Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / সংঘাত শেষ করতে হামাসকে নতুন যে শর্ত দিল ইসরাইল

সংঘাত শেষ করতে হামাসকে নতুন যে শর্ত দিল ইসরাইল

সংঘাত শেষ করতে হামাসকে নতুন যে শর্ত দিল ইসরাইল
সিটিজিট্রিবিউন: টানা দুই মাস ধরে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ডে অবিরাম হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরাইল। এতে এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন ১৭ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি। বর্বর এই আগ্রাসনের জেরে ইসরাইলের বিরুদ্ধে বিশ্বজুড়ে বাড়ছে ক্ষোভ।
এ ছাড়া বেসামরিক ফিলিস্তিনিদের হতাহতের সংখ্যা কমানোর এবং স্থায়ী যুদ্ধবিরতি কার্যকরের জন্য আন্তর্জাতিক চাপও বাড়ছে।
তবে ইসরাইল নতুন শর্ত হিসেবে বলছে, ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের আত্মসমর্পণের মাধ্যমে গাজায় চলমান যুদ্ধ শেষ হবে। খবর আনাদোলুর।
বৃহস্পতিবার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হামাস নেতাদের আত্মসমর্পণ এবং বন্দিদের প্রত্যাবর্তনের মাধ্যমে গাজা উপত্যকায় ইসরাইলের যুদ্ধ শেষ হবে বলে ইসরাইলের একজন মুখপাত্র বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন।
ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর মুখপাত্র ওফির গেন্ডেলম্যান সাংবাদিকদের বলেন, ‘হামাস নেতারা ইসরাইলি সেনাবাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করার শর্তে গাজার যুদ্ধ শেষ হতে পারে এবং বন্দিদের (গাজা থেকে) ফিরিয়ে দিতে হবে।’
ইসরাইলি এই মুখপাত্র বলেছেন, ইসরাইলের সেনাবাহিনী দক্ষিণ গাজা উপত্যকায় অগ্রসর হচ্ছে।
তার দাবি, আমাদের বাহিনী (গাজার হামাস নেতা) ইয়াহিয়া সিনওয়ারের (খান ইউনিসের) বাড়ি ঘেরাও করেছে এবং আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তাকে গ্রেফতার করা।
গেন্ডেলম্যান গাজায় যুদ্ধবিরতির জন্য জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের আহ্বানও প্রত্যাখ্যান করেছেন। তিনি বলেন, এখন যুদ্ধবিরতির এই আহ্বান গাজায় হামাসকে ক্ষমতায় রাখার আহ্বানের সমতুল্য। আমরা এটিকে স্পষ্টভাবে প্রত্যাখ্যান করি।
উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর হামাসের নজিরবিহীন আন্তঃসীমান্ত হামলার পর থেকে ইসরাইল গাজা উপত্যকায় অবিরাম বিমান ও স্থল হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। ইসরাইলি এই হামলায় হাসপাতাল, স্কুল, শরণার্থী শিবির, মসজিদ, গির্জাসহ হাজার হাজার ভবন ক্ষতিগ্রস্ত বা ধ্বংস হয়ে গেছে।।প্রতিবেদন:কেইউকে।

About kamal Uddin khokon

Check Also

পাকিস্তানে ৪৮ ঘণ্টার ভারী বৃষ্টিতে বাড়িধস, ভূমিধসে অন্তত ২৯ জন নিহত

পাকিস্তানে ৪৮ ঘণ্টার ভারী বৃষ্টিতে বাড়িধস, ভূমিধসে অন্তত ২৯ জন নিহত সিটিজিট্রিবিউন: পাকিস্তানে ৪৮ ঘণ্টার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *