফিক উদ্দিন চৌধুরী, সিনিয়র সদস্য মো: জাকারিয়া, শহর জাসদ সাধারণ সম্পাদক নুর আহমদ, যুবজোট উখিয়া উপজেলা সভাপতি একরামুল হক কন্ট্রাক্টার, রামু উপজেলা যুব জোট সভাপতি শহিদুল ইসলাম খোকন, সদর উপজেলা যুবজোট সাধারণ সম্পাদক মো: আমান উল্লাহ আমান, সহ-সভাপতি আবদু সালাম মুন্সি, যুবজোট নেতা মাষ্টার অনিল দাশ, নুরুল হক, যুবজোট নেত্রী মুন্নি বেগম, শ্রমিক জোট সাধারণ সম্পাদক আসাদুল হক আসাদ, লোড আন-লোড শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন সবুজ, যুবজোট নেতা বেলাল উদ্দিন, মো: আদিল হাসান প্রমুখ।

এ মানববন্ধনে জাতীয় যুবজোটের পক্ষ থেকে, ধর্ষকদের কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করার জন্য, আসন্ন জাতীয় সংসদ অধিবেশনে, “নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০” এর সুনির্দিষ্ট সংশোধনী দেয়ার আহবান জানানো হয়। যথা- (ক) ধর্ষকের একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদন্ড। (খ) ধর্ষণ মামলার তদন্ত অবশ্যই ১মাসের মধ্যে শেষ করতে হবে। (গ) পুলিশের নূন্যতম পরিদর্শক পদমর্যাদার অফিসার ছাড়া ধর্ষণ মামলা তদন্ত করা যাবে না।

(ঘ) বিশেষ ট্রাইবুনালে এ মামলার বিচার কার্যক্রম পরিচালিত হতে হবে। (ঙ) ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে মামলার রায় দিতে। (চ) ফাঁসির রায় কার্যকর করতে হবে প্রকাশ্য দিবালোকে উন্মুক্ত স্থানে ফায়ারিং এর মাধ্যমে যাহা সরাসরি সম্প্রচার করতে হবে।(ছ) ধর্ষকের স্থাবর-অস্থাবর সমস্ত সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে ধর্ষিতাকে ক্ষতিপূরন হিসেবে দিতে হবে। যদি ধর্ষকের নাবালক সন্তান থাকে তবে তারা সবাইমিলে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির মাত্র ২৫% পাবে।
সংশোধিত আইনে এ বিধানগুলি সংযোজন হওয়া একান্ত প্রয়োজন।

NO COMMENTS

Leave a Reply