Breaking News
Home / আইন বিচার / চাঞ্চল্যকর রাকিব হত্যা মামলার আত্নগোপনে থাকা হত্যাকারীদের গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৬,

চাঞ্চল্যকর রাকিব হত্যা মামলার আত্নগোপনে থাকা হত্যাকারীদের গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৬,

যশোরে চাঞ্চল্যকর রাকিব (২৮) হত্যা মামলার আত্নগোপনে থাকা হত্যাকারীদের গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৬,

 

সিটিজি ট্রিবিউন খুলনা;

 

র‍্যাব-৬,(যশোর ক্যাম্প) এর একটি চৌকশ আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে জানতে পারে যে, গত ১৭/১২/২০২১ তারিখ সন্ধ্যা অনুমান ০৬.৩০ ঘটিকার সময় ভিকটিম আব্দুর রহমান রাকিব (২৮) বাসা থেকে বের হয়ে যশোর জেলার কোতয়ালী মডেল ধানাধীন হুশতলা কবরস্থানের দক্ষিণপাশে বিশের মোড়ে জনৈক শহিদুলের চটপটির দোকানের ২০০ গজ দক্ষিণে কাঁচা রাস্তার উপর এজাহারনামীয় আসামীরা সহ অজ্ঞাতনামা আসামীরা ভিকটিমকে ডেকে নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে ভিকটিমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে চাকু মারিয়া রক্তাক্ত গুরুতর জখম করে।

ভিকটিমের ডাক চিৎকারে আশে পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ভিকটিম তাদের জানায় ১নং আসামী সবুজ তার হাতে থাকা ধারালো চাকু দিয়ে ভিকটিমের ডান পায়ের উরুর উপরে আঘাত করে, ৪নং আসামী আওয়াল তার হাতে থাকা ধারালো চাকু দিয়া ভিকটিমের ডান পায়ের উরুর বাহিরে আঘাত করে,২নং আসামী শান্ত তার হাতে থাকা ধারালো চাকু দিয়া ভিকটিমের বাম পায়ের হাটুর উপরে আঘাত করে, ৫নং আসামী সজিব তার হাতে থাকা ধারালো চাকু দিয়ে ভিকটিমের নিতম্বের বাম পাশে আঘাত করাসহ আন্যান্য আসামীরাসহ অজ্ঞাতনামা আসামীরা ভিকটিমকে এলাপাথারীভাবে মারপিটসহ গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে আসামীরা পালিয়ে যায়।

 

সংবাদ পেয়ে ভিকটিমের আত্নীয়-স্বজনসহ স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে ভিকটিমকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকভিকটিমকে মৃত ঘোষণা করে। এ সংক্রান্তে ভিকটিমের চাচা হাফিজুর রহমানবাদী হয়ে যশোর কোতয়ালী মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। উক্ত মামলাটি র‍্যাব-৬ (যশার ক্যাম্প) এর একটি চৌকশ আভিযানিক দল ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং এজাহারনামীয় পলাতক ও অজ্ঞাতনামা আসামীদের গ্রেফতার করতে গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যাহত রাখে।

 

এরই প্রেক্ষিতে ২২ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখ ১০;৩০ ঘটিকার সময় র‍্যাব-৬ (যশোর ক্যম্প) এর একটি আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে যশোর জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে আসামী ১। মোঃ মানিক(২০) ২। মোঃ আজিজুল হোসেন(২২) হিটার আজিজ,৩। মোঃ  বাধন(১৯),৪। মোঃ ইমন শেখ(২১) শুটার ইমন (এজাহারনামীয় পলাতক আসামী),৫। অনিন্দ্র নায়েক দেবা (২০) ৬। মোঃ ইসা মীর(১৯) ৭। মোঃ তরিকুল ইসলাম(১৯),৮। মোঃ সোহাগ মুন্সি(২০),৯। মোঃ ইশান হোসেন(১৮),কে গ্রেফতার করে।

 

র‍্যাব-৬ (যশোর ক্যাম্প) এর একটি আভিযানিক দল ঘটনাস্থল হতে হত্যার কাজে ব্যবহৃত ছুরি, চাকু ও পাইপ এবং গ্রেফতারকৃত আসামী আজিজুলের বাসা থেকে হত্যার সময় ব্যবহৃত চাকু রক্ত মাখা অবস্থায় উদ্ধার করে। হত্যাকান্ড সংঘটিত হওয়ার পর হতেই উক্ত হত্যাকারীরা নিজেদের আত্মগোপন করে।

জনমনে আতংক দূর করতে ও হত্যাকারীদের গ্রেফতারে র‍্যাব-৬ সিপিসি-৩, যশোর গোয়েন্দা তৎপরতা জোরালো করে। এরপর এক এক করে উল্লেখিত ০৯ (নয়) জন আসামীকে গ্রেফতার করে এবং অন্যান্য পলাতক আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলমান রেখেছে।

র‍্যাবের অব্যাহত অভিযানের ফলে জনমনে স্বস্তি ফিরে আসে এবং র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-৬, খুলনা, সিপিসি-৩ যশোর এর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সম্মান অটুট রাখতে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

 

গ্রেফতারকৃত আসামীদের যশোর কোতয়ালী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হবে।

 

About Ayaz Ahmed

Check Also

সরকারী ছুটিকে কাজে লাগিয়ে বান্দরবানে রাতের আধারে পাহাড় কাটার মহোৎসব

সরকারী ছুটিকে কাজে লাগিয়ে বান্দরবানে রাতের আধারে পাহাড় কাটার মহোৎসব   সিটিজি ট্রিবিউন বান্দরবান প্রতিনিধি, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *