Home রাজনীতি তৃণমূল এনডিএম’র মৃত্যুবরণকারী নেতাদের শোক সভায় জননেতা খোকন চৌধুরী

তৃণমূল এনডিএম’র মৃত্যুবরণকারী নেতাদের শোক সভায় জননেতা খোকন চৌধুরী

0 62

সি টি জি ট্রিবিউন নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের স্বাধীনতা উত্তর প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে তাদের অবদান ছিল অবিস্মরণীয়
তৃণমূল এনডিএম’র চেয়ারম্যান ও মেয়র পদপ্রার্থী জননেতা খোকন চৌধুরী
বলেছেন, গণপ্রজান্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মাদ নাসিম,
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ, সিলেটের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ
কামরান ও সাংবাদিক কামাল লোহানীসহ তৃণমূল এনডিএম’র স্থায়ী কমিটির সদস্য
রাজ্জাকুল হায়দার, স্থায়ী কমিটির সদস্য মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন কবীর
ভুঁইয়া, কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও গাইবান্ধা জেলার সমন্বয়কারী মো. ফুল
মিয়া, কেন্দ্রীয় সদস্য এবং সাবেক চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম
হায়দারের মৃত্যুতে বাঙালী জাতি সৎ, নির্ভীক, আদর্শবান, রাজনীতিকদেরকে
হারালো। তাদের শূন্যতা পূরণ হবার নয়। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ও তৃণমূল
এনডিএমকে যোগ্য নেতা হিসেবে যেমন তারা দলকে পরিচালিত করেছেন তেমনি
যোগ্যতার সাথে দায়িত্ব পালনও করে গেছেন। কেউ কেউ মন্ত্রী ও মেয়র হিসেবেও
অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন তারা। তেমনি তৃণমূল এনডিএমের নেতারা দলকে
সামনের দিকে এগিয়ে নেয়ার জন্য অনেক ত্যাগ-তিতিক্ষা স্বীকার করে গেছেন।
বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা যে ক’জন নেতাকে নিয়ে গর্ব করেন তাদের অন্যতম
ছিলেন ঐ নেতাগুলো। বাংলাদেশের স্বাধীনতা উত্তর প্রতিটি আন্দোলন-সংপ্রামে
তাদের অবদান ছিল অবিস্মরণীয়। তাদের কর্মময় জীবনের নানা দিক তুলে ধরে
তাদের অবদানের কথা স্মরণ করেন তিনি। তিনি আজ ২৬ জুন শুক্রবার চট্টগ্রাম
প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে সকাল ১১ টায় তৃণমূল এনডিএম’র উদ্যোগে
মৃত্যুবরণকারী নেতাদের শোক ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা
বলেন। সভায় প্রয়াত নেতাদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া
করা হয়। তিনি আরো বলেন, করোনা ভাইরাসের মধ্যেও সরকার প্রধান তার
দৃঢ়মনোবলের কারণে আজ জনগণের জন্য একটি যুগোপযোগী বাজেট ঘোষণা করেছেন। যা
ভবিষ্যতে আমাদের জন্য কল্যাণ বয়ে আনবে। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসে দেশের
মানুষকে বাঁচানোর জন্য সেনাবাহিনী, পুলিশ, র‌্যাবসহ সরকারের বিভিন্ন স্তর
ও বিভিন্ন রাজনীতিবিদ অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তাদেরকে আমার দলের
পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তিনি বলেন, রাজনীতির
অংগনে আজ শূন্যতা বিরাছ করছে। তারা একদিকে যেমন ছিলেন সমাজের শীর্ষ
পর্যায়ের মানুষ, অপর দিকে তাঁদের শেকড় ছিল অতি সাধারণ গণ-মানুষের মধ্যে
প্রোথিত। তাদের সঙ্গে ছিল গণমানুষের অত্যন্ত নিবিড় সম্পর্ক। তিনি আরো
বলেন, আমরা নাও থাকতে পারি আপনারা তৃণমূল এনডিএমকে জীবিত রাখবেন এবং হল
ধরবেন। যারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের জন্য
সমবেদনা জানাচ্ছি। পরিশেষে মাঠে যারা সচেতনার জন্য কাজ করছেন তাদের
ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। মো. নজরুল ইসলামের কোরআন তেলোয়াতের মাধ্যমে
অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠান কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক পিকাশ শীল সাগরের
পরিচালনায় এবং তৃণমূল জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (তৃণমূল এনডিএম)
চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি কাজী মো. শহিদুল্লাহ’র সভাপতিত্বে এ শোক সভায়
প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন তৃণমূল এনডিএমের স্থায়ী কমিটির সদস্য নুরুল
ইসলাম চৌধুরী। অন্যান্যদের মধ্য বক্তব্য রাখেন তৃণমূল এনডিএমের কেন্দ্রীয়
ভাইস চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম, আবদুস সোবহান, দিলীপ দাশ, যুগ্ম মহসচিব
সিরাজুন নূর বেগম, প্রণব চক্রবর্তী, মোঃ খোরশেদ আলম, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক
সম্পাদক ও চট্টগ্রাম মহানগর আহবায়ক নুরুল কবির শাহ, কেন্দ্রীয় নেতা সুভাষ
বড়–য়া, মহিলা নেত্রী ফরিদা ইয়াসমিন, সুলতানা রূপা, প্রীতি, তৃণমূল এনডিএম
মো. নয়ন, নেতা সুমন ইসলাম, যুব নেতা মো. রাসেল, স্থায়ী কমিটির সদস্য
মরহুম রাজ্জাকুল হায়দারের সন্তান নাজমুল হায়দার, তৃণমূল এনডিএমের
কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান মরহুম ফুল মিয়ার সন্তান মশিউর রহমান, তৃণমূল
এনডিএমের কেন্দ্রীয় নেতা খোকন চৌধুরী, মো. দেলোয়ার, কেন্দ্রীয় সদস্য
মরহুম নজরুল ইসলাম হায়দারের ছোট ভাই সাইফুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন এডভোকেট
মো. আবদুর রহিম, মো. জাহেদ, জসিম উদ্দিন, কামাল উদ্দিন, রনি দাশ, মানিক
দাশ, আকাশ দাশ, মো. সুমন, মো. মোজাম্মেল, মো. রাকিব হাসান, মো. আকতার,
মো. রানা, মো. লিটন, মো: হোসেন, মো. টিটু, মো. হোসেন, মো. মোজাম্মেল, মো.
জলিল মো. মিন্টু, প্রমুখ সভার শুরুতে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

NO COMMENTS

Leave a Reply