Breaking News
Home / আইন বিচার / গঙ্গাচড়া থানা এলাকা হতে মুক্তিপণ চক্রের ০৩ সদস্য অস্ত্রসহ গ্রেফতার এবং ২ জন ভিকটিম উদ্ধার,র‍্যাব-১৩,

গঙ্গাচড়া থানা এলাকা হতে মুক্তিপণ চক্রের ০৩ সদস্য অস্ত্রসহ গ্রেফতার এবং ২ জন ভিকটিম উদ্ধার,র‍্যাব-১৩,

গঙ্গাচড়া থানা এলাকা হতে মুক্তিপণ চক্রের ০৩ সদস্য অস্ত্রসহ গ্রেফতার এবং ২ জন ভিকটিম উদ্ধার,র‍্যাব-১৩,

 

সিটিজি ট্রিবিউন রংপুর;

 

র‍্যাব-১৩,রংপুর এর ব্যাটালিয়ন সদর এর একটি আভিযানিক দল গত ১৪/০১/২০২২ তারিখে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে,রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া থানাধীন আলমবিদিতর ইউনিয়নের ফুলবাড়ীর চওড়া গ্রামে অপহৃত ভিকটিমসহ একটি সংঘবদ্ধ মুক্তিপণ চক্র অবস্থান করছে।

খন্দকার গোলাম মোৰ্ভূজা সিনিয়র এএসপি সিনিয়র সহকারি পরিচালক অধিনায়কের পক্ষে জানান,

র‍্যাব-১৩,রংপুর এর ব্যাটালিয়ন সদর ও সিপিএসসি রংপুর এর যৌথ আভিযানিক দল বিশেষ অভিযান পরিচলনা করে অপহৃত ভিকটিম ০২ জনকে রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া থানাধীন আলমবিদিতর ইউনিয়নের ফুলবাড়ীর চওড়া গ্রামে রাত্রি আনুমানিক ১০;১৫ ঘটিকার সময় উদ্ধার করেন।

উল্লেখ্য,ভিকটিম খন্দকার শাহাবুল ইসলাম ( ৫৭ ) এবং মোঃ ফারুক হোসেন ( ৩২ ) তারা নার্সারী ব্যবসায়ী।খুলনা খালিশপুর গোয়ালখালীতে ভিকটিম খন্দকার শাহাবুল ইসলাম নিজ বাড়ি সংলগ্ন বিশুদ্ধ এগ্রো নার্সারী আছে।

উক্ত বিশুদ্ধ এগ্রো নার্সারী এর ভিকটিমের স্ত্রীর মোবাইলে ফেসবুক আইডিতে মুকুল খন্দকার নামে চারা বেচা কেনার একটি পেইজ খোলা আছে । ভিকটিম খন্দকার শাহাবুল ইসলাম এর নিজ বাড়ি খুলনার খালিশপুর এলাকায় মুক্তিপণ চক্রের সদস্য শাকিবুল ও সাহাবুদ্দিন চারা ক্রয়ের উদ্দেশ্যে যায়।

তারা পরবর্তীতে নার্সারীর চারা দেখে পছন্দ হয় এবং ভিকটিমকে তাদের বাগান করার জমি দেখার জন্য রংপুর আসতে বলে । মুক্তিপণ চক্রের আমন্ত্রণে ভিকটিম খন্দকার শাহাবুল ইসলাম ( ৫৭ ) এবং মোঃ ফারুক হোসেন ( ৩২ ) গত ১৩ জানুয়ারি ২০২২ তারিখ আনুমানিক ১০.৩০ ঘটিকার সময় খুলনা হতে বাস যোগে রংপুর মর্ডাণ মোড়ে নামে।

পরবর্তীতে মুক্তিপণ চক্রের সদস্যরা ভিকটিমদ্বয়কে মোটরসাইকেলে রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া থানাধীন ফুলবাড়ির চওড়া গ্রামস্থ জনৈক মোঃ রুহুল আমীন ( ৫২ ) ,এর বসত বাড়িতে নিয়ে যায়।

তারপর ভিকটিমদ্বয়কে বসত বাড়ির পশ্চিম পাশের কক্ষে চোখ এবং হাত বেধে মেজেতে মাদুরের উপরে এক দিন আটক রাখে এবং তাদের নিকট ৫,০০,০০০ / – ( পাঁচ লক্ষ ) টাকা মুক্তিপন দাবি করে ও টাকা না দিলে জানে মারার হুমকি দেয়।

র‍্যাব-১৩,রংপুর এর ব্যাটালিয়ন সদর ও সিপিএসসি এর যৌথ আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আলমবিদিতর ইউনিয়নের ফুলবাড়ীর চওড়া গ্রামে পৌঁছালে র্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ভিকটিদ্বয়কেসহ অপহরণকারীরা পালানোর চেষ্টা করে ।

ঘটনাস্থল থেকে মুক্তিপণ চক্রের সদস্য ১। বাচ্চু চন্দ্র ( ৫২ ),২। স্বপন রায় ( ২২ ),এবং ৩। মোসাঃ খাদিজা বেগম ( ৩৭ ) ,দের’কে ব্র্যাব গ্রেফতার করেন এবং আরও কয়েকজন সু-কৌশলে ভিকটিমদ্বয়কে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

কিন্তু র‍্যাবের অভিযানিক দলের দ্রুত পদক্ষেপের কারণে ভিকটিমদ্বয়কে ফেলে তারা পালিয়ে যায় এবং অভিযানিক দল ভিকটিমদ্বয়কে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

মুক্তিপণ চক্রের মূলহোতা পলাতক আসামী আলমবিদিতর ইউনিয়নের মেম্বার রুহল আমীনের বাড়ী তল্লাশী করে উক্ত অপরাধে কাজে ব্যবহৃত ০১ টি দেশীয় পিস্তিল,০১ রাউন্ড গুলি,০৩ টি তরবারি,০১ টি মাইক্রোবাস এবং ০২ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে , গ্রেফতারকৃত আসামীরা সংঘবদ্ধ মুক্তিপণ চক্রের সাথে তাদের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছে।

তারা দীর্ঘদিন যাবৎ রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া থানার প্রত্যন্ত এলাকায় অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের মাধ্যমে অপহৃত ভিকটিমদের ছেড়ে দিত।

উপরোক্ত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন এবং অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারের জন্য র্যাবের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

 

About Ayaz Ahmed

Check Also

মৃত্যু রোধ ও ক্ষয়ক্ষতি হ্রাসে শক্তিশালী তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের কোন বিকল্প নেই :স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মৃত্যু রোধ ও ক্ষয়ক্ষতি হ্রাসে শক্তিশালী তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের কোন বিকল্প নেই :স্বাস্থ্যমন্ত্রী   আয়াজ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *