সিটিজি ট্রিবিউন ডটকম ০১:১৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
চবি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী সমিতির অভিষেক রাজনৈতিক দলের সাথে সংলাপ হয়, আগুনসন্ত্রাসীদের সাথে নয় : তথ্যমন্ত্রী সিটিজিট্রিবিউনের নির্বাহী সম্পাদক আয়াজ আহমেদ সানি’র মায়ের মৃত্যু অসুস্থ মায়ের জন্য দোয়া চাইলেন : সাংবাদিক আয়াজ আহমদ সানি অনিয়মের অভিযোগে লক্ষ্মীপুর-৩ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের উপনির্বাচনের ফলাফলের গেজেট স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন বান্দরবান জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের আত্ন-প্রকাশ আগামীকাল চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে আন্তজার্তিক পণ্ডিত বিহার বিশ্ববিদ্যালয়’ স্থাপনের যৌক্তিকতা শীর্ষক সংবাদ সম্মেলন ঢাকার বাড্ডায় ‘সেলুন পাঠাগার বিশ্বজুড়ে’র বুক সেলফ বিতরণ মা হওয়ার ইচ্ছা ছিল অঙ্কিতার, ‘বিগ বস’-এ ভিকির সঙ্গে অশান্তির পরে কি ভেস্তে যাবে সব? দূর্গাপূজা উপলক্ষে র‍্যাবের রোবাস্ট পেট্রোলিং ও চেকপোস্ট
রাজনীতির সকল সংবাদ ::
রাজনীতি জাতীয় সংসদ নির্বাচন সরকারের আশ্বাসেই নির্বাচনে এসেছি: জাপা মহাসচিব ৭ ও ৮ ডিসেম্বর অবরোধ এবার বিএনপির নতুন কর্মসূচি ঘোষণা খালেদা জিয়াসহ ১০ আসামির অভিযোগ গঠন শুনানি ২৪ মার্চ জামায়াতের আমিরসহ ৭২ জনের বিচার শুরু যারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন, তাদের কাউকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে না: ওবায়দুল কাদের ‘ডামি নির্বাচন’ বাতিল করতে হবে: আ স ম রব ‘গণতন্ত্রের লড়াইয়ে বিএনপি অবশ্যই বিজয়ী হবে’ পিটার হাস মার্কিন রাষ্ট্রদূত হিসেবে তার আচরণের সীমা মেনে চলবেন: ওবায়দুল কাদের ফের ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ ডেকেছে বিএনপি গণগ্রেপ্তার অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনে বাধা হতে পারে: তৈমূর

বিএনপি রাষ্ট্রপতির সংলাপে যাওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়নি

  • kamal Uddin khokon
  • আপডেট সময় : ০৭:১২:২৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ ডিসেম্বর ২০২১
  • ৬২২ বার পড়া হয়েছে

বিএনপি রাষ্ট্রপতির সংলাপে যাওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়নি

সিটিজিট্রিবিউন: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি। পরবর্তী নির্বাচন কমিশন গঠনের কাজ শুরু করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

সংসদের বাইরে সবচেয়ে বড় দল বিএনপি রাষ্ট্রপতির সংলাপে যাওয়ার ব্যাপারে এখনও চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি। তবে দলীয় সূত্রে জানা যায়, ইসি গঠন নিয়ে বিএনপির তেমন আগ্রহ নেই। তারা আগে চায় তত্ত্বাবধায়ক সরকার। পরে ইসি গঠন প্রক্রিয়া।

জানতে চাইলে দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বাংলানিউজকে বলেন, সোমবার (২০ ডিসেম্বর) পর্যন্ত সংলাপের কোনো আমন্ত্রণ তারা পাননি। আর আমন্ত্রণপত্র পেলেও সেখানে যাবেন কি না সেটা এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি। বিষয়টি দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম সিদ্ধান্ত নেবে।

জানা যায়, নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে রাজনৈতিক দলগুলোর মতামত নিতে সোমবার (২০ ডিসেম্বর) বিকেল থেকে বঙ্গভবনে সংলাপ শুরু হচ্ছে। প্রথম দিন বিকেলে জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সঙ্গে সংলাপে বসবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা যায়, নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে রাষ্ট্রপতির সংলাপের উদ্যোগকে গুরুত্ব দিচ্ছে না বিএনপি। দলটির নীতিনির্ধারকরা অতীতের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বলেন, এই সংলাপ ‘আইওয়াশ’ ও ‘স্পষ্ট প্রতারণা’ ছাড়া কিছুই নয়। নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া নির্বাচন কমিশন কার্যত ঠুটো জগন্নাথ। দলীয় সরকারের প্রভাব বলয়ের বাইরে গিয়ে ওই কমিশন নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে পারবে না। এ কারণে বিএনপি সোমবার থেকে শুরু হতে যাওয়া ইসি গঠনে রাষ্ট্রপতির সংলাপের চাইতে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার অথবা তত্ত্বাবধায়ক সরকার ইস্যুতেই অনড় থাকতে চায়।

জানা যায়, নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার নীতিগত সিদ্ধান্ত ইতোমধ্যেই নিয়ে রেখেছে দলটি। এই দাবি আদায়ে রাজপথের আন্দোলন জোরদার করতে চায় তারা। খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে আয়োজিত বিভিন্ন সভা সমাবেশে একই বক্তব্য দিচ্ছেন দলটির শীর্ষ নেতারা।

বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেন, আমার ব্যক্তিগত মতামত হলো রাষ্ট্রপতির ডাকা সংলাপে বিএনপি যাবে না। আমি মনে করি দলেরও এই সিদ্ধান্ত।

সম্প্রতি গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মন্তব্য ছিল, আমাদের অবস্থান খুব স্পষ্ট, এই সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমরা যাব না। নির্বাচন কমিশন গঠনে কোনো সংলাপে বিএনপি যাবে না।

তবে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে অংশগ্রহণের বিষয়ে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলেনি বিএনপি। আমন্ত্রণপত্র পেলে দলটি সেই সিদ্ধান্ত জানাবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।  প্রতিবেদন:কেইউকে।

জনপ্রিয় সংবাদ

চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড থানার অস্ত্র মামলায় আসামি গ্রেফতার।

রাজ’কন্যার আগমনের পর আবার সুখবর! তৃতীয় বার বিয়ে করছেন শুভশ্রীর দিদি দেবশ্রী, পাত্র কে?

বিএনপি রাষ্ট্রপতির সংলাপে যাওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়নি

আপডেট সময় : ০৭:১২:২৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ ডিসেম্বর ২০২১

বিএনপি রাষ্ট্রপতির সংলাপে যাওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়নি

সিটিজিট্রিবিউন: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি। পরবর্তী নির্বাচন কমিশন গঠনের কাজ শুরু করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

সংসদের বাইরে সবচেয়ে বড় দল বিএনপি রাষ্ট্রপতির সংলাপে যাওয়ার ব্যাপারে এখনও চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি। তবে দলীয় সূত্রে জানা যায়, ইসি গঠন নিয়ে বিএনপির তেমন আগ্রহ নেই। তারা আগে চায় তত্ত্বাবধায়ক সরকার। পরে ইসি গঠন প্রক্রিয়া।

জানতে চাইলে দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বাংলানিউজকে বলেন, সোমবার (২০ ডিসেম্বর) পর্যন্ত সংলাপের কোনো আমন্ত্রণ তারা পাননি। আর আমন্ত্রণপত্র পেলেও সেখানে যাবেন কি না সেটা এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি। বিষয়টি দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম সিদ্ধান্ত নেবে।

জানা যায়, নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে রাজনৈতিক দলগুলোর মতামত নিতে সোমবার (২০ ডিসেম্বর) বিকেল থেকে বঙ্গভবনে সংলাপ শুরু হচ্ছে। প্রথম দিন বিকেলে জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সঙ্গে সংলাপে বসবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা যায়, নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে রাষ্ট্রপতির সংলাপের উদ্যোগকে গুরুত্ব দিচ্ছে না বিএনপি। দলটির নীতিনির্ধারকরা অতীতের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বলেন, এই সংলাপ ‘আইওয়াশ’ ও ‘স্পষ্ট প্রতারণা’ ছাড়া কিছুই নয়। নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া নির্বাচন কমিশন কার্যত ঠুটো জগন্নাথ। দলীয় সরকারের প্রভাব বলয়ের বাইরে গিয়ে ওই কমিশন নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে পারবে না। এ কারণে বিএনপি সোমবার থেকে শুরু হতে যাওয়া ইসি গঠনে রাষ্ট্রপতির সংলাপের চাইতে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার অথবা তত্ত্বাবধায়ক সরকার ইস্যুতেই অনড় থাকতে চায়।

জানা যায়, নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার নীতিগত সিদ্ধান্ত ইতোমধ্যেই নিয়ে রেখেছে দলটি। এই দাবি আদায়ে রাজপথের আন্দোলন জোরদার করতে চায় তারা। খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে আয়োজিত বিভিন্ন সভা সমাবেশে একই বক্তব্য দিচ্ছেন দলটির শীর্ষ নেতারা।

বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেন, আমার ব্যক্তিগত মতামত হলো রাষ্ট্রপতির ডাকা সংলাপে বিএনপি যাবে না। আমি মনে করি দলেরও এই সিদ্ধান্ত।

সম্প্রতি গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মন্তব্য ছিল, আমাদের অবস্থান খুব স্পষ্ট, এই সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমরা যাব না। নির্বাচন কমিশন গঠনে কোনো সংলাপে বিএনপি যাবে না।

তবে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে অংশগ্রহণের বিষয়ে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলেনি বিএনপি। আমন্ত্রণপত্র পেলে দলটি সেই সিদ্ধান্ত জানাবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।  প্রতিবেদন:কেইউকে।