সিটি ভোটে সরাসরি থাকছে না সেনাবাহিনী! -

সিটি ভোটে সরাসরি থাকছে না সেনাবাহিনী!

রাজধানী ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে সরাসরি সেনাবাহিনী থাকছে না বলে জানা গেছে। তবে তা নিশ্চিত করে জানা যাবে আগামী ২২ জানুয়ারি। ওই দিন বিকাল ৩টায় নির্বাচন কমিশন (ইসি) ভবনে নির্বাচনের জন্য আইনশৃঙ্খলা বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। তাতে অংশ নেবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নূরুল হুদার নেতৃত্বে অন্য কমিশনাররা। উপস্থিত থাকবেন পুলিশ, বিজিবি, আনসার ও র‌্যাবের প্রতিনিধিরাও।

তবে ইসি সূত্রে জানা গেছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে কমিশনের ওই বৈঠকের জন্য একটি প্রস্তাবনা প্রস্তুত করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে সেনাবাহিনী সরাসরি থাকবে না। কেবল ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) মেইন্টেন করার জন্য প্রতি ভোটকেন্দ্রে দুজন সেনা সদস্য থাকবেন।

ইসির বৈঠকের প্রস্তাবনায় আরও বলা হয়েছে, প্রতিটি সাধারণ ভোটকেন্দ্রে অস্ত্রসহ দুজন পুলিশ (একজন এসআই/এএসআই ও একজন কনস্টেবল) থাকবে। এছাড়া নিরাপত্তার জন্য থাকবে ১০ জন আনসার সদস্য। গুরুত্বপূর্ণ ভোটকেন্দ্রে অস্ত্রসহ তিনজন পুলিশ (একজন এসআই/এএসআই ও দুজন কনস্টেবল) থাকবে। সেক্ষেত্রে ১২ জন আনসার সদস্য কেন্দ্রের নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকবে।

দুই সিটির ১২৯টি ওয়ার্ডের (উত্তরে ৫৪ ও দক্ষিণে ৭৫) প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে মোবাইল ফোর্স থাকবে, র‌্যাবের একটি করে টিম থাকবে। প্রতি তিনটি ওয়ার্ডে একটি করে স্টাইকিং ফোর্স এবং দুটি ওয়ার্ডে ১ প্লাটুন করে বিজিবি সদস্য থাকবে।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আগামী ৩০ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এবারের নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট হতে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *