বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তে ‘অটল’ ঢালিউডের সুপারস্টার শাকিব খান

তালাকনামা পাঠানোর ৪৫ দিন পেরিয়েছে। এখনও বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তে ‘অটল’ ঢালিউডের সুপারস্টার শাকিব খান। অপরদিকে একমাত্র ছেলে আব্রাম খান জয়ের জন্য সবকিছু ত্যাগ করতে রাজি চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। বর্তমান পরিস্থিতিতে ‘হ্যাঁ’-‘না’ এই দুইয়ের দোলাচলেই দুলছে অপু-শাকিবের সংসার।

আগামী ১৫ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিনএসিসি) পারিবারিক আদালতে তাদের দুজনকেই থাকতে বলা হয়েছে। সর্বসাকুল্যে তিনবার পারিবারিক আদালতে ডাক পড়বে তাদের। তবে চূড়ান্তভাবে বিচ্ছেদের আগে এখনও দু’জনের জন্য সংসারের দরজা খোলা আছে।

গত বছরের ২২ নভেম্বর আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলাম সিরাজের মাধ্যমে অপুর বাসার ঠিকানায় তালাকনামা পাঠিয়েছেন শাকিব। এরপর আইনজীবী জানিয়েছেন, তালাকনামাটি কার্যকর হতে ৯০ দিন সময় লাগবে। শাকিব খান যদি মনে করেন এটাই তার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত, তবে ৯০ দিন পর তালাকনামা স্বয়ংক্রিয়ভাবে কার্যকর হয়ে যাবে।’

কিন্তু আইনের বেঁধে দেওয়া ৯০ দিনের মধ্যে ৪৫ দিন পেরিয়ে গেলেও বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেননি শাকিব।

ডিএনসিসি সূত্রে জানা গেছে, তিনবারের মধ্যে তারা যদি সংসারে ফেরার ঐক্যমতে পৌঁছান তাহলে বিষয়টির সমাধান হবে। অন্যথায় স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিচ্ছেদ ঘটবে।

তবে ১৫ জানুয়ারি পারিবারিক আদালতে শাকিব খান উপস্থিত থাকবেন কিনা তা এখনও অনিশ্চিত। সিনেমার শুটিংয়ে বর্তমানে থাইল্যান্ডে অবস্থান করছেন তিনি। শাকিব-অপুর ঘনিষ্ঠ এক প্রযোজক বলেন, ‘শাকিব যে সিদ্ধান্ত নিয়ে তালাকনামা পাঠিয়েছে সেই সিদ্ধান্তে সে এখনও বলবৎ আছেন।’

অন্যদিকে এখনও সংসার টিকিয়ে রাখতে চান অপু বিশ্বাস। একমাত্র পুত্র আব্রাম খান জয়ের জন্য হলেও তাদের সংসার করাটা জরুরি বলে মনে করেন আলোচিত এই চিত্রনায়িকা।

এ বিষয়ে অপু বলেন, ‘জয়ের জন্য আমি মৃত্যু মেনে নিতে রাজি। জয়ের ভবিষ্যৎ ভেবেই আমি এ ডিভোর্স মানি না। একটা ব্রোকেন ফ্যামিলির বাচ্চা হয়ে জয় বেড়ে উঠুক, আমি এটা চাই না। বিষয়টি সমাধানের জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাব।’

বিচ্ছেদকে ঘিরে কাদা ছোঁড়াছুঁড়ির পরও শাকিবের প্রতি তার কোনো আক্ষেপ নেই বলে জানালেন অপু।

এ ক্ষেত্রে অপুর ভাষ্য, ‘শাকিবকে এখনও আমি সেই প্রথম দিনের মতোই ভালোবাসি।’

 

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *