Breaking News
Home / আইন বিচার / আন্তঃজেলা ডাকাত দলের মূলহোতাসহ ১০ জন সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার।র‍্যাব-১,

আন্তঃজেলা ডাকাত দলের মূলহোতাসহ ১০ জন সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার।র‍্যাব-১,

নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ হতে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের মূলহোতাসহ ১০ জন সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার। ০২ টি বিদেশী পিস্তল, ০১ টি ওয়ান শুটারগান, ০১ টি শর্টগান এবং ০১ টি পাইপগানসহ বিপুল দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার।র‍্যাব-১,

 

আয়াজ সানি সিটিজি ট্রিবিউন ঢাকা;

 

সম্প্রতি রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় একটি সংঘবদ্ধ আন্তঃজেলা ডাকাত দল সক্রিয় রয়েছে বলে জানা যায়। এই চক্রের সদস্যরা দিনের বেলায় বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত থাকলেও সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে ভয়ংকর হয়ে উঠে। এই চক্রের সদস্যরা বিভিন্ন স্বর্ণের দোকান, শিল্পকারখানা এবং ব্যাংকে ডাকাতি করে আসছে মর্মে জানা যায়। বিষয়টি র‍্যাবের দৃষ্টিগোচর হলে অপরাধীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে র‍্যাব-১ ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ২১ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখ আনুমানিক ০২;৩০ টায় র‍্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, নারায়নগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানাধীন কাঞ্চনব্রীজের পশ্চিমপাশে একটি মাইক্রোবাসে সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের কতিপয় সদস্য দেশী ও বিদেশী অস্ত্রশস্ত্রসহ স্বর্ণের দোকান/শিল্পকারখানায় ডাকাতির উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে।

 

প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে আভিযানিক দলটি নারায়নগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানাধীন কাঞ্চনব্রীজের পশ্চিমপাশে মীরেরবাজার টু ভূলতাগামী সড়ক সংলগ্ন ভূইয়া হোটেলের সামনে অভিযান পরিচালনা করে সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য ১) মোঃ হিটু মিয়া (৪০) ২) মোঃ ফরহাদ আলী (৫৮) ৩) মোঃ লিটন শেখ (৩৮),৪) রিপন মৃধা জামাই রিপন (২৯),৫) স্বপন মিয়া (২৭) ৬) মোঃ জাকির ব্যাপারী (২৯),৭) জলিল খাঁন (৪০) ৮) শ্রী লক্ষণ চন্দ্র দাস (২৬) ৯) শ্রী অজিত চন্দ্র সূত্রধর (২৭), এবং ১০) মোঃ ইখতিয়ার হোসেন (৪৭),’দেরকে গ্রেফতার করে।

 

এ সময় ধৃত আসামীদের নিকট হতে ০২ টি বিদেশী পিস্তল, ০১টি শর্টগান, ০১ টি ওয়ান শুটারগান, ০১ টি পাইপগান, ০২টি ম্যাগাজিন, ০৫ রাউন্ড গুলি, ০২ রাউন্ড কার্তুজ, ০৩টি ছুরা, ০১টি লোহার কাঁচি সাবল, ০২টি হাতুড়ি, ০১টি ফ্রেমসহ হ্যাকস’ বেøড, ০২টি ছেনি, ১০টি মোবাইল ফোন ও নগদ-৩১,২০০/-টাকা উদ্ধার করা হয়।

 

ধৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা একটি আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। এই চক্রটি নারায়নগঞ্জ জেলা শহর/আশপাশের এলাকায় একটি স্বর্ণের দোকান/শিল্পকারখানায় ডাকাতি করার উদ্দেশ্যে রূপগঞ্জ থানাধীন কাঞ্চনব্রীজ এলাকায় মাইক্রোবাসে একত্রিত হচ্ছিল মর্মে জানায়।

 

এই চক্রটি নানাবিধ কৌশল অবলম্বন করে ব্যাংক, স্বর্ণের দোকান এবং বিভিন্ন শিল্প কারখানায় ডাকাতি করে নগদ অর্থ, স্বর্ণালঙ্কার এবং মূল্যবান সামগ্রী ছিনিয়ে নেয়। এই চক্রের সদস্যরা দেশের ভিন্ন ভিন্ন জেলায় বসবাস করে।

 

তারা ডাকাতি করার পূর্বে তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী নির্ধারিত স্থানে একত্রিত হয়ে ডাকাতির পরিকল্পনা করে। তাদের ডাকাতির পরিকল্পনা অনুযায়ী প্রথমত তারা টার্গেট নির্ধারণ করে। পরবর্র্তীতে তাদের ১/২ জন ছদ্মবেশে ব্যাংক, স্বর্ণের দোকান, শিল্পকারখানার বাহিরে অবস্থান করে ২/৩ জন ভেতরে প্রবেশ করে এবং মূল দলটি মাইক্রোবাসসহ সুবিধাজনক স্থানে অপেক্ষা করতে থাকে।

এই চক্রের সদস্যরা একে অপরের যোগসাজশে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় ইতোপূর্বে ১১ টি ডাকাতি সংগঠিত করেছে মর্মে স্বীকার করে। ধৃত আসামীদের নামে ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ, কেরানীগঞ্জ মডেল ও সাভার থানা, ডিএমপির শাহআলী, মতিঝিল ও ডেমরা থানা, নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁও ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা, গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর থানা, টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর থানা, মানিকগঞ্জ জেলার ঘিওর থানাসহ দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি মামলা রয়েছে মর্মে জানা যায়।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

 

About Ayaz Ahmed

Check Also

সরকারী ছুটিকে কাজে লাগিয়ে বান্দরবানে রাতের আধারে পাহাড় কাটার মহোৎসব

সরকারী ছুটিকে কাজে লাগিয়ে বান্দরবানে রাতের আধারে পাহাড় কাটার মহোৎসব   সিটিজি ট্রিবিউন বান্দরবান প্রতিনিধি, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *