Breaking News
Home / শিক্ষা / “সেলুন পাঠাগার বিশ্বজুড়ে ” এখন চট্রগ্রামের আকবর শাহ তে,বুক সেলফ হস্তান্তর

“সেলুন পাঠাগার বিশ্বজুড়ে ” এখন চট্রগ্রামের আকবর শাহ তে,বুক সেলফ হস্তান্তর

“সেলুন পাঠাগার বিশ্বজুড়ে ” এখন চট্রগ্রামের আকবর শাহ তে,বুক সেলফ হস্তান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিটিজি ট্রিবিউন:

বর্তমানে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির বদৌলতে প্রায় সবার হাতেই রয়েছে স্মার্ট ফোন । ক্লিক করলেই সারাবিশ্ব হাতের মুঠোয়। তবুও যারা নিরন্তর বসে বসে লিখে গেছেন কিংবা আদো লিখছেন কবিতা, গল্প উপন্যাস, প্রবন্ধ বা শিক্ষনীয় অন্যান্য রচনাবলী,তাদের সেসব লেখাগুলো অনলাইনে দুষ্প্রাপ্য ও বটে। তাছাড়া বইয়ের মলাটের সুগন্ধও পাওয়া সম্ভব নয়। মূলত সেলুনে আগত সেবাগ্রহীদের দীর্ঘ সিরিয়ালের ফাঁকে সময় কাটাতে আকর্ষণীয় বই বা শিক্ষনীয় গ্রন্থ নজরে পড়লে বই পড়ার ইচ্ছে জাগ্রত হবে পাঠকদের মাঝে।পরক্ষণে বই পড়ে জ্ঞানের পরিধি বাড়াবে সেবাগ্রহী।তারই ধারাবাহিকতায়
আজ চট্টগ্রামের আকবরশাহ এ নয়ন হেয়ার কাটিং সেলুনে বুক সেলফ বিতরণ করা হয়। এ সময় ‘সেলুন পাঠাগার বিশ্বজুড়ে’র সৌজন্যে সেলুনের মালিকের হাতে বুক সেলফ হস্তান্তর কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন ডিস্ট্রিক্ট ট্রেন কন্ট্রোলার শাহেদ হোসাইন খোকন।

এসময় উদ্বোধক ডি শাহেদ হোসাইন খোকন বলেন, “সেলুন পাঠাগার বিশ্বজুড়ে” – সময়ের প্রয়োজনোপযোগী একটি কার্যক্রম। এমন উদ্যোগের ফলে বই পড়ায় পাঠক তৈরি হবে।যা আলোকিত মানুষ গড়ার নেপথ্যে কাজ করবে।

সেলুনে পাঠাগার স্থাপন একটি যুগান্তকারী উদ্যোগ যোগ করে তিনি আরো বলেন, সকলের উচিত অবসর সময়কে কাজে লাগিয়ে নিজের জ্ঞানের পরিধি বাড়ানো।এতে মানুষের মাঝে সুকুমার বৃত্তি বাড়বে।

সেলুন পাঠাগার বিশ্বজুড়ে’র পক্ষ থেকে জানানো হয়,সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের কারণে নাটকীয়ভাবে তরুণ প্রজন্মের যোগাযোগের পদ্ধতি বদলে যাচ্ছে। আর এর ফলে মানুষের মধ্যে বই পড়ার অভ্যাস কমে গেছে। দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে বইয়ের পাঠক।সেলুনে গিয়ে দীর্ঘক্ষণ সেবাগ্রহীতাকে বেশিরভাগ সময় অপেক্ষা করতে হয়,কেউ হয়তো এ সময়ে পত্রিকা পড়তে ব্যস্ত, আবার কেউবা টেলিভিশন দেখেন,একটা সময় গ্রাহকের মধ্যে অলসতা ও অস্থিরতা কাজ করে।তাই সেবাগ্রহীতার সময়ের সঠিক ব্যবহারও পাঠবিমুখতা দূর করে বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে আমার এ উদ্যোগ।এক্ষেত্রে সেলুন অন্যতম একটি স্থান।

বুক সেলফ হস্তান্তর কার্যক্রমে সেলুন মালিক ছাড়াও বাংলাদেশ রেলওয়ে ট্রাফিক ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি মোঃ শাহীদ হোসেন (খোকন),
ট্রেন কন্ট্রোলার’স এসোসিয়েশনের সভাপতি জাফর উল্যাহ মজুমদার স্টেশন মাষ্টার কর্মচারী ইউনিয়ন আহবায়ক জাহাঙ্গীর কবির নয়ন সভাপতি আকবরশাহ থানা” বি” ইউনিট,সাংবাদিক সাগর, নাট্যজন জসিম উদ্দিন, আকবরশাহ জামে মসজিদ সহ সভাপতি নুরুল ইসলাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, অবসরে বই পড়ুন’- এ স্লোগানকে সামনে রেখে ২০১৮ সালের ৩০ জুন গোলাম মাওলা জসিমের নিজ এলাকা নোয়াখালীতে রতনের সেলুনে বই ও আলমারি বিতরণের মাধ্যমে এ ব্যতিক্রমী কার্যক্রম শুরু হয়।যার ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার সেলুনে স্থাপন করা হচ্ছে বুক সেলফ।

About Ashiq Arfin

Check Also

মাতৃভাষা ছাড়া শিক্ষার ভিত নির্মাণ করা যায় না- প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

মাতৃভাষা ছাড়া শিক্ষার ভিত নির্মাণ করা যায় না- প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী   সিটিজি ট্রিবিউন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *