পুরনো আইফোন স্লো হওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করলো অ্যাপল

পুরনো আইফোনটি ধীরে কাজ করছে। অনেক আইফোন ব্যবহারকারীই এই সমস্যায় ভুগছেন। সম্প্রতি রেডিট ওয়েবসাইটে আইফোন ব্যবহারকারীরা এটি নিয়ে আলোচনা শুরু করলে অ্যাপল বিষয়টি স্বীকার করে। বুধবার দেয়া এক বিবৃতিতে অ্যাপল পুরনো আইফোন স্লো হয়ে যাওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করে।বিবৃতিতে অ্যাপল জানায়, গত বছর মুক্তি দেয়া একটি সফটওয়ারের ফিচারের কারনে ব্যাটারি পুরনো হয়ে গেলে আইফোন ধীর গতিতে কাজ করে। লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি পুরনো হয়ে গেলে এগুলো নতুন ব্যাটারির মত চার্জ ধরে রাখতে পারে না।

ব্যাটারি পুরনো হয়ে গেলে আইফোনে বিভিন্ন কাজ করতে সমস্যা হতে পারে। এমনকি ফোনটি হঠাৎ বন্ধও হয়ে যেতে পারে। এই সমস্যাটি যেন না হয় তার জন্য অ্যাপল আইফোন অপারেটিং সফটওয়ার-এর আইওএস ১০.২.১ সংস্করণে কিছু পরিবর্তন করা হয়। নতুন অপারেটিং সিস্টেম ব্যাটারির চার্জ আরও ভালোভাবে বিভিন্ন কাজে বণ্টন করে।কম চার্জ নিয়ে কাজ করার ফলে যেন ফোনের অন্যান্য যন্ত্রাংশের উপর চাপ না পড়ে তা নিশ্চিত করতে সফটওয়ারটি ধীর গতিতে কাজ করে।

অতিরিক্ত ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় কাজ করার সময় একইভাবে আইফোনের কর্মক্ষমতা ধীর গতির হয়ে যেতে পারে।এর ফলে ব্যাটারি খুব পুরনো হলে, চার্জ খুব কম থাকলেও, বা খুব বেশি ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় ফোন স্লো হয়ে যাবে কিন্তু হঠাৎ বন্ধ হয়ে যাবে না।গত বছর মুক্তি দেয়া সফটওয়ার আপডেটটি আইফোন ৬, আইফোন ৬ এস, আইফোন ৬ এস প্লাস এবং আইফোন এসই-এর ব্যাটারি এভাবে ব্যবহার করে। এবছর আইফোন ৭ ও আইফোন ৭ প্লাস-এর জন্য মুক্তি দেয়া আইওএস ১১.২ সফটওয়ার একইভাবে আইফোনের ব্যাটারির চার্জ বণ্টন নিয়ন্ত্রণ করে।নতুন মডেলের আইফোন মুক্তি দেয়ার পর পর আগের মডেলের ফোনগুলো স্লো হয়ে যায় আইফোন ব্যবহারকারীরা বহুদিন ধরে অভিযোগ করে আসছিলেন। অ্যাপলের ফোন ব্যবহারকারীরা মনে করতেন নতুন মডেলের আইফোনের বিক্রি বাড়ানোর জন্য  পুরনো ইচ্ছাকৃতভাবে পুরনো মডেলের ফোনগুলো ধীরগতির করে দেয় অ্যাপল। অ্যাপল এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছিল।পুরনো ফোন স্লো হয়ে গেলে পুরো ফোন সেটটিই বদলানোর দরকার নেই তা অ্যাপল এর আগে আনুষ্ঠানিকভাবে জানায়নি। শুধুমাত্র ব্যাটারি বদলেই ফোনের পারফর্মেন্স ঠিক করে নেয়া যাবে।

 

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *