Breaking News
Home / আইন বিচার / লও ঠেলা ’ গ্রুপের মূলহোতা ও শীর্ষ সন্ত্রাসী ও তার ০৮ সহ সর্বমোট ০৯ জন কে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-২,

লও ঠেলা ’ গ্রুপের মূলহোতা ও শীর্ষ সন্ত্রাসী ও তার ০৮ সহ সর্বমোট ০৯ জন কে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-২,

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের ‘ লও ঠেলা ’ গ্রুপের মূলহোতা ও শীর্ষ সন্ত্রাসী বাবু দশের বাবু ও তার ০৮ সহযোগীসহ সর্বমোট ০৯ জন সন্ত্রাসীকে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-২,

 

আয়াজ সানি সিটিজি ট্রিবিউন ঢাকা;

 

গত ২৩ নভেম্বর ২০২১ তারিখ রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকায় ছিনতাই , চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ‘ ভাইব্বা ল কিং ’ নামের একটি কিশোর গ্যাং এবং ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখ কবির বাহিনীর নামে একটি দস্যু বাহিনী’কে গ্রেফতার করে র‍্যাব-২,

আবু নাঈম মোঃ তালাত লেঃ কর্ণেল অধিনায়ক র‍্যাব-২, জানান,

মোহাম্মদপুরে ছিনতাই , চাঁদাবাজি , সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও মাদক অপরাধরোধে র‍্যাব-২,গোয়েন্দা নজরদারী অব্যাহত রখে ।র‍্যাব-২,মোহাম্মদপুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় সন্ত্রাসী , চাঁদাবাজি , ছিনতাই , আধিপত্য বিস্তারসহ বিভিন্ন অপরাধ জড়িত বেশ কয়েকটি গ্রুপ সম্পর্কে জানতে পারে ।

কয়েকজন ভূক্তভোগীও ছিনতাই , চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপরাধ সম্পর্কে র্যাবের নিকট অভিযোগ দেয় । বর্ণিত অপরাধীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার লক্ষ্যে র‍্যাব-২ মোহাম্মদপুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে ।

 

এরই ধারাবাহিকতায় ১৯ / ০১ / ২০২২ তারিখে ০৪.৪০ ঘটিকায় র‍্যাব-২,এর গোয়েন্দা দল গোপন তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে , রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানাধীন সাতমসজিদ এলাকায় একটি ডাকাত দল ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে ।

উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাব-২ এর একটি আভিযানিক দল ১৯ / ০১ / ২০২২  তারিখে ০৫.২০ ঘটিকায় ঘটনা স্থলে উপস্থিত হলে র্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালানোর সময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ( ১ ) বাবু দশের বাবু ( ২৬ )  ও তার ০৮ জন সহযোগী যথাক্রমে ; ( ২ ) মোঃ ফোরকান ( ২২ ) ( ৩ ) মোঃ পলাশ ( ২৩ ) ( ৪ ) মোঃ সুমন ( ২২ ) ( ৫ ) মোঃ সাগর ( ২৩ ) ( ৬ ) মোঃ রাজন ( ২৩ )

( ৭ ) মোঃ নাজিম ( ২৪ ) ( ৮ ) শাকিল ( ২০ )  ( ০৯ ) মিলন ( ২১ )’কে ঘটনা স্থল থেকে গ্রেফতার করা হয় । গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে ০২ টি চাপাতি , ০৫ টি

ছুরি , ০১ টি ষ্টীলের পাইপ , ০১ টি হোল্ডিং চাকু এবং ০১ টি চেইন । গ্রেফতারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় , তারা ‘ লও ঠেলা ’ গ্রুপের সক্রিয় সদস্য । এই দলের সদস্যরা সংঘবদ্ধ অপরাধী চক্র । দলের মূলহোতা গ্রেফতারকৃত বাবু দশের বাবু ।

তারা দীর্ঘদিন যাবৎ রাজধানীর মোহাম্মদপুরসহ বিভিন্ন স্থানে ডাকাতি , সন্ত্রাসী কর্মকান্ড , মাদক কেনাবেচা , ছিনতাই ও চাঁদাবাজি কার্যক্রম চালিয়ে আসছে ।

আটককৃত আসামী ‘ লও ঠেলা ‘ গ্রুপের প্রধান বাবু দশের বাবুকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় , ২০০০ সালে তার মায়ের সাথে নড়াইল জেলা হতে ঢাকায় আসে । ঢাকায় এসে প্রথমে তার মায়ের সাথে থাকতে শুরু করে ।

পরবর্তীতে সে গাড়ীর হেলপার , হোটেল পরিষ্কারের চাকুরীসহ বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত ছিল । কাজের ফাকে ফাকে সে মাদকের প্রতি আসক্ত হয়ে পরে । মাদকের টাকার জন্য তার মায়ের সাথে প্রায় ঝগড়াবিবাদে লিপ্ত হতো ।

পরবর্তীতে মাদকের টাকার জন্য ছোট ছোট চুরি , ছিনতাই এর মাধ্যমে অপরাধ জগতে হাতেখড়ি হয় । ২০১৪ সালে ‘ ভাইব্বা ল কিং ’ কিশোর গ্যাং এর সাথে পরিচয় হয় । পরবর্তীতে এই বাহিনীতে যোগদানের মাধ্যমে তার অপরাধের মাত্রা আরো বেড়ে যায় । সে উক্ত বাহিনীর সাথে মোহাম্মদপুরের বিভিন্ন এলাকায় ডাকাতি , ছিনতাই , চাঁদাবাজি , সন্ত্রাসী কর্মকান্ড এবং মাদক কেনাবেচায় জড়িয়ে পড়ে ।

এক সময় তার কুখ্যাতি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে অপরাধ জগতে সে ‘ দশের বাবু ’ নামে খেতাব পায় । পরবর্তীতে তাদের নিজেদের মধ্যে আন্তকোন্দলে ‘ ভাইব্বা ল কিং ’ গ্রুপ থেকে আলাদা হয়ে ২০১৭ সাল হতে ‘ লও ঠেলা ’ গ্রুপ নামে দুর্ধর্ষ এক গ্রুপ গড়ে তোলে ।

গ্রেফতারকৃত বাবু বখে যাওয়া ছেলেদের তার গ্রুপে যোগদান করাত । মোহাম্মদপুরের ঢাকা উদ্যান , বসিলা , চাঁদ উদ্যান এলাকায় ডাকাতি , চাঁদাবাজি , ছিনতাই , মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন অপরাধে সম্পৃক্ত ‘ লও ঠেলা ’ গ্রুপ ।

এছাড়াও জবর দখল , ভাড়ায় শক্তি প্রদর্শন এবং আধিপত্য বিস্তারসহ নানা অপকর্মে তাদের ব্যবহার করে বাবু । বাবুর বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় অস্ত্র , ডাকাতি , দস্যুতা , মাদক , ছিনতাইসহ সর্বমোট ০৬ টি মামলা রয়েছে ।

গ্রেফতারকৃত অপর সদস্যরা ক্ষুদ্র ব্যবসা , অটোচালক , রিক্সাচালক , গাড়ী চালক , দিন মজুরসহ বিভিন্ন পেশার আড়ালে তারা বর্ণিত অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িত । গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ( ১ ) মোঃ ফোরকান এর নামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ০১ টি , ( ২ ) মোঃ পলাশ এর নামে হত্যা চেষ্টা আইনে ০১ টি , ( ৩ ) শাকিল এর নামে ০১ টি মাদক মামলা রায়েছে ।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা পক্রিয়াধীন ।

 

 

About Ayaz Ahmed

Check Also

সরকারী ছুটিকে কাজে লাগিয়ে বান্দরবানে রাতের আধারে পাহাড় কাটার মহোৎসব

সরকারী ছুটিকে কাজে লাগিয়ে বান্দরবানে রাতের আধারে পাহাড় কাটার মহোৎসব   সিটিজি ট্রিবিউন বান্দরবান প্রতিনিধি, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *