Breaking News
Home / সম্প্রতি সংবাদ / চকরিয়ার লোকালয়ে দাঁতাল : একদিন পর ফেরানো হয়েছে বনে

চকরিয়ার লোকালয়ে দাঁতাল : একদিন পর ফেরানো হয়েছে বনে

চকরিয়ার লোকালয়ে দাঁতাল : একদিন পর ফেরানো হয়েছে বনে

 

সিটিজি ট্রিবিউন শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার, ৮ ফেব্রুয়ারী।

 

অবশেষে দাঁতালের থেকে বাঁচল কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা, ভেওলা মানিক চর ও চকরিয়া পৌরসভার কয়েক হাজার মানুষ।
স্থানীয় জনগণ, এলিফ্যান্ট রেসকিউ টীমের সদস্যরা ও বনবিভাগের লোকজন মঙ্গলবার ভোরে কৌশলে ঘায়েল করল হাতিকে।

৮ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার ভোরে ফাঁসিয়া খালী রেঞ্জের নলবিলা বিটের বনাঞ্চলে অনেক কৌশলে ফেরানো হয়েছে হাতি। দলছুট হাতি বনে ফিরে যাওয়ার বিষয় নিশ্চিত করেন কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন সরকার। এর আগে সোমবার ভোরে দলছুট বন্য হাতি লোকালয়ে ডুকে পড়ে।
ঘটনার সুত্রপাত ৭ ফেব্রুয়ারী সোমবার সকাল সাড়ে ৮ টা।

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার বনাঞ্চল থেকে দলছুট একটি দাঁতাল হাতি ঢুকে পড়ে ভেওলা মানিকচর ইউনিয়নের লোকালয়ে ।

সেখানে বাড়ী ঘরে তান্ডব শুরু করে বনের হাতি। হাতি তাড়াতে জড়ো হয় শতশত গ্রামবাসী। কক্সবাজার উত্তর
বনবিভাগকে খবর দেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

হাতি তাড়াতে বেতুয়াবাজার গ্রামে হাজির হন বনবিভাগের ডুলাহাজারা বনবিটের কমিউনিটি পেট্রল গ্রুপ (সিপিজি) সদস্য এবং এলিফ্যান্ট রেসকিউ টীম সদস্য রহমত আলী সহ একদল সদস্য। কিন্তু হাতিকে যখন জঙ্গলে পাঠানোর চেষ্টা চলছে, তখনই ঘটে বিপত্তি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, হাতির সামনে পড়ে যান
বনবিভাগের কমিউনিটি পেট্রল গ্রুপ (সিপিজি) সদস্য এবং এলিফ্যান্ট রেসকিউ টীমের দুই সদস্য। একজন কোন মতে রক্ষা পেলেও, আর একজন রহমত আলী হাতির আক্রমণে গুরুতর আহত হন। সোমবার দুপুরে আহত বনকর্মী মো. রহমত আলীকে চকরিয়া হাসপাতালে নিয়ে আসে গ্রামবাসীরা। সেখানে তার মৃত্যু হয়।

নিহত রহমত আলী চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের রিংভং সোয়াজানিয়া এলাকার আবদুস সালামের ছেলে এবং কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জের ডুলাহাজারা বিটের কমিউনিটি পেট্রল গ্রুপ (সিপিজি) সদস্য এবং এলিফ্যান্ট রেসকিউ টীম সদস্য।

এরপর হাতিকে বনে ফেরানোর জন্য বনকর্মীরা প্রাণপণ চেস্টা চালায়।কিন্ত সারাদিন হাতিকে বনাঞ্চলে ফেরাতে ব্যর্থ হন।


অবশেষে বহু চেস্টায় জঙ্গলেই সেই দাঁতাল হাতিকে ফেরানো হয়। হাতির খবরে যথেষ্ট আতঙ্কিত ছিল এলাকার মানুষ। হাতি বনে ফেরায় আতঙ্ক অনেকটাই কেটেছে বলে জানায় স্থানীয় বাসিন্দারা। ৭ ফেব্রুয়ারী সোমবার রাত ৯ টার দিকে বন্য হাতিটি ভেওলা মানিকচর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড মৌলভীরচর উত্তরে বেড়ি বাঁধে অবস্থান নেয়। ইউপির পক্ষ থেকে সবাই ঘরে সাবধানে থাকার পরাম্পর্শ দেয়া হয়। অবশ্যই বনবিভাগের কর্মীরা রাইফেল নিয়ে সতর্কতার সাথে হাতিটির পাশাপাশি ছিল। পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফারহানা আফরিন মুন্না জানান,

প্রিয় পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়ন বাসি রাত সাড়ে ১০টায় একটি বন্যা হাতি পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নে ডুকে পড়ে।
সাথে সাথে ইউনিয়নবাসীকে সতর্ক থাকতে বলা হয়।
পরে, রাত ১২ টার দিকে বন্যহাতি পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড মৌলভীচর এলাকায় অবস্থান নেন ।

সারারাত ওই এলাকার মানুষের কেটেছে নির্ঘুম রাত। মঙ্গলবার ভোরে হাতি বনে ফেরায় খুশি স্থানীয় বাসিন্দারা।

 

About Ayaz Ahmed

Check Also

যত জঙ্গি ধরেছি, একজনও মাদরাসার ছাত্র নন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

যত জঙ্গি ধরেছি, একজনও মাদরাসার ছাত্র নন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) বিকেলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *