Home অপরাধ দায়বদ্ধতার সানইবোর্ড দেয়নি। ফলে একই জমি দেখিয়ে বারবার ঋণ জালিয়াতি করার সুযোগ...

দায়বদ্ধতার সানইবোর্ড দেয়নি। ফলে একই জমি দেখিয়ে বারবার ঋণ জালিয়াতি করার সুযোগ পায় প্রতারক এইচএম এন আলম।

দায়বদ্ধতার সানইবোর্ড দেয়নি। ফলে একই জমি দেখিয়ে বারবার ঋণ জালিয়াতি করার সুযোগ পায় প্রতারক এইচএম এন আলম। এর ফলে ভুয়া জামানত বা একই দলিল দেখিয়ে একাধিক ব্যাংক থেকে জালিয়াতির মাধ্যমে ঋণ নেওয়া বন্ধ হচ্ছে না।

এব্যাপারে এইচএম নুরুল আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, দুদক চিঠি দিয়েছে, তা জবাব দিয়েছে। ব্যাংক আমাকে যে ঋণ দিচ্ছে তা সম্পত্তির অনুকুলে দিচ্ছে। বাঁকখালী নদীর ধানি জমির বিষয়ে তিনি বলেন, জমিগুলো একসময় ধানি ছিল, আস্তে আস্তে বাঁকখালী নদীর গর্ভে চলে গেছে।

অনুসন্ধানে দেখা যায়, এইচ এম এন আলম সদরের ১১৩৩৪ নং এর একটি ভুয়া খতিয়ানে জমি আমোক্তার নাম নিয়ে সেই জমি ‘বন্ধক’ রেখেও ব্যাংক থেকেও ঋণ নিয়েছে বলে অভিযোগ।

অবশ্য ভুঁয়া খতিয়ানটি সহকারী কমিশনার (কক্সবাজার সদর) অফিস স্থগিত করে দিলেও ঋণের বন্ধকী সম্পত্তি হিসেবে ওই জমি ‘বন্ধক’ রাখা হয়। কিন্তু জমির কথিত মালিক ঋণের গ্রাহক এইচএম এন আলমের অনুকূলে ওই জমির নামজারি হয়নি।

এন আলম কয়েক বছর ব্যাংকের সঙ্গে স্বাভাবিক লেনদেন করে ভুয়া জমির ও স্থায়ী সম্পদ মর্টগেজ দেখিয়ে অর্ধশ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে পরিশোধ করবে কিনা তা নিয়েও শংকা দেখা দিয়েছে না।

NO COMMENTS

Leave a Reply