আরইউজের সভাপতি পদে শাহেদ পুনঃনির্বাচিত, ইলিয়াস সম্পাদক

মোঃ মেহেদী হাসান, রাজশাহীঃ রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের (আরইউজে) ত্রি-বার্ষিক নির্বাচনে সভাপতি পদে কাজী শাহেদ পুনঃনির্বাচিত হয়েছেন। আর সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন ইলিয়াস আরাফাত। তরুণএই সাংবাদিক এবারই প্রথম নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন।সভাপতি পদে বিজয়ী কাজী শাহেদ বাংলাদেশ প্রতিদিন ও বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল নিউজ টোয়েন্টিফোরের রাজশাহী ব্যুরো প্রধান। আর ইলিয়াস আরাফাত রাজশাহীর স্থানীয় দৈনিক সানশাইনের প্রধান প্রতিবেদক। সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত রাজশাহীর বরেন্দ্র কলেজে নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করা হয়। পরে বিকালে গণনা শেষে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সরকার আসলাম। ঘোষিত ফল অনুযায়ী, সভাপতি পদে কাজী শাহেদ পেয়েছেন ৪২ ভোট। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী জিটিভির রাজশাহীর স্টাফ রিপোর্টার রাশেদ রিপন পেয়েছেন ১৮ ভোট। আর সাধারণ সম্পাদক পদে ইলিয়াস আরাফাত পেয়েছেন ১৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সমকালের রাজশাহী ব্যুরো প্রধান সৌরভ হাবিব পেয়েছেন ১৮ ভোট। নির্বাচনে মোট ভোটার ছিলেন ৬১ জন। একজন ছাড়া বাকি সবাই তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। নির্বাচনে ২৪ ভোট পেয়ে আরাইউজের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন বাংলানিউজের সিনিয়র করেসপনডেন্ট শরীফ সুমন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্থানীয় দৈনিক সোনালী সংবাদের স্টাফ রিপোর্টার তৈয়বুর রহমান পেয়েছেন ২৩ ভোট। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন সময় টেলিভিশনের রাজশাহী ব্যুরো প্রধান সাইফুর রহমান রকি। তিনি পেয়েছেন ৪২ ভোট। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী স্থানীয় দৈনিক সোনার দেশ পত্রিকার অনলাইন এক্সিকিউটিভ শামস উর রহমান রুমি পেয়েছেন ১৭ ভোট। আগের নির্বাচনে রকি নির্বাহী সদস্য পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। এবার নির্বাচনেও নির্বাহী সদস্যর দুটি পদ ছিল। প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন চারজন। এর মধ্যে দৈনিক সোনালী সংবাদের সম্পাদনা সহকারী মিজানুর রহমান টুকু ২৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এ পদের প্রার্থী দৈনিক সানশাইনের ফটোসাংবাদিক সামাদ খান এবং দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশের রাজশাহী প্রতিনিধি জনাব আলী ২৬টি করে ভোট পেয়েছেন। নির্বাচন কমিশনার জানান, সামাদ ও জনাব সমানসংখ্যক ভোট পাওয়ায় তিন বছরের এই কমিটিতে তারা দেড় বছর করে দায়িত্ব পালন করবেন। জনাব আগের নির্বাচনেও এই পদে বিজয়ী হয়েছিলেন। তাই অগ্রাধিকারভিত্তিতে তিনি প্রথম দেড় বছর এবং সামাদ পরের দেড় বছর দায়িত্ব পালন করবেন। দুজনের সম্মতিতেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আগে আরইউজের কমিটির মেয়াদ ছিল দুই বছর। তবে এবার এই নির্বাচন হলো ত্রি-বার্ষিক। আগের বছরগুলোতে শুধু সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, অর্থ সম্পাদক ও দুজন নির্বাহী সদস্য ভোটের মাধ্যমে আরইউজের নেতৃত্বে এসেছেন। তবে এবার এসব পদ ছাড়াও সহ-সভাপতি ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন হলো। তবে নির্বাচনের আগেই বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন অর্থ সম্পাদক পদের প্রার্থী সরকার দুলাল মাহবুব। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী দীপ্ত টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার ইউ আদনান ও ডেইলি ইন্ডাস্ট্রির রাজশাহী প্রতিনিধি শামসুন্নাহার মিনার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে গেলে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন রাজশাহীর স্থানীয় দৈনিক সানশাইনের স্টাফ রিপোর্টার সরকার দুলাল মাহবুব। এবার নির্বাচনে সবগুলো পদের বিপরীতে মোট প্রার্থী ছিলেন ১৫ জন। রাজশাহী প্রেসক্লাব, রাজশাহী মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাব, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটি, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি এবং রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতারা নির্বাচনে বিজয়ীদের অভিনন্দন জানিয়েছেন।

 

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *