Home চট্টগ্রাম বোয়ালখালীতে করোনার নমুনা সংগ্রহই নেশা জুয়েল দাশের

বোয়ালখালীতে করোনার নমুনা সংগ্রহই নেশা জুয়েল দাশের

0 0

সি টি জি ট্রিবিউন সৈয়দ মো: নজরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জুয়েল দাশ মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (ল্যাব) পদে কর্মরত। করোনা মহামারীর শুরু থেকে নমুনা সংগ্রহে ছুটছেন উপজেলার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে। মনে অদম্য সাহস নিয়ে ছুটে চলা জুয়েল কে ছোঁয়নি করোনার ভয়।

তবে চোখে-মুখে ক্লান্তির চাপ থাকলেও দমে যাননি। সরে যাননি নমুনা সংগ্রহ থেকে। নমুনা সংগ্রহ করাই যেন এখন জুয়েলের নেশা হয়ে উঠেছে। গত ৩ মাসে বোয়ালখালীতে নয়শত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে প্রায় ৭২০ জনের নমুনা জুয়েল নিজেই সংগ্রহ করেন। বাকি নমুনা সংগ্রহে সহযোগিতা করেন । ই পি আই টেকনোলজিস্ট এস এম জিহাদ বাবলু এ উপজেলায় বর্তমানে করোনা পজিটিভ রোগী ২৪৫ জন।

চট্রগ্রাম জেলার রাংগুনিয়া উপজেলার বাসিন্দা জুয়েল ২০০৪ সালে খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চাকরিতে যোগদান করেন। পরে ২০০৯ সালে বদলি হন পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। ২০১৩ সালে রাংগুনিয়া থেকে ডেপুটেসনে নয় মাস রাউজান ছিলেন। ২০১৩ সালের শেষেরm দিকে বোয়ালখালী বদলী হয়ে আসেন। জুয়েল জানান, ২৬ মার্চ থেকে বোয়ালখালী নমুনা

সংগ্রহ শুরু করেন। এ
র আগে কীভাবে নমুনা সংগ্রহ করা হবে, সে বিষয়ে অভিজ্ঞতার জন্য অনলাইনে একদিনের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। সোমবার পর্যন্ত এ উপজেলায় সংগৃহীত হয় ৯০১টি নমুনা। এখন পর্যন্ত একটি নমুনা বাতিল হয়নি। জুয়েল আরও জানান, শুরুতে নমুনা সংগ্রহ যথাযথ হচ্ছে কি না বা নিজে আক্রান্ত হচ্ছেন কি না, তা নিয়ে ভয় কাজ করেছিল। অপরদিকে নমুনা সংগ্রহ, সংরক্ষণ, লেবেলিং যথাযথ হচ্ছে কি না এবং ল্যাব থেকে নমুনা ফিরিয়ে দেয়ার সম্ভাবনা ইত্যাদি বিষয় মাথায় রেখে নমুনা সংগ্রহে কাজ শুরু করেন।

এ জন্য প্রশিক্ষণের পাশাপাশি গুগল-ইউটিউব থেকেও বিশ্বের অন্যান্য দেশে নমুনা সংগ্রহের বিষয়টি আয়ত্ত করেন জুয়েল । এর মধ্যে চলতি মাসের ১৯ তারিখ শারীরিক অসুস্থতা দেখা দেয়। জ্বরের পাশাপাশি শরীরে ব্যথা এবং ডায়রিয়া দেখা দেয়। বাসায় আছে স্ত্রীসহ ছোট দুই ছেলে মেয়ে । পরীক্ষার জন্য তার নমুনা পাঠানো হয় ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি ল্যাবে।রিপোর্ট আসার আগ পর্যন্ত তাকে পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে আলাদা থাকতে হয়।

বোয়ালখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র জানায়, বর্তমান পরিস্থিতিতে বোয়ালখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২৩ জন চিকিৎসক কর্মরত আছেন। কিন্তু এর বিপরীতে টেকনোলজিস্ট আছে মাত্র একজন। সহযোগী হিসেবে ইপিআই টেকনোলজিস্ট থাকলেও একজন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট ল্যাব এর পক্ষে টানা নমুনা সংগ্রহ করা সম্ভব নয় । এরপর ও জনবল সংকটের কারণে তাকে কাজ করতে হচ্ছে।

ল্যাব টেকনোলজিস্ট জুয়েল দাশ কাজে কখনো অনীহা প্রকাশ করেন নাই। সবসময়ই মানবতার সবাই হাসিমুখে কাজ করে যাচ্ছে, সবাই তার জন্য দোয়া করবেন, যাতে সুস্থ থেকে সেবা দিয়ে যেতে পারেন।

NO COMMENTS

Leave a Reply