Breaking News
Home / আইন বিচার / বহদ্দারহাটে সাকিল দম্পতি,জামিনে বেরিয়ে ইয়াবা ব্যবসায় পুনরায় সক্রিয়

বহদ্দারহাটে সাকিল দম্পতি,জামিনে বেরিয়ে ইয়াবা ব্যবসায় পুনরায় সক্রিয়

বহদ্দারহাটে সাকিল দম্পতি,জামিনে বেরিয়ে ইয়াবা ব্যবসায় পুনরায় সক্রিয়

 

সিটিজি ট্রিবিউন চট্টগ্রাম নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

 

চট্টগ্রামের বহদ্দারহাট বাড়াইপাড়া এলাকায় মাদক সম্রাট সাকিল দম্পতি । এই দম্পতি বহদ্দারহাট বাড়াইপাড়া হোসেন কলোনিতে গড়ে তুলেছে মাদকের স্বর্গরাজ্য । তাদের অত্যাচারের অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। এ দম্পতি পরিবারের মধ্যে অনেকেই জড়িত মাদক ব্যবসার সাথে। তাঁরা চার ভাইয়ের মধ্যে সাইফুলের কথায় ইয়াবা ব্যবসা পরিচালনা করে সাকিল।

সাইফুল লোকচক্ষুর অন্তরালে থেকে এ ব্যবসা করে এমনটাই বলছে এলাকাবাসী। আর ইয়াবা ব্যবসার অভিযোগে সাকিল দম্পতি বেশ কয়েকবার হাতে নাতে ধরা পড়লেও কারাভোগের পর জামিনে বের হয়ে আবারও সক্রিয় হয় ইয়াবা ব্যবসায়। তবে সাকিল দম্পতি পরিবারের সহযোগিতা ও রাজনৈতিক ছত্রছায়া এ কার্যক্রম চালাচ্ছে ।

তাদের ইন্দে চলে মাদক কারবারি। আর ইয়াবা ব্যবসার একটি অংশ যায় এই সিন্ডিকেটের পকেটে। চান্দগাঁও থানার সূত্র বলছে, সাকিল কে ২০১৮ সালে ১০ ক ইয়াবাসহ পুলিশ গ্রেফতার করে এবং তার স্ত্রীর নামেও ইয়াবা মামলা রয়েছে। ২০২১ সালে চান্দগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ম‌ঈনুর রহমানের নির্দেশে অভিযান চালিয়ে পুলিশ তাঁর কাছ থেকে নগদ টাকা ও ইয়াবা উদ্ধার করে। কিন্তু সম্প্রতি সময়ে সাকিল দম্পতি কয়েকবার কারাবাসের পর জামিনে বেড়িয়ে এলে রাজনৈতিক নেতাদের ম্যানেজ করে এ দম্পতি সিন্ডিকেট আবার‌ও সক্রিয় হয়ে উঠেছে ।

সাকিল ও তাঁর ভাইয়েরা রাজনৈতিক মিটিং মিছিলে তাদের সাথে জড়িত মাদক কারবারি ও কিশোর গ্যাং এর ছেলেদের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে পাঠান। সূত্র বলছে, সাকিলের নামে জেলায় হত্যা মামলাও রয়েছে । পেশাদার এই মাদক ব্যবসায়ী দম্পতি এখনো তাদের ব্যবসা অব্যাহত রেখেছেন । একাধিক সূত্রে জানা গেছে,
এ দম্পতি জেল থেকে বের হয়ে আবারও মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এ দম্পতি এবং তাদের পরিবারের কয়েক সদস্যের নাম লোকমুখে শোনা যায়। তাঁরা মাদকের স্বর্গরাজ্য গড়ে তুলেছে বাড়াইপাড়া এলাকায়। তবে সাম্প্রতিক সময়ে সাকিলের বাবাও পতিতালয় এর ব্যবসা করত। অপরাধ জগতে এই পরিবার রাজত্ব করছে বাড়াইপাড়া এলাকা জুড়ে । তাঁর বাবা মারা যাওয়ার পর তাঁরা ব্যবসা পরিবর্তন করে এবং পুরো পরিবার মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি জানান, এই পরিবার আমাদের এলাকার যুবসমাজ কে ধ্বংস করছে। আর তাদের এতো ক্ষমতা কেউ এদের ভয়ে কোন কথা বলতে চাই না। তাঁরা চার ভাই মিলে পুরো এলাকা কে ধ্বংস করছে। তিনি বলেন, সাকিল, সাইফুল, জাহেদ, টিপু এই চার ভাইদের পিছনে রাজনৈতিক ছত্রছায়া রয়েছে। তা না হলে তাঁরা এতো ক্ষমতা পায় কোথায়। আমরা এলাকাবাসী তাদের অত্যাচার থেকে মুক্তি চাই ।

এখানে বসবাস করতে ভয় হয় ছেলে মেয়েদের নিয়ে । আমি ব্যবসার কাজে বাহিরে চলে যায়। ছেলে মেয়েরা কি খারাপ হয়ে যাচ্ছে এমন ভয় কাজ করছে প্রতিটি মুহূর্তে। এদিকে এলাকার আর একজন ব্যক্তি বলেন, এখন তথ্য প্রযুক্তির যুগ একজন মাদক ব্যবসায়ীকে ধরা কঠিন কোন কাজ নয়। কিন্তু পুলিশের কি দোষ দিবো এদিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে ।

পরবর্তীতে কিছুদিন পর জামিনে বেরিয়ে আসে। জেলখানা তো তাদের ঘরের মতো এই রায় এই আসে। আমরা তো কাজে কর্মে ব্যস্ত তাকি কখন যায় কখন আসে টের‌ও পায় না। কিন্তু মুক্ত হয়ে আবারও মাদক ব্যবসায় সক্রিয় হয়ে উঠে। আমরা এলাকাবাসী তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

এই মাদক কারবারি সাকিল দম্পতির বিষয়ে জানতে চাইলে চান্দগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাঈনুর রহমান বলেন, ইতিপূর্বে থাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তারপরও আমরা আবারও থাকে গেপ্তারের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

 

About Ayaz Ahmed

Check Also

সরকারি হাসপাতালে রোগীদের প্রলোভন দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নিত তারা! ৩৮ দালাল আটক

সরকারি হাসপাতালে রোগীদের প্রলোভন দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নিত তারা! ৩৮ দালাল আটক   মোঃআলাউদ্দীন,সিটিজ ট্রিবিউন, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *