Home চট্টগ্রাম চট্টগ্রাম কলেজ ও মহসিন কলেজের একাদশ শ্রেণীর অনলাইন ভর্তি ফি জমা রুপালী...

চট্টগ্রাম কলেজ ও মহসিন কলেজের একাদশ শ্রেণীর অনলাইন ভর্তি ফি জমা রুপালী ব্যাংক শিওরক্যাশে।

চট্টগ্রাম নগরীর ঐতিহ্যবাহী ও স্বনামধন্য শীর্ষ দুই কলেজ চট্টগ্রাম কলেজ ও সরকারি হাজী মোহাম্মদ মহসিন কলেজ এইবার একাদশ শ্রেণীর ভর্তি কার্যক্রম অনলাইনে সম্পন্ন করে। কোটায় মনোনিত শিক্ষার্থী ব্যাতিত বাকি সবাই ঘরে বসে রুপালী ব্যাংক শিওরক্যাশে ভর্তি ফি জমা দিয়ে ফরম ফিলাপের মাধ্যমে তাদের ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করে।

প্রতি বছর এই দুই কলেজে ভর্তির জন্য মনোনিত শিক্ষার্থীদের মধ্যে একটি বিশাল অংশ দক্ষিণ চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা চন্দনাইশ, লোহাগাড়া, সাতকানিয়া, বাঁশখালী সহ অন্যান্য জেলা কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি থেকে আগত হয়। এবারও এসব জেলা উপজেলা থেকে অসংখ্যা ছাত্র-ছাত্রী এই দুই কলেজে পড়ার সুযোগ পেয়েছে।

কিন্তু এবার করোনা মহামারি ও সাধারণ ফ্লু বা জ্বরের তীব্র প্রকোপ এর কারণে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকসহ চট্টগ্রামে এসে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করা অনেকটা কঠিন হয়ে পড়ত।

শেষ মুহুর্তে চট্টগ্রাম কলেজ ও সরকারি হাজী মোহাম্মদ মহসিন কলেজ কর্তৃপক্ষের সুবিবেচিত ও দূরদর্শিতাপূর্ণ সিদ্ধান্তের কারণে এসকল শিক্ষার্থী এবং অভিভাবক ঘরে বসেই ভর্তি কার্যক্রমের সুযোগ পায়।

এই প্রসংগে কথা হলে রাঙ্গামাটি থেকে চট্টগ্রাম কলেজে ভর্তির জন্য মনোনিত শিক্ষার্থীর অভিভাবক জানান, ” এই সময়ে বাসে করে ছেলেকে নিয়ে চট্টগ্রামে গিয়ে এত লোকের ভিতরে ভর্তি করানো যাওয়া আসা তে একটু ভয় ও সংশয় ত ছিলই। তবে কলেজ অনলাইনে ভর্তির সুযোগ দিয়ে আমাদের সেই ভয় ও সংশয় কেটে দেয়। আমার ছেলে নিজে নিজেই রুপালী ব্যাংক শিওরক্যাশে তার ভর্তির টাকা জমা দিয়েছে।আমি রাঙ্গামাটি থেকেই আমার ছেলের ভর্তির সব কাজ শেষ করতে পেরেছি।”

এছাড়া এই দুই কলেজে মনোনিত শিক্ষার্থীদের সকল ধরণের নোটিশ ও তথ্য সহায়তা দিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সার্বক্ষণিক সক্রিয় ছিল কলেজ ছাত্রলীগ নিয়ন্ত্রিত কয়েকটি ফেইজবুক গ্রুপ। ভর্তির জন্য মনোনিত নবীন শিক্ষার্থীরা যাতে কলেজের ভর্তির যাবতীয় তথ্য খুব সহজে ও দ্রুততার সাথে জানতে পারে এজন্য চট্টগ্রাম কলেজ কেন্দ্রীক ফেইসবুক গ্রুপ “Chittagong College ” ও ” চট্টগ্রাম কলেজ নোটিশ বোর্ড-ছাত্র-ছাত্রীদের সার্বক্ষণিক সহযোগিতা দিয়ে গেছে। সরকারী হাজী মোহাম্মদ মহসিন কলেজের “Mohsin college notice board ” এ মহসিন কলেজের ভর্তির জন্য মনোনিত শিক্ষার্থীরা সকল ধরণের তথ্যগত সহযোগিতা পেয়েছে।

এই বিষয়ে চট্টগ্রাম কলেজের একাদশের নবীন শিক্ষার্থী হাসানুল কবির আমাদের জানান ” ডিজিটাল বাংলাদেশে আমরা এখন তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারে অনেক আপডেটেড। তাই আমরা যারা তরুণ আমরা যে কোন কাজ সহজে নিজে নিজেই করার চেষ্টা করি। কলেজের ভর্তিটা সম্পূর্ণ অনলাইনে হওয়াতে আমি নিজেই আমার ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পেরেছি। রুপালী ব্যাংক শিওরক্যাশের মাধ্যমে ভর্তি ফি জমা দিয়ে নিজেই অনলাইনে ফরম পূরণ করে প্রিন্ট করে নিয়েছি। এছাড়া চট্টগ্রাম কলেজে চান্স পাওয়ার সাথে সাথে ফেইসবুকে সার্চ দিয়ে চট্টগ্রাম কলেজের গ্রুপগুলোতে এড হয়ে নিয়েছিলাম। এতে কলেজের ভর্তির সকল তথ্য সাথে সাথেই পেয়েছি। গ্রুপ গুলোতে আন্তরিকতার সাথেই সবাই অনেক সাহায্য করেছে যখনি কিছু জানতে ছেয়েছি।”

বিশিষ্টজনদের মতে স্বাস্থবিধি মেনে ভর্তি প্রক্রিয়া পরিচালনার জন্য বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের যেসব নির্দেশিকা ছিল, অনলাইনে ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনার কারণে তা শতভাগ পালন করতে পেরেছে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী চট্টগ্রাম কলেজে ও সরকারি হাজী মোহাম্মদ মহসিন কলেজে। কলেজ ছাত্রলীগের অনলাইনে সহযোগিতার ব্যাপারে তাদের বক্তব্য ” যে কোন পরিস্থিতি অনুযায়ী সব সময় ছাত্র-ছাত্রীদের পাশে দাড়ানো ছাত্রলীগের দায়িত্ব। যেহেতু শিক্ষার্থীরা কলেজে ক্যাম্পাসে না এসেই ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করবে তাই তাদের অনলাইনেই সহযোগিতা প্রয়োজন ছিল। তারা যেমনি ঘরে বসে ভর্তির সুযোগ পেল তেমনি ঘরে বসেই সকল সহযোগিতা পেয়ে গেল অনলাইনে। এইটাই ত শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ। এই করোনাকালেও চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ যেভাবে ছাত্র-ছাত্রী ও সাধারণ জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে তা সবার জন্য।

NO COMMENTS

Leave a Reply